Inqilab Logo

ঢাকা, শনিবার, ১৫ আগস্ট ২০২০, ৩১ শ্রাবণ ১৪২৭, ২৪ যিলহজ ১৪৪১ হিজরী
শিরোনাম

ই-রেশনিং পদ্ধতি চালুর দাবী মুঠোফোন গ্রাহক এসোসিয়েশনের

স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ২১ মার্চ, ২০২০, ৫:৪৮ পিএম

সারা বিশ্বে ১৮৫ দেশে ৩ লাখের উপর করোনায় আক্রান্ত ১১ হাজারের অধিক মৃত্যুবরণ করেছেন। বাংলাদেশে এ পর্যন্ত করোনায় আক্রান্তের সংখ্যা ২০ ও মৃত ২ জন। হোম কোয়ারাইন্টেনে রাখা হয়েছে হাজার হাজার নাগরিক। ইতোমধ্যে সরকার মাদারীপুর, শিবচর ও লক্ষীপুর জেলাকে লকডাউন ঘোষণা করেছেন। এ সকল এলাকায় বাহিরের কেউ প্রবেশ বা এলাকায় বসবাসকারীরা বাহিরে যেতে পারবে না। বর্তমান এই পরিস্থিতিতে নাগরিকরা করোনায় আক্রান্ত হয়ে মৃত্যুবরণের চাইতে খাদ্য ও অর্থাভাবে মৃত্যুর আশংকায় পড়ছে নাগরিকরা। এই অবস্থায় দেশের মানুষের জন্য ই-রেশনিং পদ্ধতি চালুর দাবি জানিয়েছে মুঠোফোন গ্রাহক এসোসিয়েশন।

শনিবার গণমাধ্যমে পাঠানো সংগঠনটির সভাপতি মহিউদ্দিন আহমেদ স্বাক্ষরিত এক বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, উন্নত দেশে হোম কোয়ারাইন্টেন ও লকডাউনে থাকা নাগরিকদের বিনামূল্যে খাদ্য সরবরাহ করছে ঐ দেশের সরকার। এছাড়াও যারা অফিস আদালত বা ব্যবসায়িক কর্মকা- থেকে বিরত থাকছে তাদেরকে অর্থনৈতিকভাবেও সহযোগিতা করছে সরকার। আমাদের মত উন্নয়নশীল দেশে এ ধরনের সহায়তা আশা করা অনেকটাই স্বপ্নের মত । তবে সরকার চাইলে দ্রুত অনলাইনে ই-রেশনিং পদ্ধতি চালু করতে পারে। ই-কমার্সে যেভাবে অ্যাপস এর মাধ্যমে অর্ডার ও পেমেন্ট দেয়া যায় ঠিক একই ভাবে ই-রেশনিং নামে একটি অ্যাপস খোলে তার মাধ্যমে নাগরিকদের ঘরে বসে তার চাহিদা অনুযায়ী সাশ্রয়ী মূল্যে বা সরকার ভর্তূকি প্রদান করে পণ্যের মূল্য সীমিত আকারে এনে সরকারি লোকজন বা স্বেচ্ছাসেবী প্রতিষ্ঠানের সহায়তা নিয়ে পন্য সরবরাহ কার্যক্রম পরিচালনা করতে পারে।

তিনি বলেন, প্রধানমন্ত্রীর বক্তব্য অনুযায়ী দেশে এক বছরের খাদ্য মজুদ আছে এমন ঘোষণার পরেও বাজারে পণ্যের দাম ২০ থেকে ৪০ শতাংশ বৃদ্ধি পেয়েছে। বাজার নিয়ন্ত্রণের জন্য টিসিবির মাধ্যমে পণ্য বিক্রয় কার্যক্রম এই মুহুর্তে সম্ভবপর নয়। ফলে ই-রেশনিং হতে পারে সর্বোচ্চ উত্তম ও নিরাপদ পদ্ধতি। এছাড়া আমাদের অন্য দুটি দাবীর মধ্যে, প্রথমত; হোমকোয়ারেন্টাইনে থাকার ফলে ভয়েস কল, ডাটার ব্যবহার বৃদ্ধি পাবে। তাই মোবাইল ব্যাংকি ও রিচার্জ এজেন্টের দোকান ঔষধের দোকানের মত খোলা রাখা। দ্বিতীয়ত; রিচার্জ লোন লোডের ক্ষেত্রে ভ্যাট প্রত্যাহার করা হোক। সেই সাথে ২০ হাজার টাকা পর্যন্ত মোবাইল ব্যাংকের লেনদেন চার্জ ফ্রি করে দেয়ার জন্য সরকারের প্রতি আহ্বান জানান সংগঠনটির সভাপতি। 



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: মুঠোফোন


আরও
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ