Inqilab Logo

ঢাকা শুক্রবার, ৩০ অক্টোবর ২০২০, ১৪ কার্তিক ১৪২৭, ১২ রবিউল আউয়াল ১৪৪২ হিজরী

দৈনন্দিন জীবনে ইসলাম

| প্রকাশের সময় : ২৭ মার্চ, ২০২০, ১২:০৮ এএম

প্রশ্ন : আমার ১৬ বছর বয়সী মেয়ে কোচিংয়ে যাওয়ার সময় বোরকা পরতে চায় না। স্কুলেও শুধু ড্রেস পরে যেতে চায়। বেশি জোর করতে পারি না। যদি অভিমান করে বড় কিছু করে বসে। এখন কি করব?
রুখসানা, বরিশাল।
উত্তর : ১৬ বছরে মেয়েরা এমন অবস্থায় পৌঁছে, যাদের ভালো করে শরীর ঢেকে রাখতে হয়। শালীন ও ঢিলেঢালা ফুল পোশাক পরার পর যদি বড় ওড়না বা চাদর দিয়ে বুক ও মাথা ঢেকে রাখে তা হলেও চলনসই পর্দা হয়ে যায়। বোরকা পরার জন্য চাপ না দিয়ে ধীরে ধীরে মন তৈরি করতে থাকুন। কোনো তালিম বা দ্বীনি পরিবেশে মহিলাদের সাথে চলাফেরা করতে শেখান। আপনি প্রজ্ঞার সাথে নরমে-গরমে আপনার কথা বোঝাতে থাকুন। দোয়া এবং চেষ্টা জারি রাখুন। হয়তো ঠিক হয়ে যাবে। যদিও এসব কাজ শিশু বয়সেই মাথায় দিতে হয়। আপনি সম্ভবত বেশ দেরি করে ফেলেছেন। চেষ্টা করতে থাকুন। এরপরও যদি না হয় তাহলে মা হিসেবে আপনি দায়ী হবেন না। ১৬ বছরে মেয়ে নিজেই নিজের গোনাহের ভাগী হয়ে যায়।


প্রশ্ন : আমি যে মসজিদে নামাজ পড়ি, সেখানে সবাই জোরে আমিন বলে। অন্য এলাকার মসজিদে জোরে আমিন বলে না। বিদেশে গির্জায় দেখেছি, পাদ্রির সাথে সবাই জোরে আমিন বলে। খুব কনফিউশনে আছি। কি করব, বুঝিয়ে বলুন।
রেহান মাহমুদ বংশাল, ঢাকা।
উত্তর : আপনি যে মসজিদে নামাজ পড়েন, সেখানে সবাই যদি জোরে আমিন বলে তা হলে ইচ্ছা করলে আপনিও জোরে বলতে পারেন, আর নাও বলতে পারেন। যেসব মসজিদে জোরে আমিন বলে না, সেখানে আপনিও জোরে বলবেন না। সবার মতোই আস্তে বলবেন। কেননা, নামাজে আমিন বলা সুন্নত, আস্তে বলা আরেকটি সুন্নত। যারা জোরে বলেন, তারা একটি সুন্নতের ওপর আমল করেন। আর যারা আস্তে বলেন, তারা দুটি সুন্নতের ওপর আমল করেন। এখানে বড় কোনো সমস্যা বা বিরোধ নেই। কেননা, এক সাহাবিকে নবী করিম সা. নিজে নামাজ শিখিয়েছেন। ২০ বার নামাজ শেখাতে গিয়ে তিনি ১৭ বার আস্তে আমিন পড়েছেন, আর তাকে কথাটি কী বলতে হয়, তা বোঝানোর জন্য তিনবার জোরে আমিন বলেছেন। তা থেকে ইসলামি শরিয়াহ বিশেষজ্ঞগণ আস্তে বলাকে বেশি উত্তম মনে করে থাকেন। জোরে বলাও কোনো কোনো ফকিহের মতে সঠিক। তবে গির্জার পাদ্রি ও পূজারিদের ‘আমেন’ বলার সাথে নামাজের ‘আমিন’ কে তুলনা করার কোনো সুযোগ নেই। এটি অন্য ধর্মের একটি নিয়ম। আশা করি আপনার কনফিউশন দূর হবে।



 

Show all comments
  • আতাউর রহমান ২৪ এপ্রিল, ২০২০, ৯:৫২ এএম says : 0
    আল্লাহ কে ভয় ্করুন
    Total Reply(0) Reply
  • md mahmud ৪ জুন, ২০২০, ৬:৩১ পিএম says : 0
    Sundor somadhan dilen. Thank you
    Total Reply(0) Reply
  • মো: তৌহিদ জামান ১৮ আগস্ট, ২০২০, ৮:৫৬ এএম says : 0
    আমার মা বৃদ্দ। গত দুই বছর রোজা রাখতে পারেনি। তাই কাফারা দিতে চাই। কত টাকা দিতে হবে এবং কাদের দিতে হবে তা জানালে খুবই উপকৃত হবো। মো: তৌহিদ জামান সিকদার ঢাকা
    Total Reply(0) Reply
  • Kamal hossain ৩১ আগস্ট, ২০২০, ৬:৪৫ পিএম says : 0
    Sobchaite uttom holo jore amin bola.
    Total Reply(0) Reply

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: ইসলাম


আরও
আরও পড়ুন