Inqilab Logo

ঢাকা রোববার, ১৭ জানুয়ারি ২০২১, ০৩ মাঘ ১৪২৭, ০২ জামাদিউস সানী ১৪৪২ হিজরী

রাজধানীতে হোটেল-বেকারি খোলা রাখার নির্দেশ

বিশেষ সংবাদদাতা | প্রকাশের সময় : ২৯ মার্চ, ২০২০, ১২:০২ এএম

রাজধানীতে হোটেল ও বেকারিগুলো খুলতে দিতে হবে। সেইসঙ্গে সেখানে কর্মরতদের অবাধে স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলাচল করতে দেয়াসহ মাঠ পর্যায়ের পুলিশের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের ১০টি নির্দেশনা দিয়েছেন ডিএমপির কমিশনার মোহা. শফিকুল ইসলাম। গতকাল শনিবার সকালে ডিএমপির ডিসি, এডিসি, এসি এবং থানার ওসিদের কাছে এক বার্তায় এসব নির্দেশনা প্রদান করা হয়।
ডিএমপির কমিশনার মোহা. শফিকুল ইসলাম বলেন, স্বাস্থ্যবিধি মেনে ঢাকায় একজন নাগরিক যেকোনো মাধ্যম ব্যবহার করে চলাফেরা করতে পারবেন। আমরা প্রথমদিন থেকেই পুলিশকে জনগণের সঙ্গে সদয় আচরণ করার নির্দেশনা দিয়েছি। তবে অনেকেই ভারতের ছবি-ভিডিওগুলো দেখে নেগেøন্সি সিচুয়েশন তৈরি করার চেষ্টা করেছে। আমরা পুলিশকে বলেছি, এই অবস্থায় কারও বাইরে বের হওয়ার কথা না। তবে কেউ যেহেতু বাইরে বের হয়েছে নিশ্চয়ই তার কোনো প্রয়োজন রয়েছে। এই প্রয়োজনের বিষয়ে জিজ্ঞেস করতে পারবে পুলিশ। তবে কারও বিরুদ্ধে খারাপ আচরণের প্রমাণ পেলে আমরা তাকে সাসপেন্ড করব।
ডিএমপি কমিশনারের পাঠানো বার্তায় উল্লেখিত ১০ টি নির্দেশনা হলো- অনেক মানুষের রান্না-বান্নার ব্যবস্থা নেই, তাই তাদের জন্য খাবার হোটেল, বেকারি খোলা থাকবে। এসব হোটেল এবং বেকারিতে কর্মরতদের সড়কে চলাচল করতে দিতে হবে। নিত্য প্রয়োজনীয় ও অপরিহার্য পণ্যের দোকান খোলা থাকবে এবং এসব দোকানে কর্মরতরা কাজে যোগ দিতে পারবেন। খাবার হোটেল থেকে গ্রাহকদের খাবার পার্সেল নিয়ে যাওয়ার পরামর্শ দিতে হবে। তবে কিছু ক্ষেত্রে কেউ হোটেলে 'সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখে' বসে খেতে পারবেন। স্বাস্থ্যবিধি মেনে ঢাকায় যে কোন নাগরিক একা যেকোনো মাধ্যম ব্যবহার করে চলাফেরা করতে পারবেন। চিকিৎসক, নার্স, টেকনিশিয়ান, সিটি করপোরেশনের কর্মকর্তা, নিরাপত্তাকর্মী, মেডিকেল স্টাফদের মতো জরুরি সেবাদানকারীদের সহযোগিতা করতে হবে। যেকোন ক্ষেত্রে নাগরিকদের সঙ্গে পেশাদার আচরণ নিশ্চিত করতে হবে। দায়িত্ব পালনের সময় পুলিশ সদস্যদেরও সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখতে হবে। এছাড়া, পুলিশ সদস্যরা এমন কোন কাজ করবেন না, যাতে পুলিশের ভাবমূর্তি ও ভালো কাজ ধূলিস্যাৎ হয়ে যায়।
নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক ডিএমপির একজন এসি বলেন, ইতোমধ্যে এই বার্তাগুলো অধস্তন কর্মকর্তাদের জানিয়ে দেয়া হয়েছে। তারা সে অনুযায়ী ব্যবস্থা নিচ্ছেন।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: হোটেল-বেকারি
আরও পড়ুন