Inqilab Logo

ঢাকা, শনিবার, ০৬ জুন ২০২০, ২৩ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৭, ১৩ শাওয়াল ১৪৪১ হিজরী

করোনাভাইরাস সচেতনতায় কাজ করছে বিডিএফআই

স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ৩১ মার্চ, ২০২০, ৮:২১ পিএম

করোনাভাইরাস প্রতিরোধে তৃনমূল পর্যায়ে সচেতনতা তৈরীর লক্ষ্যে গত কয়েক দিন ধরে ভোলা জেলার বিভিন্ন স্থানে প্রচারণা চালিয়ে যাচ্ছে স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন ‘ভোলা ডেভেপমেন্ট ফাউন্ডেশন ইন্টারন্যাশাল (বিডিএফআই)’।

মঙ্গলবার (৩১ মার্চ) সকালে সংগঠনের পক্ষ থেকে জানানো হয়, ভোলা জেলার ৭টি উপজেলার প্রায় ৫০টি ইউনিয়নের প্রত্যন্ত গ্রামে করোনাভাইরাস প্রতিরোধ সচেতনতায় মাইকিং ও লিফলেট বিতরণ করা হচ্ছে। প্রচারণায় করোনা নিয়ে আতঙ্কিত না হয়ে সচেতন থাকার জন্য সবাইকে আহবান হচ্ছে।এ ধরণের প্রচারণা চলমান থাকবে।

ভোলা ডেভেপমেন্ট ফাউন্ডেশন ইন্টারন্যাশাল- ‘বিডিএফআই’ এর সাধারণ সম্পাদক মো. আব্দুল মজিদ জানান, সচেতনতামূলক বিভিন্ন কার্যক্রম পরিচালনার জন্য ভোলায় ২২২ জনের ২১টি স্বেচ্ছাসেব টিম গঠন করা হয়েছে। প্রতি টিমে ১১ জন সদস্য স্প্রে মেশিন, মাস্ক, গ্লাভস, পিপিই পরে সুরক্ষিত হয়ে কাজ করবে। আগামী ২/১ দিনের মধ্যে এ টিম জেলার প্রতিটি হাট-বাজার, হাসপাতালসহ নোংরা স্থান খুজে বের করে জিবানুনাশক ওষুধ স্প্রে করবে।

সংগঠনের সভাপতি আবুল কাশেম লায়ন এম জে এফ জানান, ভোলার সবার মাঝে সচেতনতা তৈরীর লক্ষ্যে আমরা সাধ্যমতো চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছি। ইতোমধ্যে চট্টগ্রামে সিএনজি চালক, রিক্সা চালক ও দু:স্থদের মাঝে খাদ্য সামগ্রী বিতরণ করা হযেছে। ভোলাতেও সচেতনতা কার্যক্রমের পাশাপাশি দু:স্থদের মঝে খাদ্য সামগ্রী বিতরণ করা হবে। দেশের প্রয়োজনে যতদিন কাজ করতে হবে ততদিন আমরা কাজ করে যাব।

সংগঠনের সহ-সভাপতি এএইচএম নোমান জানান, সামাজিক সংগঠনগুলো ছোট-ছোট পরিসরে দৃষ্টান্ত স্থাপন করতে পারে তবে ব্যাপকভাবে আমাদেরকে ফ্রন্ট ফাইটিং করোনাকে পরাজিত করা, আর ব্যাক ফাইটিং উৎপাদন বৃদ্ধিতে হাত দিতে হবে। এ জন্য পোষাক শ্রমিকদের মত ৫ হাজার কোটি টাকা ক্ষুদ্র কৃষিখাতে উৎপাদন প্রনোদনা দেয়ার জন্য সরকারে কাছে দাবী করছি।

মানবসেবার মহৎ কাজটি বাস্তবায়নে এগিয়ে আসার জন্য সংগঠনের উপদেষ্টা ও বিবিএস ক্যাবলস এর ব্যবস্থাপনা পরিচালক এবং ভোলার কৃতি সন্তান ইঞ্জিনিয়ার আবু নোমান হাওলাদারের প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন বিডিএফআই’র সাধারণ সম্পাদক



 

Show all comments
  • *হতদরিদ্র দীনমজুর কহে* ৩১ মার্চ, ২০২০, ১১:০২ পিএম says : 0
    শ্রমিকদের মজুরি প্রদানের জন্য ৫ হাজার কোটি টাকা বরাদ্ধ দিয়েছেন ।এন জি ও রা ও আপোদকালীন সময় ব্যাবসায়ীদের খুদ্রঋন দিতে পারেন।
    Total Reply(0) Reply

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: বিডিএফআই
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ