Inqilab Logo

ঢাকা, শুক্রবার, ২৯ মে ২০২০, ১৫ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৭, ০৫ শাওয়াল ১৪৪১ হিজরী

রাজশাহীতে প্রশাসনের উদ্যোগে করোনা প্রতিরোধে লিফলেট বিতরণ

রাজশাহী ব্যুরো | প্রকাশের সময় : ২০ মার্চ, ২০২০, ৩:২১ পিএম

রাজশাহীতে প্রশাসনের উদ্যোগে করোনা প্রতিরোধে লিফলেট বিতরণ করা হয়। শুক্রবার সকাল ১০টার দিকে রাজশাহী নগরীর সাহেব বাজার জিরোপয়েন্টে এ কর্মসূচি পালন করা হয়েছে। এসময় রাজশাহী বিভাগীয় কমিশনার হুমায়ুন কবির খোন্দকার বলেন রাজশাহী বিভাগে কোন ভাইরাস রোগী নাই। তবে বিদেশ থেকে আসা ৮০৯ জনকে প্রশাসন ও আইনশৃংখলা বাহিনীর বিশেষ তত্বাবধানে হোম কোয়ারেন্টিনে রাখা হয়েছে। এছাড়াও বিদেশ ফেরত আরো ২৪ জনকে ১৪ দিন হোম কোয়ারেন্টিনে রাখার পর তাদের শরীরে করোনাভাইরাসের অস্তিত্ব না থাকার ছেড়ে দেয়া হয়েছে । এছাড়াও সরকারী আদেশ অমান্য করায় বিদেশ ফেরত ৯ জনকে জরিমানা করা হয় বলে জানান রাজশাহী বিভাগীয় কমিশনার ড. হুমায়ুন কবীর খোন্দকার। গতকাল শুক্রবার সকাল ১০টার রাজশাহী সাহেব বাজার জিরো পয়েন্টে করোনাভাইরাস সংক্রামণ প্রতিরোধে সচেতনতামূলক লিফলেট বিতরণ উদ্বোধনের পূর্বে সাংবাদিকদের সাথে কথা বলার সময় এই তথ্য জানান। তিনি আরো বলেন, এই ভাইরাস প্রতিরোধে এখন পর্যন্ত কোন ভ্যাকসিন ও ওষুধ বাজারে আসেনি। সেহেতু সচতেনতাই পারে এই ভাইরাসের মহামারি থেকে জনগণকে রক্ষা করতে।

কমিশনার বলেন, করোনা ভাইরাস সংক্রামণ প্রতিরোধে প্রশাসন ও পুলিশ বিভাগের পক্ষ থেকে রাজশাহী বিভাগে সকল প্রকার সভা সমাবেশ নিষিদ্ধ করা হয়েছে। কেউ অমান্য করলে কঠোর ব্যবস্থা নেয়া হবে বলে তিনি হুঁশিয়ারী দেন। প্রয়োজন ছাড়া বাহিরে না যাওয়া এবং শিক্ষার্থীদের বাড়িতে থাকার পরামর্শ দেন তিনি। বাহিরে যেতে হলে মাস্ক এবং সরকারী নিদের্শনা অনুযায়ী দূরত্ব বজায় রাখার কথা বলেন তিনি। বিনোদন কেন্দ্রে যাওয়া থেকে বিরত রাখতে ইতোমধ্যে বিভাগের সকল বিনোদন কেন্দ্র বন্ধ ঘোষনা করা হয়েছে। চিকিৎসা বিষয়ে জানতে চাইলে তিনি আরো বলেন, প্রতি সরকারী হাসপাতাল ও উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স প্রস্তুত রাখা হয়েছে। এছাড়াও চিকিৎসকদের প্রয়োজনীয় নিরাপত্তা এ্যাপ্রোনের ব্যবস্থা করা হয়েছে। বর্তমানে সিভিল সার্জন এর নিকট রয়েছে। দ্রæত সময়ের মধ্যে প্রদান করা হবে। সেইাসাথে চিকিৎসকদের জন্য এই ধরনের আরো পোষাক আনার জন্য আবেদন করা হয়েছে।

যেখানে সেখানে থুথু ও কফ ফেলা এবং গুজব ছড়ানো থেকে বিরত থাকার জন্য জনগণের প্রতি আহবান জানা তিনি। বাস চলাচল বন্ধের বিষয়ে তিনি বলেন, এটা বাস মালিক সমিতির সিদ্ধান্ত। সরকারের কোন সিদ্ধান্ত নয়। তবে গণ-পারিবহন এড়িয়ে চলার জন্য পরামর্শ দেন তিনি। সেইসাথে করোনাভাইরাস আক্রান্ত কারো সন্ধান পেলে দ্রæত তাদেরকে জানানোর জন্য আহবান জানান বিভাগীয় কমিশনার। বাড়িতেই ডাক্তার চিকিৎসা করবেন এবং এ বিষয়ে গঠিত কমিটি সহযোগিতা করবেন জানান তিনি। পরে উপস্থিত কর্মকর্তাদের নিয়ে সচতেনতামূলক লিফলেট বিতরণ করেন তিনি ।

এসময়ে রাজশাহী রেঞ্জের ডিআইজি এ.কে.এম হাফিজ আক্তার-বিপিএম (বার), রাজশাহী জেলা প্রশাসক হামিদুল হক, অতিরিক্ত বিভাগীয় কমিশনার আব্দুল মান্নান, অতিরিক্ত বিভাগীয় কমিশনার জাকীর হোসেন, অতিরিক্ত পুলিশ কমিশনার সুজায়েতুল ইসলাম, রাজশাহী ডিডিএলজি পারভেজ রায়হান, এডিসি জেনারেল শরিফুল হক, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (আইসিটি) কামরুজ্জামান, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (রাজস্ব) নজরুল ইসলাম ও অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিষ্ট্রেট আবু আসলামসহ অন্যান্য কর্মকর্তাগণ, পুলিশ এবং ফায়ার সার্ভিসের সদস্যবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন। তাঁরা সকলেই মিলে সাহেব বাজারের বিভিন্ন মার্কেট এবং রাস্তার পাশে দোকানদার ও পথচার্রীদের মধ্যে লিফলেট বিতরণ করেন।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: লিফলেট বিতরণ


আরও
আরও পড়ুন
গত​ ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ