Inqilab Logo

ঢাকা শনিবার, ০৫ ডিসেম্বর ২০২০, ২০ অগ্রহায়ণ ১৪২৭, ১৯ রবিউস সানি ১৪৪২ হিজরী

সংক্রমণ কমে এলেও লকডাউনের মেয়াদ বাড়াল ইতালি

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ১ এপ্রিল, ২০২০, ১২:০০ এএম

করোনাভাইরাসের মহামারি ঠেকাতে লকডাউনের মেয়াদ ইস্টার সানডে পর্যন্ত বাড়িয়েছে ইতালি। আগামী ১২ এপ্রিল খ্রিস্টান ধর্মাবলম্বীদের এই উৎসব পালনের কথা রয়েছে। লকডাউনের মেয়াদ বাড়ানো হলেও দেশটিতে সংক্রমণের হার কমে আসতে শুরু করেছে।

ইতালির লকডাউন অন্তত আগামী ১২ এপ্রিল ইস্টার পর্যন্ত জারি রাখা হবে বলে সোমবার ঘোষণা দিয়েছেন স্বাস্থ্যমন্ত্রী রবার্তো স্পেরানজা। যদিও গত ১৫ দিনের মধ্যে ইতালিতে সোমবার নতুন করোনাভাইরাস আক্রান্তের সংখ্যা ছিল সবচেয়ে কম। বেশ কয়েক সপ্তাহের লকডাউনের সুফল এবার পেতে শুরু করেছে ইউরোপের এই দেশটি। সেখানে নতুন করে সংক্রমিত হয়েছেন ৪ হাজার ৫০ জন, গত ১৮ মার্চের পর একদিনের হিসাবে এই সংখ্যা সর্বনিম্ন। এর মাধ্যমে দেশটিতে মোট আক্রান্তের সংখ্যা ৯৭ হাজার ৬৮৯ জন থেকে বেড়ে ১ লাখ ১ হাজার ৭৩৯ জন হয়েছে। কিন্তু দু’দিন পরে মৃত্যুর সংখ্যা আবার বৃদ্ধি পেয়েছে। সোমবার দেশটিতে আরও ৮১২ জনের মৃত্যু হয়েছে বলে জানিয়েছে নাগরিক সুরক্ষা সংস্থা সিভিল প্রটেকশন এজেন্সি। এর ফলে মোট মৃতের সংখ্যা ১১ হাজার ৫৯১ জনে দাঁড়িয়েছে। আগামী এক সপ্তাহের মধ্যে ভাইরাসটির সংক্রমণ চ‚ড়ান্ত পর্যায়ে পৌঁছাবে বলে আশঙ্কা করছেন দেশটির কর্মকর্তারা। এরপরেই আক্রান্ত ও নিহতের সংখ্যা কমতে শুরু করবে বলে আশা করছেন তারা।

বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা (হু) জানিয়েছে, ইতালি কমপক্ষে এপ্রিলের মাঝামাঝি পর্যন্ত লকডাউন জারি রাখার ঘোষণা দেয়ায় দেশটিতে মহামারীটি স্থিতিশীল হওয়া শুরু করবে বলে আশা করা হচ্ছে। এ বিষয়ে প্রধানমন্ত্রী গিউসেপ্পে কন্টি বলেছেন যে, ইতালিতে লকডাউন ব্যবস্থা ধীরে ধীরে শিথিল করা হবে যেন, যতটুকু অর্জিত হয়েছে তা বিফলে না যায়।

রোববার দেশটিতে নতুন করে আক্রান্ত হয়েছেন প্রায় ৫ হাজার ২১৭ জন। শনিবার আক্রান্ত হয়েছিলেন প্রায় ৫ হাজার ৯৭৪ জন। দেশটিতে সুস্থ হওয়ার সংখ্যাও বেড়েছে। সোমবার আক্রান্তদের মধ্যে ১৪ হাজার ৬২০ জন পুরোপুরি সুস্থ হয়ে উঠেছেন, আগের দিন এই সংখ্যা ছিল ১৩ হাজার ৩০ জন। সোমবার ইতালির চিকিৎসকদের সংগঠন আরও ১১ জন চিকিৎসকের মৃত্যুর কথা জানিয়েছে। এনিয়ে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে দেশটির ৬১ জন চিকিৎসকের মৃত্যু হলো।

সিভিল প্রোটেকশন সার্ভিসের প্রধান অ্যাঞ্জেলো বোরেলি জানান, শেষ ২৪ ঘণ্টায় ১ হাজার ৫৯০ জন মানুষ সুস্থ্য হয়ে উঠেছেন। এই মহামারি শুরু হওয়ার পর এই প্রথম এত মানুষ রোগমুক্ত হলেন। স্বাস্থ্যমন্ত্রণালয়ের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে, সোমবার পর্যন্ত উত্তর লোম্বার্ডি প্রদেশে করোনায় আক্রান্তের সংখ্যা ২৫ হাজার ৩৯২ থেকে কমে ২৫ হাজার হয়েছে। শেষ প্রায় এক মাস ধরে এই সংখ্যাটা উত্তরোত্তর বাড়ছিল। প্রদেশের প্রধান স্বাস্থ্য কর্মকর্তা জিউলিও গ্যালেরা বলেছেন, ‘পরিসংখ্যান অবশ্যই আগের থেকে অনেক ভাল। কিন্তু আমাদের আরও কাজ বাকি। সংক্রমণের হার নেমেছে ৪ শতাংশে। উত্তর লোম্বার্ডি ও মিলান অঞ্চলে আক্রান্তদের সংখ্যা দ্রুত কমছে।’ তিনি জানান, যে হারে আক্রান্তরা সুস্থ হয়ে উঠছেন তা উদ্বেগের মধ্যেও স্বস্তি দিচ্ছে। সূত্র : ডেইলি মেইল ও রয়টার্স।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: করোনাভাইরাস


আরও
আরও পড়ুন