Inqilab Logo

ঢাকা রোববার, ২৭ সেপ্টেম্বর ২০২০, ১২ আশ্বিন ১৪২৭, ০৯ সফর ১৪৪২ হিজরী

খাবার নিয়ে দুস্থদের পাশে মাশরাফি-রুবেল

স্পোর্টস রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ২৭ মার্চ, ২০২০, ১২:০৬ এএম

করোনাভাইরাস সংক্রমণ বাড়ার সুযোগে কিছু অসাধু ব্যবসায়ী পরিষ্কার-পরিচ্ছন্ন থাকার ওষুধ, মাস্ক, এমনকি নিত্য প্রয়োজনীয় জিনিসে দাম বাড়িয়ে দিয়েছে। এই লোভী ব্যবসায়ীদের ধিক্কার জানিয়ে কদিন আগে নিজের ফেসবুক অ্যাকাউন্টে জ্বালাময়ী স্ট্যাটাস দিয়েছেন রুবেল হোসেন।

বেশ প্রশংসা কুড়িয়েছে রুবেলের স্ট্যাটাস। ভারতীয় সংবাদমাধ্যমেও তার স্ট্যাটাস উদ্ধৃতি করে খবর প্রকাশ হয়েছে। করোনাভাইরাস সংক্রমণ প্রতিরোধে শুধু ফেসবুকে লিখেই নিজের দায়িত্ব সারেননি বাংলাদেশ দলের পেসার; জাতীয় এই দুর্যোগে আরও একটি মহতী উদ্যোগের সঙ্গে নিজেকে যুক্ত করেছেন তিনি।

গতপরশু সন্ধ্যায় পিকআপভর্তি চাল-ডাল নিয়ে রুবেল মিরপুরের কিছু এলাকায় বের হন দুস্থ মানুষদের সহায়তা করতে। সেই অভিজ্ঞতা বলতে গিয়ে বার বার আবেগ তাড়িত হয়ে পড়ছিলেন এই গতি তারকা, ‘২১৫ প্যাকেট বিতরণ করেছি কাল (পরশু)। প্রতিটি প্যাকেটে ছিল ৫ কেজি চাল, ১ কেজি ডাল, আলু, পেঁয়াজ, সাবান, লবণ, তেল ইত্যাদি। সামগ্রিক বিচারে এটা কিছুই নয়। তবুও কিছু মানুষের উপকার তো হলো। আমাদের দেশের মানুষের চাহিদাগুলো অতি সামান্য।’ মহৎ এই কাজ করতে গিয়ে বিচিত্র এক অভিজ্ঞতাও হয়েছে রুবেলের, ‘এদিন একটা জিনিস দেখে খুব অবাক হয়েছি। একজন ব্যক্তি এসেছেন প্যাকেট নিতে, পরে শুনি তিনি একটি ভবনের মালিক!’

একেক মানুষ একেক মানসিকতার হতে পারে। তবে রুবেলের আহŸান কঠিন এই পরিস্থিতিতে বিত্তবানদের উদার মনে এগিয়ে আসতে হবে। যদি সবাই এগিয়ে আসেন যাঁর যাঁর জায়গা থেকে, দ্রæতই সম্ভব হবে করোনা মোকাবিলা করা, ‘আমাদের দেশে যারা বিত্তবান আছে তারা যদি একটু এগিয়ে আসেন, অনেক ভালো হয়। যা বুঝছি সামনের সময়টা খুব কঠিন। অনেক মানুষ রিকশা চালায়, অনেক ভিক্ষুক আছে, যারা এই সময়ে ভীষণ অসহায়। এদের সহায়তা করতে সরকারের পাশাপাশি বিত্তবানদেরও এগিয়ে আসতে হবে।’

এদিকে নড়াইল-২ আসনের সংসদ সদস্য এবং বাংলাদেশ জাতীয় দলের তারকা পেসার মাশরাফি বিন মুর্তজা ক্রিকেট খেলার অর্থ দিয়ে নড়াইলের ১২শ’ হতদরিদ্র পরিবারের খাদ্য সহায়তা দেওয়ার প্রস্তুতি চলছে। গতকাল থেকে খাদ্য সহায়তা ক্রয় এবং প্যাকেট তৈরি শুরু হয়েছে। খাদ্য সহায়তার মধ্যে রয়েছে জনপ্রতি পাঁচ কেজি চাল, এক লিটার তেল, এক কেজি ডাল, এক কেজি আলু, এক কেজি লবন এবং একটি করে সাবান। করোনা প্রাদুর্ভাবে সংকটকালীন এসব পরিবারের বাড়িতে গিয়ে এ খাদ্য সহায়তা পৌঁছে দেওয়া হবে। এছাড়া মাশরাফি তার নিজস্ব তহবিল থেকে প্রাথমিক পর্যায়ে চিকিৎসক, নার্স এবং সংবাদ মাধ্যমকর্মীদের জন্য দুইশ’ পিপিই-এর ব্যবস্থা করেছেন এবং পরবর্তীতে আরও তিনশ’ পিপিই-এর ব্যবস্থা করবেন।

 



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: করোনাভাইরাস


আরও
আরও পড়ুন