Inqilab Logo

ঢাকা, শনিবার, ২৩ ফেব্রুয়ারি ২০১৯, ১১ ফাল্গুন ১৪২৫, ১৭ জামাদিউস সানি ১৪৪০ হিজরী।

২ বছর আগেই শুরু যুব বিশ্বকাপের প্রস্তুতি

প্রকাশের সময় : ১৩ জুলাই, ২০১৬, ১২:০০ এএম

শামীম চৌধুরী : মেহেদী হাসান মিরাজের নেতৃত্বে অনূর্ধ্ব-১৯ ক্রিকেট ইতিহাসে এই প্রথম সেমিফাইনালিস্টের গর্বিত অধ্যায় রচনা করায় পরবর্তী অনূর্ধ্ব-১৯ বিশ্বকাপ নিয়ে ব্যাপক পরিকল্পনা হাতে নিয়েছে। ২০১৮’র ১২ জানুয়ারি থেকে ৪ ফেব্রæয়ারিতে নিউজিল্যান্ডে অনুষ্ঠেয় অনূর্ধ্ব-১৯ বিশ্বকাপে ইতিহাস রচনায় এখন থেকেই তৎপর বিসিবি’র গেম ডেভেলপম্যান্ট কমিটি। বয়সসীমা বেড়ে যাবে বলে সর্বশেষ অনূর্ধ্ব-১৯ বিশ্বকাপের তারকা মেহেদী হাসান মিরাজ, নাজমুল হোসেন শান্ত, সাইফুদ্দিনদের সার্ভিস পাবে না বাংলাদেশ। ওই স্কোয়াডের মধ্যে সাইফ হাসান, পিনাক ঘোষ, হালিম ছাড়া আর কারো সার্ভিস যাবে না পাওয়া, তা ধরে নিয়েই এখন থেকে সেরা দল গঠনে মাঠে নেমেছে গেম ডেভেলপম্যান্ট কমিটি। অনূর্ধ্ব-১৮ চ্যালেঞ্জ সিরিজ থেকে ২৫ ক্রিকেটারকে দীর্ঘমেয়াদী অনুশীলন ক্যাম্পের জন্য মনোনীত করেছে ইতোমধ্যে জুনিয়র এজ গ্রæপ নির্বাচকরা। আগামী মাস থেকে শুরু হবে বিকেএসপিতে এই ক্রিকেটারদের ক্যাম্প। সেখান থেকেই অপরিহার্যদের খুঁজে বের করতে চায় গেম ডেভেলপম্যান্ট কমিটি।
দেশের মাটিতে সর্বশেষ অনূর্ধ্ব-১৯ বিশ্বকাপে দারুন কিছু অর্জনে চেষ্টার কমতি ছিল না গেম ডেভেলপম্যান্ট কমিটির। শ্রীলংকা, ওয়েস্ট ইন্ডিজ, দ.আফ্রিকা, জিম্বাবুয়ের সঙ্গে দ্বি-পাক্ষিক সিরিজ ছাড়াও ভারত সফর করেছে বাংলাদেশ অনূর্ধ্ব-১৯ দল। অনূর্ধ্ব-১৯ বিশ্বকাপকে সামনে রেখে স্টুয়ার্ট ল’র মতো হাই প্রোফাইল অস্ট্রেলিয়ান কোচকে উপদেষ্টা হিসেবে নিযুক্ত পর্যন্ত করেছিল বিসিবি। ২০১৬ অনূর্ধ্ব-১৯ বিশ্বকাপকে সামনে রেখে খুলনা, চট্টগ্রামে নিবিড় অনুশীলন ছাড়াও ভারতের আমন্ত্রণমূলক ত্রিদেশীয় ওয়ানডে টুর্নামেন্টে পর্যন্ত অংশ নিয়েছে মেহেদী হাসান মিরাজের দল। এছাড়া এসিসি অনূর্ধ্ব-১৯ টুর্নামেন্টের রুটিন আসরে অংশগ্রহণ তো আছেই।
অতীতের এই ধারাবাহিকতার মতো ২০১৮ অনূর্ধ্ব-১৯ বিশ্বকাপে অংশগ্রহণেও পর্যাপ্ত সংখ্যক আন্তর্জাতিক ম্যাচ খেলার কথা ভাবছে বিসিবি। এ বছরটিতে অবশ্য গেম ডেভেলপম্যান্ট কমিটি বেশি নজর দিচ্ছে অনুশীলনের উপর। বিকেএসপিতে নিজেদের মধ্যে ভাগ হয়ে অনুশীলন ম্যাচের পাশাপাশি চিরুণি অভিযানের মাধ্যমে বাছাইকৃত ক্রিকেটারদেরকে হাই পারফরমেন্স স্কোয়াডের মুখোমুখি অবতীর্ণ করানোর কথাও ভাবছে বিসিবি। এই পরিকল্পনার কথা জানিয়েছেন বিসিবি’র গেম ডেভেলপম্যান্ট কমিটির অপারেশন্স ম্যানেজার আবু এনাম মোহাম্মদ কাওসারÑ‘যেহেতু অনূর্ধ্ব-১৯ দল এখন গঠনের প্রক্রিয়ায় আছে, তাই নুতনদের এক্ষুণি আন্তর্জাতিক ম্যাচে নামিয়ে দেয়া ঠিক হবে না। এখন সময় তাদেরকে ভবিষ্যতের জন্য তৈরি করা।’
আগামী সেপ্টেম্বরে শ্রীলংকায় এসিসি অনূর্ধ্ব-১৯ ক্রিকেট দিয়ে প্রতিযোগিতামূলক আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে নামবে নুতন অনূর্ধ্ব-১৯ দল। দ্বি-পাক্ষিক চুক্তিতে শ্রীলংকা অনূর্ধ্ব-১৯ ক্রিকেট দলের সঙ্গে আগামী ডিসেম্বর-জানুয়ারিতে ২টি ৪ দিনের, ৫টি একদিনের ম্যাচের হোম সিরিজ আয়োজনের কথাও ভাবছে বিসিবি’র গেম ডেভেলপম্যান্ট কমিটি।
অনূর্ধ্ব-১৯ বিশ্বকাপের পরবর্তী আসর নিউজিল্যান্ড। যেখানে অতীতে ২ বার (২০০২ ও ২০১০) বাংলাদেশ অনূর্ধ্ব-১৯ ক্রিকেট দল তিক্ত অভিজ্ঞতা নিয়ে ফিরেছে দেশে। আশরাফুল, আফতাব, নাফিস ইকবাল, সৈয়দ রাসেল, তালহা যোবায়েরদের নিয়ে গড়া দলটি ২০০২ সালে নিউজিল্যান্ডে অনুষ্ঠিত অনূর্ধ্ব-১৯ বিশ্বকাপে কাপ পর্বে ওঠা দূরে থাক, প্লেট পর্বের সেমিতে পর্যন্ত নেপালের মতো দলের কাছে গেছে হেরে। রুম্মান, মুমিনুল, বিজয়, সৌম্য, সোহানদের মতো সময়ের সেরাদের নিয়ে সেখানে ২০১০ সালে অনুষ্ঠিত অনূর্ধ্ব-১৯ বিশ্বকাপে প্লেট রানার্স আপে সন্তুষ্ট থাকতে হয়েছে বাংলাদেশকে!
সে কারণেই যুব বিশ্বকাপের পরবর্তী আসরটি নিউজিল্যান্ডে বলে ওই কন্ডিশনের সঙ্গে আগে-ভাগে খাপ খাইয়ে নেয়ার কথা গুরুত্ব দিতে হচ্ছে গেম ডেভেলপম্যান্ট কমিটিকে। অনূর্ধ্ব-১৯ বিশ্বকাপকে সামনে রেখে দ.আফ্রিকা, জিম্বাবুয়ে, ওয়েস্ট ইন্ডিজের সঙ্গে সফর বিনিময়ের কথা ভাবছে এই কমিটি। অনূর্ধ্ব-১৯ বিশ্বকাপের প্রাক্কালে অস্ট্রেলিয়া অথবা নিউজিল্যান্ডের মাটিতে বেজ ক্যাম্প করার কথাও ভাবছে গেম ডেভেলপম্যান্ট কমিটিÑ ‘অস্ট্রেলিয়া, নিউজিল্যান্ড বোর্ডের সঙ্গে তাদের মাটিতে অনূর্ধ্ব-১৯ দলের সিরিজ খেলার চেষ্টা করব। যদি তারা রাজি না হয়, সেক্ষেত্রে বিকল্প ভাবনা আছে। ২০১৫ বিশ্বকাপকে সামনে রেখে যেমন বাংলাদেশ জাতীয় দল অস্ট্রেলিয়ার ব্রিসবেনে ক্যাম্প করেছে, ঠিক সেভাবেই যদি নিউজিল্যান্ড অথবা অস্ট্রেলিয়ার কোথাও ক্যাম্প করা যায়, সেই সুবিধাটা চাইব বিসিবি’র কাছে।’
অনূর্ধ্ব-১৯ বিশ্বকাপে বাংলাদেশ দলের সাফল্যে কোচ মিজানুর রহমান বাবুলের ভুমিকা কম নয়। টানা ২ বছর ধরে দলটি তৈরি করেছেন তিনি। কিন্তু ২০১৮ সালে অনুষ্ঠেয় পরবর্তী অনূর্ধ্ব-১৯ বিশ্বকাপের জন্য এই কোচকে আপাততঃ পাচ্ছে না গেম ডেভেলপম্যান্ট কমিটি। আগামী ১৭ জুলাই থেকে হাই পারফরমেন্স স্কোয়াডের যে অনুশীলন ক্যাম্প শুরু হচ্ছে, সেখানেই যে যুক্ত করা হয়েছে বাবুলকে।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

আরও পড়ুন