Inqilab Logo

ঢাকা, শনিবার, ২৩ ফেব্রুয়ারি ২০১৯, ১১ ফাল্গুন ১৪২৫, ১৭ জামাদিউস সানি ১৪৪০ হিজরী।

জঙ্গিবাদীরা ইসলামের রীতিনীতি ধ্বংস করে সরকার উৎখাত করতে চায়

গাইবান্ধায় তথ্যমন্ত্রী হাসানুল হক ইনু

প্রকাশের সময় : ১৩ জুলাই, ২০১৬, ১২:০০ এএম

গাইবান্ধা জেলা সংবাদদাতা : গাইবান্ধার কমিউনিটি ‘রেডিও সারাবেলা’র আনুষ্ঠানিক উদ্বোধনকালে তথ্যমন্ত্রী হাসানুল হক ইনু এমপি বলেন, কমিউনিটি রেডিও জাতীয় টেকসই লক্ষ্যমাত্রা অর্জনসহ গ্রামীণ আর্থ-সামাজিক উন্নয়নে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখবে। শিক্ষা, স্বাস্থ্য, সচেতনতা ও জঙ্গীবাদ প্রতিরোধের পাশাপাশি এলাকার অবহেলিত সাহিত্য ও সংস্কৃতির উন্নয়নে কমিউনিটি রেডিও অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ অবদান রাখবে।
তিনি আরও বলেন, জঙ্গীবাদীদের ইসলামের রীতিনীতি ধ্বংস ও উন্নয়নের চাকা বন্ধ করে ষড়যন্ত্রের মাধ্যমে সরকারকে উৎখাত করাই তাদের উদ্দেশ্য। এসকেএস ফাউন্ডেশন পরিচালিত গাইবান্ধা জেলা শহরের রাধাকৃষ্ণপুর এসকেএস ইনএ কমিউনিটি রেডিও ‘রেডিও সারাবেলা’ ৯৮.৮ এর উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখতে গিয়ে তথ্যমন্ত্রী হাসানুল হক ইনু এমপি এসব কথা বলেন।
মঙ্গলবার এসকেএস ফাউন্ডেশনের নির্বাহী পরিচালক রাসেল আহমেদ লিটনের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন জেলা প্রশাসক মো. আব্দুস সামাদ, পুলিশ সুপার মো. আশরাফুল ইসলাম, পল্লীকর্ম সহায়ক ফাউন্ডেশনের পরিচালক (গবেষণা) ড. তাপস কুমার বিশ্বাস, বিএনএনআরসির প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা এএইচএম বজলুর রহমান, গাইবান্ধা পৌরসভার মেয়র এডভোকেট শাহ মাসুদ জাহাঙ্গীর কবির মিলন, জেলা জাতীয় পার্টির সভাপতি আব্দুর রশিদ সরকার, গাইবান্ধা প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক আবু জাফর সাবু, সাঘাটা উপজেলা চেয়ারম্যান এএইচএম গোলাম শহীদ রঞ্জু, জাসদ সভাপতি মুক্তিযোদ্ধা শাহ শরিফুল ইসলাম বাবলু, জেলা আ’লীগের সাধারণ সম্পাদক আবু বকর সিদ্দিক প্রমুখ।
তথ্যমন্ত্রী আরও বলেন, বর্তমান সরকার প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে গত ৭ বছরে গণমাধ্যমের ব্যাপক উন্নয়ন ও প্রসার ঘটিয়েছে। সারাদেশে চালু করেছে ৩২টি কমিউনিটি রেডিও। এছাড়া জঙ্গীবাদের বর্বরতার কাছে মাথা নত না করে এই সরকার মানুষের কল্যাণে সাংবিধানিক, গণতান্ত্রিক ও নির্বাচন প্রক্রিয়াকে এগিয়ে নিয়ে যেতে সক্ষম হয়েছে। বর্তমান সরকারের লক্ষ্য হচ্ছে জঙ্গী দমন, দুর্নীতি প্রতিরোধ ও সামাজিক বৈষম্য দূর করে একটি সমৃদ্ধ বাংলাদেশ গড়ার লক্ষ্য অর্জনে কাজ করা।
পরে তথ্যমন্ত্রী জেলা শিল্পকলা একাডেমী মিলনায়তনে জেলা জাসদ আয়োজিত জাসদ মনোনীত নবনির্বাচিত জনপ্রতিনিধিদের সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে অংশ গ্রহণ করেন। জেলা জাসদ সভাপতি মুক্তিযোদ্ধা শাহ শরিফুল ইসলাম বাবলুর সভাপতিত্বে জাসদ মনোনীত ৩ জন চেয়ারম্যান গাইবান্ধা সদর উপজেলার কামারজানি ইউনিয়নের আব্দুস সালাম জাকির, পলাশবাড়ির মনোহরপুর ইউনিয়নের মিজানুর রহমান চুটটু ও সাঘাটার জুমারবাড়ির রোস্তম আলী আকন্দ ও গাইবান্ধা পৌরসভার নবনির্বাচিত দু’জন কাউন্সিলর কামাল আহমেদ ও তানজিমুল ইসলাম পিটারকে সংবর্ধনা দেয়া হয় ও শপথ গ্রহণ করা হয়।
এসময় বক্তব্য রাখেন জাসদ কেন্দ্রীয় উপদেষ্টা পরিষদের সদস্য ডা. একরাম হোসেন, রংপুর বিভাগীয় সাংগঠনিক সম্পাদক মশিউর রহমান রাঙ্গা, জাসদ কেন্দ্রীয় কমিটির বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিষয়ক সম্পাদক এসএম খাদেমুল ইসলাম খুদি, সাধারণ সম্পাদক গোলাম মারুফ মনা, নুরুজ্জামান প্রধান, জিয়াউল হক জনি, খোরশেদ আলী খান, সুজন প্রসাদ, রুবেল মিয়া, রাকিব হাসান সীমান্ত, শাহাদত হোসেন সবুজসহ জেলা ও উপজেলা জাসদ নেতৃবৃন্দ।
বগুড়ায় মতবিনিময়
বগুড়া অফিস জানায়, গতকাল মঙ্গলবার বিকেলে বগুড়া সার্কিট হাউসে সাংবাদিকদের সাথে মতবিনিময় একথা বলেছেন তথ্য মন্ত্রী হাসানুল হক ইনু।
তিনি বলেন, জঙ্গি দমনে খালেদা জিয়া তার অবস্থান প্রমাণে ব্যর্থ হয়েছে। এই যুদ্ধে মাঝা মাঝি বলে কোনো পক্ষ নেই। তিনি (খালেদা জিয়া) জাতীয় ঐক্যের কথা বলেন, কিন্তু জামায়াতের সঙ্গে সঙ্গ বাদ দিয়ে ঐক্যের কথা বলতে হবে। যদি জঙ্গির সঙ্গী হিসেবে খালেদা জিয়া তার অবস্থান ত্যাগ না করেন তাহলে তাকেও রেহাই দেয়া হবে না। তিনি আরো বলেন, গুলশান ও শোলাকিয়ার পর কঠিন অগ্নিপরীক্ষার মধ্যে রয়েছি আমরা। যারা ওই হামলা করেছিল তারা সরকার উৎখাতের চক্রান্ত করেছিল। ইসলামকে ধ্বংস করতে চেয়েছিল। যারা নারীর গায়ে হাত দেয়, শিশুর গায়ে হাত দেয় তাদের ধ্বংস করা ছাড়া আর কোনো উপায় নেই। জঙ্গিদের বিরুদ্ধে অবস্থান নেয়ায় ১৪ দল প্রমাণ করলো তারাই দেশপ্রেমিক।
সাংবাদিকদের উদ্দেশ্যে তিনি বলেন, “আপনারা জঙ্গি দমনের জন্য অনুসন্ধানী রিপোর্ট করবেন। কিন্তু মনে রাখবেন এমন কোনো রিপোর্ট করবেন না যাতে জঙ্গি পালিয়ে যায় এবং উস্কানিমূলক না হয়। বিবেক দিয়ে লিখে জঙ্গিবাদকে কোণঠাসা করুন। তিনি বলেন, জাসদ মনে করে জঙ্গি দমন করে শান্তিপূর্ণ বাংলাদেশ গড়া, সুশাসনের বাংলাদেশ গড়া, দুর্নীতি ও দলবাজী বন্ধ করে সুন্দর বাংলাদেশ গড়া। সাংবাদিকদের সাথে মতবিনিময় শেষে তিনি বগুড়া জেলা জাসদের নেতাকর্মীদের সাথে এক আলোচনা সভায় মিলিত হন।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ