Inqilab Logo

ঢাকা, শনিবার, ০৬ জুন ২০২০, ২৩ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৭, ১৩ শাওয়াল ১৪৪১ হিজরী

এবার বেতনের অর্ধেক দিলেন প্রথম শ্রেণির ৯১ ক্রিকেটার

স্পোর্টস রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ৩ এপ্রিল, ২০২০, ১২:০৩ এএম

প্রাণঘাতি করোনাভাইরাসের প্রভাবে বিশ্ব এখন বিপর্যস্ত। এই ভাইরাস থেকে বাঁচতে বর্তমানে সবাই প্রানপোণ চেষ্টা করে যাচ্ছেন। যে কারণে সব দেশেরই মানুষ এখন সচেতন থেকে ঘরে অবস্থান করছেন। তবে বিপাকে পড়েছেন খেটে খাওয়া দিন-মজুর মানুষরা। ‘কাজ নেই তো আহার নেই’- এমন অবস্থা তাদের। এই অসহায়দেরই সহযোগিতা করার চেষ্টা করে যাচ্ছেন দেশের সরকার প্রধানসহ সমাজের বিত্তবান ও সবশ্রেণির স্বচ্ছল ব্যক্তিরা। অসহায়-গরীবদের সহযোগিতার জন্য তারা গড়ে তুলছেন ‘করোনা তহবিল’। এই কাজে এগিয়ে এসেছেন খেলোয়াড়রাও। ক’দিন আগে বাংলাদেশ ক্রিকেট দলের কেন্দ্রীয় চুক্তিবদ্ধ এবং জাতীয় দলে সা¤প্রতিক সময়ে খেলা ক্রিকেটাররা সিদ্ধান্ত নেন যে তারা অসহায়দের অনুদান দেবেন।

এ ধারাবাহিকতায় চুক্তিতে থাকা জাতীয় ক্রিকেট দলের ১৭ জন এবং সা¤প্রতিক সময়ে খেলা জাতীয় দলের আরো ১০ ক্রিকেটার মিলে দান করেছিলেন তাদের এক মাসের বেতনের অর্ধেক। যার পরিমাণ ছিল ৩০ লাখ ১৫ হাজার টাকা। এবার সেই পথে হাঁটলেন দেশের প্রথম শ্রেণির চুক্তিবদ্ধ ক্রিকেটাররাও। বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের (বিসিবি) সঙ্গে চুক্তিবদ্ধ ৯১ জন প্রথম শ্রেণির ক্রিকেটার করোনা তহবিলের জন্য দান করলেন নিজেদের এক মাসের বেতনের অর্ধেক টাকা। কিন্তু এর পরিমাণ কতো তা জানা যায়নি। তবে প্রাথমিক হিসেবে ধারণা করা হচ্ছে, প্রায় ১০ লাখ টাকার কাছাকাছি হবে অঙ্কটা। প্রথম শ্রেণির ক্রিকেটারদের আর্থিক নিরাপত্তার জন্য তিনটি গ্রেডে মাসিক বেতন দিয়ে থাকে বিসিবি। গ্রেডগুলোতে বেতনের পরিমাণ যথাক্রমে ২৮ হাজার ৭৫০ টাকা, ২৩ হাজার টাকা ও ১৭ হাজার ২৫০ টাকা করে। প্রথম শ্রেণির ক্রিকেটাররা তাদের বেতনের টাকা দান করছেন কোয়াবের (ক্রিকেটার্স ওয়েলফেয়ার অ্যাসোসিয়েশন অব বাংলাদেশ) করোনা তহবিলে। বুধবার যা গঠিত হয়েছে। পরের দিনই কোয়াবের করোনা তহবিলে মিললো দারুণ সহায়তা। গতকাল এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তির মাধ্যমে বিষয়টি নিশ্চিত করেছে কোয়াব। কোয়াবের সাধারণ সম্পাদক দেবব্রত পাল স্বাক্ষরিত বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, ‘বাংলাদেশের চুক্তিবদ্ধ ৯১ প্রথম শ্রেণির ক্রিকেটার তাদের মাসিক (এক মাস) বেতনের অর্ধেক কোয়াবের সহায়তা তহবিলে প্রদানের সিদ্ধান্ত নিয়েছেন। দেশের এই ক্রান্তিকালে প্রথম শ্রেণীর ক্রিকেটাররা যে মানবিকতা, দায়িত্ববোধ ও সচেতনতার পরিচয় দিয়েছেন তা অত্যন্ত প্রশংসনীয়।’

বিজ্ঞপ্তিতে আরো লেখা হয়, ‘কোয়াব মনে করে, সকলের ঐক্যবদ্ধ প্রচেষ্টার মাধ্যমেই বর্তমান দুর্যোগ মোকাবেলা সম্ভব। আমাদের সকলকে অনুধাবন করতে হবে, আমাদের একতা ও সম্মিলিত প্রচেষ্টার মাধ্যমেই ক্রিকেটারদের স্বার্থরক্ষা ও দেশের ক্রিকেটের উন্নয়ন সম্ভব। আমরা বিশ্বাস করি, আগামী দিনগুলোতে ক্রিকেটারদের এই সম্মিলিত প্রচেষ্টায় দেশের ক্রিকেট উন্নয়ন ও গুণগত মান উত্তরোত্তর বৃদ্ধি পাবে।’

 



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: ক্রিকেটার

১৩ ফেব্রুয়ারি, ২০২০
২৩ সেপ্টেম্বর, ২০১৮

আরও
আরও পড়ুন