Inqilab Logo

ঢাকা, রোববার, ৩১ মে ২০২০, ১৭ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৭, ০৭ শাওয়াল ১৪৪১ হিজরী

৩২ মাস পর কোমা থেকে ফেরা!

স্পোর্টস ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ২৮ মার্চ, ২০২০, ১২:০১ এএম

দীর্ঘ ২ বছর ৯ মাস পর কোমা থেকে জেগে উঠেছেন আয়াক্স আমস্টারডামের সাবেক ফুটবলার আবদেলহেক নুরি। ২০১৭ সালের জুলাইতে একটি প্রীতি ম্যাচ খেলার সময় মাঠেই হার্ট অ্যাটাক হয়েছিল নেদারল্যান্ডসের এই তরুণের। তাতে স্থায়ীভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে তার মস্তিষ্ক।
অচেতন অবস্থা থেকে নুরির জ্ঞান ফেরার সুসংবাদটা দিয়েছেন তার বড়ভাই আবদেলরাহিম নুরি। গতপরশু নেদারল্যান্ডসের একটি টিভি অনুষ্ঠানে তিনি জানিয়েছেন, হাসপাতালে নয়, বর্তমানে বাড়িতেই চিকিৎসা চলছে নুরির। আর কোমা থেকে জেগে ওঠার পর ধীরে ধীরে তার শারীরিক অবস্থার উন্নতি হচ্ছে।

নুরি ছিলেন ভীষণ প্রতিভাবান। এই ডাচ মিডফিল্ডার আয়াক্সের বিখ্যাত একাডেমিতে বেড়ে ওঠার পর ২০১৫ সালে নাম লেখান ক্লাবটির ম‚ল দলে। সেখানে খেলেছেন ফ্রেংকি ডি ইয়ং, ডনি ভ্যান ডি বিকের মতো তরুণ তারকাদের সঙ্গে। দুর্ঘটনাটা না ঘটলে এতদিনে হয়তো নেদারল্যান্ডস জাতীয় দলেও সুযোগ মিলত তার।

২০১৭ সালের সেই প্রীতি ম্যাচে জার্মান ক্লাব ওয়ের্ডার ব্রেমেনের বিপক্ষে আয়াক্সের হয়ে খেলতে নেমেছিলেন নুরি। কিন্তু বিধি বাম। খেলতে খেলতেই ‘কার্ডিয়াক অ্যারিদমিয়া অ্যাটাক’ হয় তার। ভীষণ আঘাত পান মস্তিষ্কে। হাসপাতালে নেওয়ার পর চিকিৎসকরা জানান, কোমায় চলে গেছেন নুরি। আছেন জীবন-মৃত্যুর সন্ধিক্ষণে।

অবশেষে দীর্ঘদিন পর আশার আলো দেখতে পাওয়া গেছে নুরিকে নিয়ে। তার ভাই বড়ভাই আবদেলরাহিম বলেছেন, ইতিবাচক পরিবর্তন দেখতে পাচ্ছেন তারা, ‘সে কোথায় আছে তা বুঝতে পারছে, সে তার পরিবারের সঙ্গে চেনা পরিবেশে ফিরেছে। সে আর কোমাতে নেই। সে জেগে উঠেছে। সে ঘুমায়, হাঁচি দেয়, খায়, ঢেঁকুর তোলে। তবে এমন না যে, সে বিছানা থেকে উঠতে পারছে। সে বিছানাতেই থাকছে এবং আমাদের ওপর এখনও সে পুরোপুরি নির্ভরশীল। যে দিনগুলোতে সে ভালো অনুভব করে, ভ্রু কুঁচকে বা হালকা হেসে নিজের মনের অবস্থা বোঝানোর চেষ্টা করে। কিন্তু এটা ঠিক যে, এভাবে সে বেশিক্ষণ থাকতে পারে না। আমরা তার সঙ্গে এমনভাবে কথা বলি যেন সে একজন সুস্থ মানুষ। বাড়িতে আমাদের কথোপকথনের মধ্যে ওকে আমরা রাখি। ওকে নিয়ে একসঙ্গে বসে টিভিতে ফুটবল ম্যাচও দেখি আমরা।’



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

আরও পড়ুন