Inqilab Logo

ঢাকা রোববার, ২০ সেপ্টেম্বর ২০২০, ০৫ আশ্বিন ১৪২৭, ০২ সফর ১৪৪২ হিজরী

এমবাপে-নেইমারের চেয়ে পিছিয়ে মেসি

স্পোর্টস ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ২১ মার্চ, ২০২০, ১২:০২ এএম

ফুটবলভক্তদের অধিকাংশের মতে লিওনেল মেসিই বিশ্বের সেরা খেলোয়াড়, তর্ক সাপেক্ষে সর্বকালের সেরা। বর্তমান যুগেও তার সমকক্ষ কেউ নেই। কিন্তু যদি ট্রান্সফার মার্কেটের প্রশ্ন আসে তাহলে হিসাবটা আলাদা। সেখানে মেসি অনেকটাই পিছিয়ে। বৈশ্বিক মহামারী করোনাভাইরাসের কারণে বন্ধ হয়ে গেছে ইউরোপের সবধরনের ফুটবল টুর্নামেন্ট। এই সুযোগে আলোচনায় চলে এসেছে ট্রান্সফার মার্কেট। আসন্ন গ্রীষ্মে যাদের নিয়ে দলগুলোর মধ্যে কাড়াকাড়ি পড়তে পারে তাদের নিয়ে এরইমধ্যে আলোচনা শুরু হয়ে গেছে।

ট্রান্সফার মার্কেটের বাজারে মেসির নাম আসার সম্ভাবনা যদিও কম, কিন্তু বার্সার সঙ্গে তার নতুন চুক্তি হওয়ার আগ পর্যন্ত কিছুই নিশ্চিত নয়। কিন্তু ট্রান্সফার মার্কেটের তালিকা অনুযায়ী, বর্তমান বাজারম‚ল্য অনুসারে মেসির স্থান আটে। জরিপটি চালিয়েছে স্প্যানিশ গনমাধ্যম মার্কা।
কিলিয়ান এমবাপে (পিএসজি) : ২০০ মিলিয়ন ইউরো

বাকি সবাইকে বড় ব্যবধানে পেছনে ফেলে তালিকার শীর্ষে আছেন ফ্রান্সের ‘গোল্ডেন বয়’। মাত্র ২১ বছর বয়সেই তিনি বিশ্বকাপ জিতেছেন এবং ফরাসি লিগ ওয়ানের সবচেয়ে বড় তারকাও এখন তিনি। তাকে পেতে তাই গ্রীষ্মে মোটা অঙ্কের অর্থই খসাতে হবে দলগুলোকে।

রহিম স্টার্লিং (ম্যানচেস্টার সিটি) : ১৬০ মিলিয়ন ইউরো
ইংলিশ উইঙ্গারের বাজারম‚ল্য নেইমারের সমান। তবে তার ম‚ল্য এত বেশি হলেও ফর্ম বিবেচনায় ঠিকই আছে। তাছাড়া দুই বছর ইউরোপীয় নিষেধাজ্ঞার কারণে ম্যানচেস্টার সিটিও হয়তো আর তাকে ধরে রাখতে পারবে না।

নেইমার জুনিয়র (পিএসজি) : ১৬০ মিলিয়ন ইউরো
শীর্ষ তিনে জায়গা পেলেও নেইমারের ম‚ল্য অনেকটাই কমে গেছে। ২০১৭ সালে তাকে কিনতে ২২২ মিলিয়ন ইউরো খরচ করেছিল বার্সা। আর বর্তমানে তার বাজারম‚ল্য ১৬০ মিলিয়ন ইউরো। যদিও বার্সা, রিয়ালের মতো ক্লাব তাকে পেতে আরও বেশি অর্থ খরচ করতে পারে।

সাদিও মানে (লিভারপুল) : ১৫০ মিলিয়ন ইউরো
লিভারপুলে কোচ ইয়ুর্গেন ক্লপের অধীনে দুর্দান্ত ফর্মে আছেন সাদিও মানে। এবার মৌসুম শেষের অনেক আগেই ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগের শিরোপার ঘ্রাণ পাচ্ছে অল রেডস’রা। ফলে তার ম‚ল্য আরও বাড়তে পারে।

মোহামেদ সালাহ (লিভারপুল) : ১৫০ মিলিয়ন ইউরো
লিভারপুলের মিশরীয় ফরোয়ার্ডের বাজারম‚ল্যও হ্যারি কেনের সমান। তবে লিভারপুল চ্যাম্পিয়নস লিগ থেকে আগেভাগে বিদায় নেওয়ায় তার ম‚ল্য কমতেও পারে।

হ্যারি কেন (টটেনহাম) : ১৫০ মিলিয়ন ইউরো
গত পাঁচ বছরের মধ্যে বিশ্বের অন্যতম ভয়ঙ্কর ও কার্যকর স্ট্রাইকার এই টটেনহামের ইংলিশ তারকা। তাকে নিয়ে এরইমধ্যে শীর্ষ সব ইলিংশ আর স্প্যানিশ ক্লাবের মধ্যে তুমুল আগ্রহ লক্ষ্য করা গেছে।

কেভিন ডি ব্রæইন (ম্যানচেস্টার সিটি) : ১৫০ মিলিয়ন ইউরো
ম্যানচেস্টার সিটিতে পেপ গার্দিওলার সবচেয়ে গুরুত্বপ‚র্ণ অস্ত্র। ইংলিশ জায়ান্টরা যদি চ্যাম্পিয়নস লিগের নিষেধাজ্ঞা থেকে মুক্তি না পায়, তাহলে ডাচ তারকার আগামী গ্রীষ্মে নতুন কোনো ক্লাবে পাড়ি জমানোর সম্ভাবনা প্রবল।

লিওনেল মেসি (বার্সেলোনা) : ১৪০ মিলিয়ন ইউরো
এখনও বার্সা অধিনায়কের রিলিজ ক্লজ ৭০০ মিলিয়ন ইউরো। তবে আসন্ন গ্রীষ্মে তিনি ‘ফ্রি‘ হতে যাচ্ছেন। তখন তার বাজারম‚ল্য হতে পারে ১৪০ মিলিয়ন ইউরো। যদিও আর্জেন্টাইন ফরোয়ার্ডের ক্যাম্প ন্যু ছাড়ার সম্ভাবনা নেই বললেই চলে।

জাদোন সানচো (বরুশিয়া ডর্টমুন্ড) : ১২০ মিলিয়ন ইউরো
বর্তমান বিশ্বের অন্যতম প্রতিভাবান ফুটবলার এই ডর্টমুন্ড উইঙ্গার। ম্যানচেস্টার সিটি ছেড়ে জার্মান ক্লাবের সঙ্গে দুটি অসাধারণ মৌসুম কাটিয়েছেন তিনি। ইংলিশ তারকাকে বেচে মোটা অঙ্কের টাকাই কামাবে ডর্টমুন্ড।

আতোঁয়ান গ্রিজম্যান (বার্সেলোনা) : ১২০ মিলিয়ন ইউরো
গত মৌসুমে অ্যাতলেটিকো মাদ্রিদ থেকে এই দামেই ফরাসি ফরোয়ার্ডকে কিনেছিল বার্সা। তার দামের কোনো হেরফের হয়নি।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: এমবাপে-নেইমার
আরও পড়ুন