Inqilab Logo

ঢাকা বুধবার, ২৮ অক্টোবর ২০২০, ১২ কার্তিক ১৪২৭, ১০ রবিউল আউয়াল ১৪৪২ হিজরী

ফুলবাড়ীতে হোম কোয়ারেন্টাইনে ৮ জন

উৎকন্ঠায় দিন কাটাচ্ছে উপজেলাবাসী

ফুলবাড়ী (দিনাজপুর) সংবাদদাতা | প্রকাশের সময় : ২১ মার্চ, ২০২০, ৩:১২ পিএম

বিভিন্ন দেশে করোনা ভাইরাসের বিস্তারের কারণে বিভিন্ন দেশ থেকে দিনাজপুরের ফুলবাড়ীতে দেশে ফিরেছে কতজন তার কোন সঠিক হিসেব নেই কর্তৃপক্ষের কাছে, তবে হোম কোয়ারেন্টাইনে আছে মাত্র ৮জন বিদেশ ফেরত। যা রীতিমতো উদ্বেগের কারন হয়ে দাঁড়িয়েছে উপজেলাবাসীর।
উপজেলার ৫০ শয্যা হাসপাতালের ভারপ্রাপ্ত স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডাঃ এনায়েত উল্লাহ্ নাজিম জানান,গত ১২ই মার্চ থেকে ১৯মার্চ পর্যন্ত বিদেশ থেকে আসা মোট ৮জনের তথ্য নিশ্চিত হয়ে তারা তাদেরকে হোম কোয়ারেন্টাইনে রেখেছেন। এদের বেশীর ভাগই পার্শ্ববর্তী দেশ ভারত থেকে আসা । সেইসাথে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে আইসোলেশনের জন্য ৫টি বেড আলাদা করে রাখা হয়েছে বলেও তিনি নিশ্চিত করেন।
উপজেলার বিভিন্ন স্থানে বিদেশে অবস্থানকারী প্রবাসীরা সম্প্রতি করোনা ভাইরাসের কারনে দেশে ফিরছেন। সরকারের নির্দেশ অনুযায়ী প্রবাসী ব্যক্তিকে কমপক্ষে ১৪ দিন হোম কোয়ারেন্টাইনে থাকার বাধ্যবাধকতা রয়েছে। বিদেশ ফেরতদের ব্যাপারে কোন সঠিক তথ্য হাসপাতাল কর্র্তৃপক্ষের কাছে না থাকায় ঠিক কতজন বিদেশ ফেরত ব্যক্তি উপজেলায় আছেন তার সঠিক তথ্য জানাতে পারেননি হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ। তবে গত ১৫ই মার্চ ভারত থেকে উপজেলার আলাদীপুর ইউনিয়নের একই পরিবারের ৪জন, ১৯ মার্চ শিবনগর ইউনিয়নের ৩জন ও ১২ই মার্চ মালয়েশিয়া থেকে খয়েবাড়ী ইউনিয়নের ১জন দেশে ফিরে সর্দি জ্বরে আক্রান্ত হলে তাদেরকে হোম কোয়ারেন্টাইনে রাখা হয়েছে। উল্লেখিত ৮ব্যক্তি ছাড়াও বিদেশ ফেরত অনেকেই প্রকাশ্যে ঘুরে বেড়ালেও তাদের কোন তথ্য কর্তৃপক্ষের কাছে না থাকায় এলাকার জন্য মারাত্মক হুমকি হয়ে দাঁড়িয়েছে বলে জানান একাধিক সূত্র। বিদেশ ফেরতদের ১৪ দিন হোম কোয়ারেন্টাইনে না থাকার কারনে সরকারের নির্দেশ অনুযায়ী জেল জরিমানা অথবা উভয় দন্ডে দন্ডিতের আইন থাকলেও কোন কার্যকরী পদক্ষেপ দেখছেনা উপজেলাবাসী।
হাসপাতাল সূত্রে জানা যায়,গত শনিবার (২১ মার্চ) সকাল থেকে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের বহিঃবিভাগে স্পেশাল আরটিআই কর্ণারে ৭০জন সর্দি,কাশি ও জ্বর জনিত রোগীর চিকিৎসা দেয়া হলেও হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ এসব রোগীদের হাসপাতালে না আসার পরামর্শ দিচ্ছেন। কারণ হিসেবে তারা বলছেন যদি কোন একজন ব্যক্তি করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয় তবে তা সবার মাঝে ছড়িয়ে পড়ার সম্ভাবনা রয়েছে।
এ ব্যাপারে উপজেলার ভারপ্রাপ্ত স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডাঃ এনায়েত উল্লাহ্ নাজিম কোন ব্যক্তির জ্বর,সর্দি, কাশি হলে জনসমাগম এড়িয়ে বাসায় অবস্থানের আহ্বান জানিয়ে বলেন কেউ আক্রান্ত হলে হট নাম্বার অথবা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের চিকিৎসকদের সাথে যোগাযোগ করার অনুরোধ করেছেন।
এদিকে উপজেলা নির্বাহী অফিসার আব্দুস সালাম চৌধুরীর সাথে কথা বললে তিনি জানান উপজেলায় বিদেশ থেকে আসা এপর্যন্ত ৮৫জনের তথ্য পাওয়া গেছে,এদের মধ্যে ২৯ জনকে হোম কোয়ারেন্টাইনে থাকার পরামর্শ দেওয়া হয়েছে।



 

Show all comments
  • অনুকূল রায় ২২ মার্চ, ২০২০, ৫:৩৫ এএম says : 0
    নিজ এলাকায় কতজন মানুষ বিদেশফেরত,সে হিসাবটা রেখে নিজ উদ্যগে কতৃপক্ষকে জানানো সকলের উচিত।
    Total Reply(0) Reply

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: করোনাভাইরাস

২৮ অক্টোবর, ২০২০
২৭ অক্টোবর, ২০২০

আরও
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ