Inqilab Logo

ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ০৪ জুন ২০২০, ২১ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৭, ১১ শাওয়াল ১৪৪১ হিজরী
শিরোনাম

বিএনপি নেতা সানাউল্লাহ মিয়ার দাফন সম্পন্ন

স্টাফ রিপোর্টার, নরসিংদী থেকে : | প্রকাশের সময় : ২৯ মার্চ, ২০২০, ১২:০২ এএম

করোনাভীতি উপেক্ষা করে মানুষের ঢল
ঢাকা বারের সাবেক সভাপতি, বিএনপির নির্বাহী কমিটির আইন বিষয়ক সম্পাদক এবং খালেদা জিয়ার আইনজীবী অ্যাডভোকেট সানাউল্লাহ মিয়া আর বেঁচে নেই। তিনি গত শুক্রবার রাতে ঢাকার একটি হাসপাতালে ইন্তেকাল করেছেন। ইন্না লিল্লাহি ওয়া ইন্না ইলাইহি রাজিউন। তার বয়স হয়েছিল ৬০ বছর। মৃত্যুকালে তিনি স্ত্রী, ১ পুত্র ২ কন্যাসহ অসংখ্য গুণগ্রাহী রেখে গেছেন।

তার মৃত্যুর খবর ছড়িয়ে পড়লে নরসিংদীর সর্বস্তরের জনগণের মধ্যে শোকের ছায়া নেমে আসে। বিএনপির শত শত নেতা-কর্মী ও সমর্থক করোনাভাইরাসের ভীতি উপেক্ষা করে তার গ্রামের বাড়ি শিবপুর দক্ষিণ কারারচর গ্রামে ভিড় জমায়। এর আগে মরহুমের লাশ তার গ্রামের বাড়িতে নিয়ে গেলে সেখানে এক হৃদয়বিদারক দৃশ্যের অবতারণা ঘটে।

গতকাল বাদ জোহর দক্ষিণ কারারচর খাসমহল ঈদগাহে তার জানাজা নামাজ অনুষ্ঠিত হয়। জানাজায় উপস্থিত ছিলেন- বিএনপির যুগ্ম মহাসচিব খায়রুল কবির খোকন, জেলা বিএনপিসাধারণ সম্পাদক তোফাজ্জল হোসেন মাস্টার, বিএনপি নেতা ফেরদৌস আহহ্মেদ খোকন, শিমুল বিশ্বাস, লে. কর্ণেল (অব.) জয়নুল আবেদিন, সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যান মনজুর এলাহী, ছাত্রদলের সাবেক সাধারণ সম্পাদক আকরামুল হাসান মিন্টু, মান্নান ভূঁইয়া পরিষদ নেতা আরিফুল ইসলাম মৃধা। আওয়ামী লীগ নেতাদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন শিবপুরের এমপি জহিরুল হক মোহন, সাবেক এমপি সিরাজুল ইসলাম মোল্লা, শিবপুর উপজেলা চেয়ারম্যান হারুনুর রশিদ খান।

অ্যাডভোকেট সানাউল্লাহ মিয়া ১৯৬০ সালে শিবপুর উপজেলার দক্ষিণ কারারচর গ্রামে এক সম্ভ্রান্ত মুসলিম পরিবারে জন্মগ্রহণ করেন। তার পিতার নাম খালেক মিয়া। স্থানীয়ভাবে তিনি প্রাথমিক, মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষা শেষে ঢাকায় আইনের ওপর লেখাপড়া করেন। আইন পেশায় প্রাথমিকভাবে তিনি ঢাকা বারে যোগ দেন। পরে তিনি ঢাকা বারের সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক নির্বাচিত হন। ওয়ান ইলেভেনের সময় তিনি বেগম খালেদা জিয়াসহ বিএনপি নেতা-কর্মীদের মামলা পরিচালনা করেন।

বিএনপির সাধারণ নেতা-কর্মীদের মামলা পরিচালনা করে তিনি ব্যাপক জনপ্রিয়তা অর্জন করেন। রাজনৈতিকভাবে তিনি ছিলেন বিএনপির জাতীয় নির্বাহী কমিটির আইন বিষয়ক সম্পাদক। এছাড়া তিনি জাতীয়তাবাদী আইনজীবী ফোরামের যুগ্ম আহবায়কের দায়িত্ব পালন করেন। হেফাজতে ইসলামের মামলার সময় তিনি আল্লামা বাবুনগরী এবং মাওলানা মামুনুল হকের মামলা পরিচালনা করে দেশের আলেম সমাজের কাছেও ব্যাপক পরিচিতি লাভ করেন।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: দাফন


আরও
আরও পড়ুন