Inqilab Logo

ঢাকা, মঙ্গলবার, ২৬ মে ২০২০, ১২ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৭, ০২ শাওয়াল ১৪৪১ হিজরী

খুলনার বাণীশান্তা যৌনপল্লী লকডাউন

খুলনা ব্যুরো | প্রকাশের সময় : ২৯ মার্চ, ২০২০, ৬:২৭ পিএম

করোনা ভাইরাস সংক্রমণ রোধে খুলনার দাকোপে মোংলা বন্দর কেন্দ্রীক গড়ে ওঠা পশুর নদীর পশ্চিম তীরে অবস্থিত দেশের অন্যতম বৃহৎ বাণীশান্তা যৌনপল্লীটি অবশেষে অনির্দিষ্টকালের জন্য লকডাউন (বন্ধ) ঘোষণা করা হয়েছে।
নদীর পাড় ও গ্রাম সংলগ্ন এলাকায় অবস্থিত যৌনপল্লীতে গিয়ে দাকোপ উপজেলা প্রশাসন ও থানা পুলিশ যৌথভাবে সম্প্রতি এ লকডাউনের ঘোষণা দেন। মোংলা বন্দরের পশুর নদীর পশ্চিম পাড়স্থ খুলনা জেলার দাকোপ উপজেলার বাণীশান্তা যৌনপল্লীটির অবস্থান হলেও মুলত মোংলা বন্দর কেন্দ্রিক লোকজনই এ পল্লীতে সবচেয়ে বেশী যাতায়াত করতো।
এ পল্লীতে ইতিমধ্যে লোকজনের যাতায়াত বন্ধ করে দেয়া হয়েছে। এ ছাড়া পুলিশ সদস্যরা নদীর পাড়ে যাতে কোন ট্রলার না ভেড়ে ও উদ্ভুদ পরিস্থিতি মোকাবেলায় পল্লী এলাকায় সার্বক্ষনিক বিশেষ টহল ও সতর্ক দৃষ্টি রাখছে বলে জানিয়েছেন দাকোপের পুলিশ-প্রশাসন।
দাকোপের ইউএনও আঃ ওয়াদুদ জানান, পশুর নদীর পাড়ের পশ্চিম পাড়ে অবস্থিত বাণীশান্তা যৌনপল্লীতে জায়গা কম, ঘিঞ্জি পরিবেশ এবং বিভিন্ন জেলা থেকে প্রতিদিন অসংখ্য মানুষ যাতায়াত করে থাকে। এ ছাড়া মোংলা বন্দরে আগত বিভিন্ন বাণিজ্যিক জাহাজের বিদেশী নাবিক (ক্রু) ও কার্গো কোষ্টার জাহাজের নাবিকদেরও এ পল্লীতে নিয়মিত যাতায়াত ছিল। এতে করোনা ভাইরাস সংক্রমণের ঝুঁকি থাকায় উপজেলা প্রশাসন ও থানা পুলিশ যৌথভাবে যৌন পল্লীটি অনির্দিষ্টকালের জন্য লক ডাউন করে দেওয়া হয়েছে। এ পল্লীতে ৮৭টি ঘরে প্রায় শতাধিক যৌনকর্মী ছাড়াও বাড়িওয়ালি, মাসি, দোকানদার ও প্রায় ৬৫ জন ছেলেমেয়েসহ অন্তত ৫ শতাধিক লোকের প্রতিনিয়ত আনাগোনা ছিল।
তিনি আরও জানান, মানবিক কারণে এ সময়ে যৌনকর্মীদের খাদ্য সহায়তা হিসেবে প্রাথমিক পর্যায়ে প্রতি যৌনকর্মীকে ১০ কেজি করে চাল ও নগদ ৫শ’ টাকা করে সহায়তা করা হয়েছে। অবস্থার প্রেক্ষাপটে প্রত্যেক পরিবারকে আরো চাল ও নগদ অর্থ সহায়তা দেবার দেয়ারও সিদ্ধান্ত রয়েছে।
দাকোপ থানার ওসি মোঃ শফিকুল ইসলাম চৌধূরী জানান, করোনাভাইরাস সংক্রমণের ঝুঁকি এড়াতে পল্লী এলাকায় নদী পথে ট্রলার যোগে কেউ যাতে প্রবেশ করতে না পারে সে জন্য পুলিশ পাহারা জোরদার করা হয়েছে। এ ছাড়া উদ্ভুদ পরিস্থিতি মোকাবেলায় পল্লী এলাকায় পুলিশ সার্বক্ষনিক বিশেষ টহল ও সতর্ক দৃষ্টি রাখছে।
বাণীশান্তার যৌন কর্মীদের সংগঠন নারী জাগরনী সংঘের সভানেত্রী রাজিয়ার জানান, চাল ও নগদ অর্থ সহায়তা পেয়েছিন। তবে এখন পর্যন্ত যে সরকারী সহায়তা প্রশাসন থেকে দেয়া হয়েছে তা খুবই অপ্রতুল।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: করোনাভাইরাস


আরও
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ