Inqilab Logo

ঢাকা মঙ্গলবার, ২০ অক্টোবর ২০২০, ৪ কার্তিক ১৪২৭, ০২ রবিউল আউয়াল ১৪৪২ হিজরী
শিরোনাম

যুক্তরাজ্য-আয়ারল্যান্ডে ভ্রমণে নিষেধাজ্ঞা

করোনামুক্ত ট্রাম্প

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ১৬ মার্চ, ২০২০, ১২:০০ এএম

যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প করোনাভাইরাসের পরীক্ষা করিয়েছেন এবং তার শরীরে এই ভাইরাস ধরা পড়েনি। গতকাল এক সংবাদ সম্মেলেনে তিনি নিজেই এই তথ্য জানিয়েছেন। এদিকে, যুক্তরাজ্য ও আয়ারল্যান্ডের ওপরও এবার ভ্রমণ নিষেধাজ্ঞা জারি করেছে যুক্তরাষ্ট্র।

এর আগে ট্রাম্পের করোনাভাইরাসের পরীক্ষা দরকার নেই বলে মন্তব্য করেছিলেন হোয়াইট হাউজের চিকিৎসক। তারপরেই ট্রাম্প নিজেই জানালেন যে তার টেস্ট করানো হয়েছে। সহজেই করোনাভাইরাস ছড়াতে পারে জনসম্মুখে এমন দুইটি ঘটনা ঘটার পর থেকেই ট্রাম্পের শরীরে করোনা ভাইরাসের টেস্ট করা হবে কি না সে বিষয়ে নিয়ে প্রশ্ন উঠতে থাকে। গত সপ্তাহে তিনি ব্রাজিলের কিছু ক‚টনৈতিকের সঙ্গে ফ্লোরিডায় ডিনারে বসেছিলেন। যেখানকার দুই সদস্য পরে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হন। তাদের একজন প্রেসিডেন্ট বলসেনারোর প্রেস সেক্রেটারি ফ্যাবিও ওয়াজগার্টেন।

যুক্তরাষ্ট্রে ইতোমধ্যেই করোনাভাইরাসে প্রাণ হারিয়েছেন অন্তত ৫০ জন। এই মহমারীতে দেশটিতে আক্রান্ত হয়েছে ২৩শ›র বেশি মানুষ। মার্কিন প্রেসিডেন্ট শুক্রবার বিকেলে যুক্তরাষ্ট্রে জরুরি অবস্থা জারি করেন দেশটিতে। ইতোমধ্যে সেখানকার অনেক প্রতিষ্ঠান তাদের কর্মীদের বাড়ি থেকেই কাজ করার পরামর্শ দিয়েছে। এমনকি সব স্কুল, বিশ্ববিদ্যালয়ও বন্ধ ঘোষণা করা হয়েছে। এর মধ্যেই শুক্রবার প্রথমবারের মতো করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে নিউ ইয়র্কে একজনের মৃত্যু হয়েছে। এ কারণে অপ্রয়োজনীয় সফর এড়িয়ে চলার পরামর্শ দিয়েছেন ট্রাম্প। তিনি বলেন, ‘আমাদের এ বিষয়টার সমাপ্তি ঘটানো দরকার। আমরা চাই না যে, আরো বেশি মানুষ এ ভাইরাসে আক্রান্ত হোক।’

এদিকে, যুক্তরাজ্য ও আয়ারল্যান্ডের ওপরও ভ্রমণ নিষেধাজ্ঞা জারি করেছে যুক্তরাষ্ট্র। এর আগে ইউরোপের দেশগুলো থেকে ৩০ দিনের জন্য যুক্তরাষ্ট্র ভ্রমণের ওপর নিষেধাজ্ঞা জারি করা হয়। মার্কিন প্রেসিডেন্ট একটি ঘোষণায় ইউরোপ থেকে আগত নাগরিকদের ওপর সব ধরনের ভ্রমণ নিষেধাজ্ঞা জারি করেন। কিন্তু সে সময় নিষেধাজ্ঞার বাইরে ছিল যুক্তরাজ্য ও আয়ারল্যান্ড ।

কিন্তু এবার যুক্তরাজ্য এবং আয়ারল্যান্ডকেও নিষেধাজ্ঞাতে অন্তর্ভ‚ক্ত করা হয়েছে। হোয়াইট হাউসে এক সংবাদ সম্মেলনে ভাইস প্রেসিডেন্ট মাইক পেন্স বলেন, ‘যুক্তরাজ্য এবং আয়ারল্যান্ড থেকে আগত নাগরিকদের ওপর সব ধরনের ভ্রমণ নিষেধাজ্ঞা আনার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প। স্থানীয় সময় সোমবার মধ্যরাত থেকে এই নিষেধাজ্ঞা কার্যকর হবে।’ তবে যুক্তরাজ্য ও আয়ারল্যান্ডে অবস্থানরত কোনো মার্কিন নাগরিকের ওপর এই নিষেধাজ্ঞা থাকবে না। মাইক পেন্স বলেন, যুক্তরাজ্য ও আয়ারল্যান্ডে থাকা আমেরিকানরা দেশে ফিরতে পারবেন। বৈধ নাগরিকরা দেশে আসতে পারবেন।

যুক্তরাষ্ট্রের ভেতরে বিভিন্ন অঙ্গরাজ্যে সফরের বিষয়ে কোনো কড়াকড়ি আরোপ করা হবে কিনা সে বিষয়ে জানতে চাওয়া হলে মাইক পেন্স বলেন, বিস্তৃত আকারে ব্যবস্থা গ্রহণের চিন্তা করছে প্রশাসন। তবে এ বিষয়ে এখনও কোনো সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা হয়নি। তিনি বলেন, আমরা প্রকৃত ঘটনা অনুসরণ করে যাচ্ছি। আমরা বিশেষজ্ঞদের পরামর্শ শুনে কাজ করছি। অপরদিকে প্রেসিডেন্ট ট্রাম্পের ভ্রমণ নিষেধাজ্ঞার ঘটনায় তীব্র প্রতিক্রিয়া জানিয়েছেন ইউরোপীয় কর্মকর্তারা। তারা এই মহামারির বিরুদ্ধে লড়াইয়ে যুক্তরাষ্ট্রকে সহায়তার আহ্বান জানিয়েছেন।

এর আগে, ইউরোপের ২৬ দেশর ওপর যুক্তরাষ্ট্র ভ্রমণে নিষেধাজ্ঞা জারি করে যুক্তরাষ্ট্র। যুক্তরাজ্যে নতুন করে ৩৪২ জন করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছে। ফলে দেশটিতে এখন পর্যন্ত মোট আক্রান্তের সংখ্যা ১ হাজার ১৪০। অপরদিকে, দেশটিতে নতুন করে মৃত্যু ঘটেছে ১০ জন। ফলে, এখন পর্যন্ত মোট মৃত্যু হয়েছে ২১ জনের। এছাড়া করোনায় আক্রান্ত ১৮ জন চিকিৎসা শেষে সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছে। সূত্র : দ্য নিউইয়র্ক টাইম্স, নিউজ রিপাবলিক।

 



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: যুক্তরাজ্য


আরও
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ