Inqilab Logo

ঢাকা মঙ্গলবার, ২৯ সেপ্টেম্বর ২০২০, ১৪ আশ্বিন ১৪২৭, ১১ সফর ১৪৪২ হিজরী

দেশে গণতন্ত্র ও সংবাদপত্রের স্বাধীনতা নাই

বিবৃতিতে ব্যারিস্টার তাসমিয়া প্রধান

স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ১৬ মার্চ, ২০২০, ১২:০০ এএম

দৈনিক মানবজমিনের প্রধান সম্পাদক মতিউর রহমান চৌধুরীসহ ৩২ জনের নামে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে মামলার ঘটনায় গভীর উদ্বেগ প্রকাশ করেছেন জাগপা সভাপতি ব্যারিস্টার তাসমিয়া প্রধান। তিনি অবিলম্বে এ মামলা প্রত্যাহারের দাবি জানান।

গতকাল এক বিবৃতিতে ব্যারিস্টার তাসমিয়া প্রধান বলেন, বাংলাদেশে সত্য প্রকাশের অনুমতি নাই। দেশের সঠিক চিত্র তুলে ধরা সংবাদিকদের নৈতিক দায়িত্ব কিন্তু সত্য প্রকাশ করা হলে গণমাধ্যমের কার্যালয়ে পুলিশের মারমুখী অনুপ্রবেশ, কর্মরত সাংবাদিককে চোর-ডাকাতের মতো আটক, এমনকি সংবাদপত্রের প্রকাশনা বন্ধ এবং প্রেস পর্যন্ত বাজেয়াপ্ত করার ঘটনা ঘটেছে। যেখানে সংবাদপত্রের স্বাধীনতা সবচেয়ে বেশি সেখানে গণতন্ত্র তত বেশি স্বচ্ছ। দুঃখের সাথে বলতে হয় আমাদের দেশে সংবাদপত্রের স্বাধীনতা নাই, গণতন্ত্র ও নাই। একের পর এক সাংবাদিক হত্যা, সংবাদপত্র নিষিদ্ধ, সত্য প্রকাশে নির্ভীক সম্পাদকদের ওপর জেল-জুলুমের স্টিম রোলার, গণমাধ্যমের ওপর কর্তৃত্ব স্থাপন উদ্বেগজনক পর্যায়ে পৌঁছেছে। তাসমিয়া প্রধান বলেন, দৈনিক মানবজমিনের প্রধান সম্পাদক মতিউর রহমান চৌধুরীসহ ৩২ জনের নামে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে মামলা কোন ভাবেই গ্রহণযোগ্য নয়।
দৈনিক মানবজমিন এর মত একটি জনপ্রিয় পত্রিকার সন্মানিত সম্পাদক এর নামে মামলা দিয়ে প্রকৃতপক্ষে সত্য প্রকাশের পথ বন্ধ করার চেষ্টা করা হচ্ছে। অপর দিকে টাস্কফোর্স অভিযানের নামে মধ্যরাতে ঘরের দরজা ভেঙে মারধর করে কুড়িগ্রামের সাংবাদিক আরিফুল ইসলাম রিগানকে তুলে নিয়ে ভ্রাম্যমাণ আদালতের মাধ্যমে এক বছরের জেল দেওয়া হয়েছে সত্য প্রকাশের অপরাধে। আমরা এর তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানাই।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: গণতন্ত্র


আরও
আরও পড়ুন