Inqilab Logo

ঢাকা, রোববার ২৬ মে ২০১৯, ১২ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৬, ২০ রমজান ১৪৪০ হিজরী।

নিউ ইয়র্ক ফেডারেল ও বাংলাদেশ ব্যাংকের বৈঠক স্থগিত

প্রকাশের সময় : ১৩ জুলাই, ২০১৬, ১২:০০ এএম

অর্থনৈতিক রিপোর্টার : নিউ ইয়র্কের ফেডারেল ব্যাংকে থাকা বাংলাদেশ ব্যাংকের রিজার্ভ চুরি যাওয়া অর্থ ফেরত পাওয়ায় প্রচেষ্টা আরও দ্রুততর করার লক্ষ্যে বাংলাদেশ ব্যাংক এবং নিউ ইয়র্কের ফেডারেল রিজার্ভ ব্যাংকের কর্মকর্তাদের মধ্যে চলতি সপ্তাহে যে বৈঠকের সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছিল সেটা স্থগিত করা হয়েছে। গতকাল মঙ্গলবার রয়টার্সের খবরে বলা হয়, বাংলাদেশ ব্যাংকের ডেপুটি গভর্নর মোহাম্মাদ রাজি হাসানের নেতৃত্বে ৪ সদস্যের একটি দল আগামী ১৫ জুলাই নিউ ইয়র্কে ফেডারেল ব্যাংক কর্তৃপক্ষের সাথে বৈঠক করার কথা ছিল। নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক বাংলাদেশ ব্যাংকের এক উচ্চপদস্থ কর্মকর্তা রয়টার্সকে জানিয়েছেন, আমরা ফেডারেল ব্যাংকের সাথে কথা বলছি এবং আশা করছি চলতি মাসের শেষভাগে কিংবা আগামী মাসের শুরুতে বৈঠকটি অনুষ্ঠিত হতে পারে।
নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক নিউ ইয়র্কের ফেডারেল ব্যাংকের আরেক কর্মকর্তা জুনের ৩০ তারিখ বলেছিলেন, বাংলাদেশ ব্যাংকের সাথে এই বৈঠকের উদ্দেশ্য হচ্ছে, ঘটনাটা ঠিক কি ঘটেছিল সেটা পরিষ্কার হওয়া এবং সমস্যা সমাধানে কি পদক্ষেপ নেয়া উচিত সেটা নিয়ে আলোচনা করা। এই বৈঠকটি হবে দুই ব্যাংকের কর্মকর্তাদের মধ্যে ২য় বৈঠক। গত মে মাসের ১০ তারিখে সুইজারল্যান্ডের ব্রাসেলসে হয়েছিল প্রথম বৈঠক। ওই বৈঠকে চুরিকৃত অর্থ উদ্ধারে একত্রে কাজ করার সিদ্ধান্ত নিয়েছিল দুই ব্যাংক।
উল্লেখ্য, বাংলাদেশ ব্যাংকের সুইফট কোর্ড জালিয়াতি করে গত ৫ ফেব্রুয়ারি ফেডারেল রিজার্ভ ব্যাংকে অর্থ ছাড়ে অন্তত ৩৫ নির্দেশনা পাঠানো হয়। এগুলোর মধ্যে প্রথম ৫টি নির্দেশনায় ১০১ মিলিয়ন ডলার ছাড় করা হয়। কিন্তু পরের আরও ৩০টি নির্দেশনা আটকে দেয় ফেডারেল রিজার্ভ কর্তৃপক্ষ। লোপাটের ১০১ মিলিয়ন মার্কিন ডলারের মধ্যে ৮১ মিলিয়ন পাঠানো হয় ফিলিপাইনের রিজাল ব্যাংকের মাকাতি সিটির জুপিটার শাখার চার ব্যবসায়ীর একাউন্টে। বাকী ২০ মিলিয়ন মার্কিন ডলার পাঠানো হয় শ্রীলংকার একটি স্বেচ্ছাসেবী সংগঠনের নামে। কিন্তু প্রাপক সংগঠনের নামের বানানে ভুল থাকায় ওই টাকা আটকে দেয় ব্যাংক কর্তৃপক্ষ।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

আরও পড়ুন
গত​ ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ