Inqilab Logo

ঢাকা, রোববার, ২৯ মার্চ ২০২০, ১৫ চৈত্র ১৪২৬, ০৩ শাবান ১৪৪১ হিজরী

ইতালিতে একদিনে ৭৯৩ জনের মৃত্যু : মোট প্রাণহানি প্রায় ১৩ হাজার

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ২৩ মার্চ, ২০২০, ১২:০১ এএম

নভেল করোনাভাইরাস (কোভিড-১৯) মহামারিতে মৃত্যুর মিছিল বেড়েই চলেছে। শেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত এই ভাইরাসে আক্রান্তের সংখ্যা ২ লাখ ৯৮ হাজার ৩২৯, মৃত্যু হয়েছে ১২ হাজার ৮৩৬ জনের। চিকিৎসা নিয়ে সুস্থ হয়েছেন ৯৪ হাজার ৬২৯ জন। ইতালিকে মৃত্যুপুরীতে পরিণত করে গতকাল আরো ৭৯৩ জনের মৃত্যু ঘটেছে। এ নিয়ে দেশটিতে মৃতের সংখ্যা দাঁড়াল ৩ হাজার ৮২৫ জনে। আক্রান্ত ৫৩ হাজার ৫৭৮ জন। বৃদ্ধির হার প্রায় ১৪ শতাংশ। কোয়ারেন্টাইন আইন লঙ্ঘনের দায়ে দেশটির ৬০ হাজার মানুষের বিরুদ্ধে আইনি ব্যবস্থা নিয়েছে দেশটির সরকার। যুক্তরাষ্ট্রের সাড়ে ৭ কোটি মানুষকে গৃহে অবস্থানের নির্দেশনা দেয়া হয়েছে। এয়ার ট্র্যাফিক কন্ট্রোল টাওয়ারের প্রশিক্ষণার্থী করোনাভাইরাসের পরীক্ষায় পজেটিভ পাওয়ার পর নিউ ইয়র্কের আকাশসীমা আংশিকভাবে বন্ধ হয়ে গেছে। ফেডারেল এভিয়েশন অ্যাডমিনিস্ট্রেশন (এফএএ) তার কর্মীদের সামঞ্জস্য করে আকাশসীমা পুনরায় চালু করতে নিউ ইয়র্ক বিমানবন্দরগুলির জন্য গ্রাউন্ড স্টপ জারি করেছে।
মহামারির কারণে যুক্তরাজ্যের যেসব শ্রমিক কাজে যেতে পারছে না তাদের বেতনের ৮০ শতাংশ অর্থ দেশটির সরকার থেকে দেয়া হবে। জনগণের চাকরির সুরক্ষার লক্ষ্যে এই পদক্ষেপটি নিয়েছে দেশটির সরকার। ব্রিটেনে আরো ৫৩ জনের প্রাণহানির পর মৃতের সংখ্যা ২৩৩-এ দাঁড়িয়েছে।
যুক্তরাজ্যের স্থানীয় সময় শনিবার এ ঘোষণা দিয়ে অর্থমন্ত্রী রিশি সুনাক জানান, করোনার কারণে কাজে যোগ দিতে না পারা যেসব শ্রমিক প্রতি মাসে ২ হাজার ৫০০ ডলার বা তার নিচে পারিশ্রমিক পায় তাদের বেতনের ৮০ শতাংশ দেওয়া হবে। এছাড়া এই অবস্থায় শ্রমিক ছাঁটাই বন্ধ করতে হবে বলেও জানান অর্থমন্ত্রী। তিনি আরও বলেন, চাকরি হারানোয় মানুষ অনেক দুশ্চিন্তায় আছে। অনেকে ভাড়া দিতে পারছেন না। এমনকি খাবার ও বিল দেয়ার জন্য হিমশিম খাচ্ছে। যারা এখন বাড়িতে বসে আছেন আমি তাদের বলছি, আপনাদের দুশ্চিন্তার দিন শেষ। আপনারা এই সমস্যার সম্মুখীন আর হবেন না।
এছাড়া পারিশ্রমিক দেয়ার এই কার্যক্রম চলতি মাস থেকে শুর হয়ে পরবর্তী তিন মাস পর্যন্ত চলবে। তারপরও যদি দরকার পরে স্কিমটি আরও দীর্ঘায়িত করা হবে বলেও জানান তিনি।
যুক্তরাজ্যের ট্রেজারি ডিপার্টমেন্টের মুখপাত্র জানান, নতুন এই স্কিমটি সরকারি ডিপার্টমেন্ট এইচএমআরসি'র আওতায় পরিচালিত হবে। বিভিন্ন সংস্থা থেকে আগেই সতর্ক করেছে যে, যুক্তরাজ্যে করোনার মহামারি আকারে দেখা দিতে পারে ও চাকরির বাজারকে অনিশ্চয়তার মাঝে ফেলে দিবে। সুনাকের এই ঘোষণাকে একটি ল্যান্ডমার্ক স্কিম বলে আখ্যা দিয়েছে যুক্তরাজ্যের শ্রমিক নিয়োগকারীদের সংগঠন সিবিআই। সিবিআই’র পরিচালক ক্যারোলিন ফায়িরবারিন বলেন, এই স্কিমের ফলে যুক্তরাজ্যের অর্থনীতি ঘুরে দাঁড়াবার একটি সম্ভাবনা থাকে।
এদিকে, যুক্তরাষ্ট্রের সাড়ে ৭ কোটি মানুষকে গৃহে অবস্থানের নির্দেশনা দেয়া হয়েছে। এটি দেশটির মোট জনসংখ্যার একপঞ্চমাংশেরও বেশি। সেখানে আক্রান্তের সংখ্যা ২১ হাজার ২৪০ এবং মারা গেছে ২শ’ ৭৫ জন। আক্রান্তের অর্ধেক অর্থাৎ ১০ হাজার ৩৫৬ জন নিউইয়র্কের বাসিন্দা। খবরে বলা হয়েছে, ১৮ থেকে ৪৯ বয়সের মানুষের আক্রান্তের হারই অর্ধেকের বেশি (৫৪%)। ক্যালিফোর্নিয়া প্রদেশ পুরোপুরি তালাবন্দি করে ফেলার কথা ঘোষণা করেছেন সেখানকার গভর্নর। আগামী দু’তিন সপ্তাহে চিকিৎসা সরঞ্জামে টান পড়ার আশঙ্কা তৈরি হয়েছে নিউ ইয়র্কে। সেখানে জরুরি-পরিষেবার সঙ্গে জড়িত কর্মীদের ছাড়া বাকি সব পেশার মানুষকে বাড়িতে থাকতে বলছেন গভর্নর। জাতিসংগের ‘ওয়ার্ল্ড ফুড প্রোগ্রাম’-এর প্রধান ডেভিড বেসলিও আক্রান্ত হয়েছেন কোভিড-১৯-এ।
এদিকে, করোনা-বিধ্বস্ত ইটালিতে আরও পাঁচ জন চিকিৎসকের মৃত্যু হয়েছে। কোভিড-১৯-এ আক্রান্ত হয়েছেন অন্তত ২৬২৯ স্বাস্থ্যকর্মী। ব্রিটেনে মহামারি রুখতে শুক্রবার রাত থেকে শেষ পর্যন্ত পাব, রেস্তরাঁ, জিম বন্ধ করে দিচ্ছে বরিসের প্রশাসন। আগামী তিন মাস এসব জায়গায় নাগরিক যাতায়াতে কিছুটা রাশ টেনেই রাখতে চাইছেন জনসন। ফ্রান্সে ১১২ জনের মৃত্যু হওয়ায় মোট সংখ্যা ৫৬২। দেশটিতে আক্রান্ত ১৪ হাজার ৪৫৯ জন এবং এদের মধ্যে ইনটেনসিভ কেয়ার ইউনিটে আছেন ৫২৫ জন যাদের অর্ধেকের বয়সই ৬০ এর নিচে। চীন, ইটালি এবং ইরানের পরে স্পেনেও মৃতের সংখ্যা এক হাজার ছাড়িয়ে গিয়েছে। লকডাউন আর্জেন্টিনাতেও। পাকিস্তানে এদিন করোনায় তৃতীয় মৃত্যু হয়েছে। সেখানে এখন ৪৫৩ জন কোভিড-১৯ পজিটিভ। সূত্র : দ্য ইন্ডিপেন্ডেন্ট, সিএনএন,।

 



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ