Inqilab Logo

ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ০৪ জুন ২০২০, ২১ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৭, ১১ শাওয়াল ১৪৪১ হিজরী

সার্জিক্যাল মাস্কে করোনাভাইরাস বাঁচে ৭ দিন

পত্রিকা-বিতরণকৃত জিনিসে ধরার ঝুঁকি কম

মেইল অনলাইন | প্রকাশের সময় : ২৯ মার্চ, ২০২০, ১২:০২ এএম

পৃথিবীতে ছড়িয়ে পড়া কোভিড-১৯ মহামারী সৃষ্টিকারী সার্স-কোভি-২ ভাইরাসটি সার্জিকাল ফেস মাস্কগুলিতে ৭ দিন পর্যন্ত বেঁচে থাকতে পারে বলে দাবি করেছেন বিজ্ঞানীরা। নভেল করোনাভাইরাসটি বিভিন্ন পৃষ্ঠে এবং নির্দিষ্ট পরিস্থিতিতে কতক্ষণ সংক্রমক থেকে যায় তা বোঝার জন্য দ্রæত স্টাডি করা হচ্ছে। হংকংয়ের এক গবেষণায় দেখা গেছে যে, ‘সংক্রামক ভাইরাসের একটি উল্লেখযোগ্য স্তর একটি সার্জিক্যাল মাস্কের বাইরের স্তরে সাত দিন পরেও শনাক্ত হতে পারে। তবে মার্কিন গবেষকরা বলছেন যে, কার্ডবোর্ডে ২৪ ঘন্টা পরে এসএআরএস-কোভি-২ এর অস্তিত্ব মেলেনি, এটি নির্দেশ করে যে, ডাক পরিষেবা তুলনামূলকভাবে ঝুঁকিমুক্ত।

সংবাদপত্রসহ ছাপানো কাগজ ৩ ঘণ্টার মধ্যে ভাইরাসটি মেরে ফেলেছে এবং বিশেষজ্ঞরা গতকাল ঘোষণা করেছেন যে, যেসব পণ্য পরিবহণ করা হয়েছে সেগুলি থেকে সংক্রমণের সম্ভাবনা কম। বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা গতকাল জানিয়েছে যে, লোকদের পার্সেল বা পোস্টের মাধ্যমে পাঠানো মালামালসহ বাণিজ্যিক সামগ্রী সংক্রমিত হওয়ার সম্ভাবনা কম।

ডবিøউএইচও-এর একটি বিবৃতিতে লেখা আছে: সংক্রমিত ব্যক্তির বাণিজ্যিক পণ্যগুলিকে দূষিত করার সম্ভাবনা কম এবং যে প্যাকেজ স্থানান্তরিত, ভ্রমণ এবং বিভিন্ন অবস্থার ও তাপমাত্রার সংস্পর্শে এসেছে সেগুলি থেকে কোভিড-১৯-এর কারণ হিসাবে ভাইরাস সংক্রমিত হওয়ার ঝুঁকিও কম থাকে’।
করোনাভাইরাস মহামারীতে বিশ্বব্যাপী মৃতের সংখ্যা প্রায় সাড়ে ২৮ হাজার। আর বিশ্বব্যাপী আক্রান্তের সংখ্যা প্রায় সাড়ে ৬ লাখ।

অনলাইনে প্রকাশিত গবেষণার একটি অংশ একটি প্রাক-মুদ্রণ সাইট মেড মেডেক্সেভ-এ প্রকাশিত হয়েছে যেখানে অন্যান্য শিক্ষাবিদদের স্ক্রুটনির জন্য উপস্থাপন করা হয়েছে। তবে আলেক্স চিন এবং হংকং বিশ্ববিদ্যালয়ের সহকর্মীদের প্রাথমিক গবেষণায় দেখা গেছে যে, ভাইরাসটি ৪ ডিগ্রি সেলসিয়াসে বর্ধিত সময়ের জন্য অত্যন্ত স্থিতিশীল ছিল। ঘরের তাপমাত্রায় এটি যদি চিকিৎসা না করা হয় তবে এটি সাত দিন উচ্চ স্তরে বেঁচে থাকতে পারে, তবে ১৪ দিনের পরে এটি নির্মূল হবে।

বিজ্ঞানীরা আরও বলেন, ‘৩০ ডিগ্রি সেলসিয়াস তাপমাত্রায় ৩০ মিনিট বা ৭০০ ডিগ্রি সেন্টিগ্রেডে পাঁচ মিনিট জ্বাল দেয়ার পর কোনও সংক্রামক ভাইরাস সনাক্ত করা যায়নি’।

‘৩ ঘন্টা ইনকিউবেশনের পর মুদ্রণ এবং টিস্যু পেপারগুলিতে কোনও সংক্রামক ভাইরাস পাওয়া যায় না। এর আগে গতকাল ভাইরোলজিস্ট জর্জ লোমনোসফ বিবিসি রেডিও স্কটল্যান্ডকে বলেন যে, মুদ্রণ ও উৎপাদন প্রক্রিয়ার কারণে খবরের কাগজগুলি ‘বেশ জীবাণুমুক্ত’ হওয়ায় ঝুঁকি কম থাকে।

সর্বশেষ গবেষণায় লেখকরা বলেন, ‘চিকিৎসা করা কাপড় এবং স্টেইনলেস স্টিল থেকে কোনও সংক্রামক ভাইরাস যথাক্রমে ২ এবং ৭ দিনের মধ্যে পাওয়া যায়নি। ‘মারাত্মকভাবে সংক্রামক ভাইরাসের একটি উল্লেখযোগ্য মাত্রা এখনও ৭ম দিনে একটি সার্জিক্যাল মাস্কের বাইরের স্তরে সনাক্ত করা যায়, যা বোঝায় যে সার্স-কোভি-২ এই পৃষ্ঠের উপর অত্যন্ত স্থিতিশীল’।

বিজ্ঞানীরা আবিষ্কার করেন যে, কোনও প্রকারের জীবাণুনাশক নিয়ে চিকিৎসার সময় সমস্ত পৃষ্ঠতল পাঁচ মিনিটের মধ্যে ভাইরাস থেকে মুক্ত ছিল। আরেকটি স্বনামধন্য নিউ জার্নাল জার্নাল অফ মেডিসিনে প্রকাশিত কোভিড-১৯-সৃষ্টিকারী ভাইরাসকে সার্সের সাথে তুলনা করেছে, প্রায় ২০ বছর আগে যাতে ৭৭৪ জন মারা গিয়েছিল।

এই গবেষকরা লিখেছেন: ‘সার্স-কোভি-২ তামা এবং কার্ডবোর্ডের চেয়ে প্লাস্টিকের এবং স্টেইনলেস স্টিলের উপর আরও স্থিতিশীল ছিল এবং এই পৃষ্ঠগুলিতে প্রয়োগের ৭২ ঘণ্টা পরেও টেকসই ভাইরাস শনাক্ত হয়েছিল।
‘তামাতে ৪ ঘণ্টা পর এবং কার্ডবোর্ডে ২৪ ঘন্টা পরে সার্স-কোভি-২ কার্যক্ষম পাওয়া যায়নি’।

 

 



 

Show all comments
  • Ruhul Amin Molla ২৯ মার্চ, ২০২০, ১:১৮ এএম says : 0
    মহা নবী হযরত মুহাম্মদ (স) বলেছেন, তোমরা যদি কোন রকম মহামারি কঠিন ব্যাধিতে আক্রান্ত হও......তাহলে, তোমরা যে স্থানে আছো সে স্থান হতে বের হবে না এবং আক্রান্ত এলাকায় কাউকে প্রবেশও করতে দেবে না। আলহামদুলিল্লাহ..... প্রায় ১৪০০ বছর আগের হাদিসটি সব সরকার ব্যবহার করছে।
    Total Reply(0) Reply
  • Shikder Saiful Nil ২৯ মার্চ, ২০২০, ১:১৯ এএম says : 0
    ভাতিজা,তোমরাইতো শুরুতে মাস্কের কথা বলছিলা! আবার নতুন মলম বিক্রি করা ধরছো
    Total Reply(0) Reply
  • Md Sabbir Hossan ২৯ মার্চ, ২০২০, ১:১৯ এএম says : 0
    চিন থেকে তো আমরা শিল্পের কাচামাল সহ ইলেকট্রনিক যন্ত্রপাতি আমদানি করি,। যন্ত্রপাতির সংগে ভাইরাস কি বাংলাদেশে আসতে পারে? এর কোন ঝুকি আছে?
    Total Reply(0) Reply
  • MD Mahmudullah Hasan ২৯ মার্চ, ২০২০, ১:১৯ এএম says : 0
    করোনা ভাইরাসের মোকাবিলার জন্য, বিজ্ঞানীরা অাজ মুসলমানদের অজুকে বেঁছে নিয়েছে। করোনা ভাইরাস থেকে বাঁচতে চীনারা আজ ইসলামের অজুকে গ্রহন করেছে। অথচ এই অজুকে নাস্তিকরা দাবী করে শুচিবায়ু হিসাবে।এখন নাস্তিকরা এবং বিধর্মীরাষ্ট্র কি করে কথিত শুচিবায়ুকে পালন করবে? এভাবেই ইসলাম বারবার ফিরে আসবে মানব জীবনে।
    Total Reply(0) Reply
  • শামীম রেজা ২৯ মার্চ, ২০২০, ১:২০ এএম says : 0
    বিভিন্ন দেশে মাস্ক পরে ভাইরাস থেকে বাঁচার জন্য মানুষ চেষ্টা করতেছে। অার বাংলাদেশের জন্য সুখবর হচ্ছে,ভাইরাস মানুষের স্পর্শে অাসার অাগেই মানবতাবাদী ছাত্রলীগ ভাইরাসকে রুখে দেবে! জয় বাংলা!!!
    Total Reply(0) Reply
  • Mohammed Ankar Chowdury ২৯ মার্চ, ২০২০, ১:২২ এএম says : 0
    আরে কেউ মরবেনা ইনশাআল্লাহ ১৫ _২০ দিন বাঁচা যাবে আপনারা মানুষকে ভয় দেখাইয়েন না সবাইকে বলেন ঘরে থাকার জন্য ,,,,এই ভাইরাসে মরার চেয়ে অনাহারে মরা ভালো
    Total Reply(0) Reply
  • ভবঘুরে ২৯ মার্চ, ২০২০, ১:২২ এএম says : 0
    এটা নিশ্চয়ই মর্মান্তিক, সামর্থ্য যোগ্য প্রতিটা নাগরিকদের উচিত গরীব এবং হতদরিদ্রদের খাবার দিয়ে সহযোগিতা করা। যাতে বেচে যাবে একটা অনাহারী প্রাণ।
    Total Reply(0) Reply

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: মাস্ক

২৭ এপ্রিল, ২০২০

আরও
আরও পড়ুন