Inqilab Logo

ঢাকা, শনিবার, ০৬ জুন ২০২০, ২৩ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৭, ১৩ শাওয়াল ১৪৪১ হিজরী
শিরোনাম

লুকোচুরির দরকার নেই, উপসর্গ দেখা দিলেই শরণাপন্ন হোন: প্রধানমন্ত্রী

স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ৩ এপ্রিল, ২০২০, ১:৩০ পিএম

করোনাভাইরাস পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে বিভিন্ন বিষয়ে ৩১ দফা নি‌র্দেশনা দি‌য়ে‌ছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হা‌সিনা। গতকাল বৃহস্পতিবার রাতে প্রধানমন্ত্রীর প্রেস সচিব ইহসানুল করিম স্বাক্ষরিত এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এসব নির্দেশনার কথা জানানো হয়।

নি‌র্দেশনাগু‌লো হ‌লো:

১) করোনাভাইরাস সম্পর্কে চিকিৎসা ব্যবস্থা নিতে হবে। এ ভাইরাস সম্পর্কিত সচেতনতা কার্যক্রম বাস্তবায়ন করতে হবে।

২) লুকোচুরির দরকার নেই, করোনাভাইরাসের উপসর্গ দেখা দিলে ডাক্তারের শরণাপন্ন হোন।

৩) পিপিই সাধারণভাবে সবার ব‌্যবহারের দরকার নেই। চিকিৎসা সংশ্লিষ্ট সবার জন্য পিপিই নিশ্চিত করতে হবে। এই রোগ চিকিৎসায় ব্যবহৃত পিপিই, মাস্কসহ সব চিকিৎসা সরঞ্জাম জীবাণুমুক্ত রাখা এবং বর্জ্য অপসারণের ক্ষেত্রে বিশেষ সাবধানতা অবলম্বন করতে হবে।

৪) কোভিড-১৯ রোগের চিকিৎসায় নিয়োজিত সব চিকিৎসক, নার্স, ল্যাব টেকনিশিয়ান, পরিচ্ছন্নতাকর্মী, অ‌্যাম্বুলেন্স চালকসহ সংশ্লিষ্ট সবার স্বাস্থ্য সুরক্ষায় বিশেষ অগ্রাধিকার দিতে হবে।

৫) যারা হোম কোয়ারেন্টাইনে বা আইসোলেশনে আছেন, তাদের প্রতি মানবিক আচরণ করতে হবে।

৬) নিয়মিত হাত ধোয়া, মাস্ক ব্যবহার ও সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখাসহ এক্ষেত্রে স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলবেন।

৭) নদীবেষ্টিত জেলায় নৌ-অ‌্যাম্বুলেন্সের ব্যবস্থা করতে হবে।

৮) অন্যান্য রোগে আক্রান্তদের যথাযথ স্বাস্থ্য পরীক্ষা এবং চিকিৎসাসেবা অব্যাহত রাখতে হবে।

৯) পরিচ্ছন্নতা নিশ্চিত করা। সারাদেশের সব সিটি কর্পোরেশন, পৌরসভা ও উপজেলা পরিষদকে পরিষ্কার-পরিচ্ছন্ন কার্যক্রম আরও জোরদার করতে হবে।

১০) আইন-শৃঙ্খলা বিষয়ে দৃষ্টি দিতে হবে। জাতীয় এ দুর্যোগে স্বাস্থ্যসেবা বিভাগ, প্রশাসন, আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী, সশস্ত্র বাহিনী বিভাগসহ সব সরকারি কর্মকর্তারা যথাযথ ও সুষ্ঠু সমন্বয়ের মাধ্যমে কাজ করে যাচ্ছেন- এ ধারা অব্যাহত রাখতে হবে।

১১) ত্রাণ কাজে কোনো ধরনের দুর্নীতি সহ্য করা হবে না।

১২) দিনমজুর, শ্রমিক, কৃষক যেন অভুক্ত না থাকে। তাদের সাহায্য করতে হবে। খেটে খাওয়া দরিদ্র জনগোষ্ঠীর জন্য অতিরিক্ত তালিকা তৈরি করতে হবে।

১৩) সোশ্যাল সেফটিনেট কার্যক্রম অব্যাহত থাকবে।

১৪) অর্থনৈতিক কর্মকাণ্ড যেন স্থবির না হয়, সে বিষয়ে যথাযথ নজর দিতে হবে।

১৫) খাদ্য উৎপাদন ব্যবস্থা চালু রাখতে হবে, অধিক ফসল উৎপাদন করতে হবে। খাদ্য নিরাপত্তার জন্য যা যা করা দরকার করতে হবে। কোনো জমি যেন পতিত না থাকে।

১৬) সরবরাহ ব্যবস্থা বজায় রাখতে হবে। যাতে বাজার চালু থাকে।

১৭) সাধারণ কার্যক্রম অব্যাহত থাকবে। দ্রব্যমূল্য নিয়ন্ত্রণে রাখতে হবে।

১৮) জনস্বার্থে বাংলা নববর্ষের সব অনুষ্ঠান বন্ধ রাখতে হবে। যাতে জনসমাগম না হয়। ঘরে বসে ডিজিটাল পদ্ধতিতে নববর্ষ উদযাপন করতে হবে।

১৯) স্থানীয় জনপ্রতিনিধি, রাজনৈতিক নেতা, সমাজের সর্বস্তরের জনগণকে একযোগে কাজ করার আহ্বান জানাচ্ছি। প্রশাসন সবাইকে নিয়ে কাজ করবে।

২০) সরকারের পাশাপাশি সমাজের বিত্তশালী ব্যক্তি ও প্রতিষ্ঠান জেলা প্রশাসক ও উপজেলা নির্বাহী অফিসারের সঙ্গে সমন্বয় করে ত্রাণ ও স্বাস্থ্যসেবা কার্যক্রম পরিচালনা করবেন।

২১) জনপ্রতিনিধি ও উপজেলা প্রশাসন ওয়ার্ডভিত্তিক তালিকা প্রণয়ন করে দুস্থদের মধ্যে খাবার বিতরণ করবেন।

২২) সমাজের সবচেয়ে পিছিয়ে পড়া জনগোষ্ঠী যেমন- কৃষি শ্রমিক, দিনমজুর, রিকশা/ভ্যান চালক, পরিবহন শ্রমিক, ভিক্ষুক, প্রতিবন্ধী, পথশিশু, স্বামী পরিত্যক্তা/বিধবা নারী এবং হিজড়া সম্প্রদায়ের প্রতি বিশেষ নজর রাখাসহ ত্রাণ সহায়তা দেওয়া নিশ্চিত করতে হবে।

২৩) প্রবীণ নাগরিক ও শিশুদের প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিতে হবে।

২৪) দুর্যোগ বিষয়ক স্থায়ী আদেশ (এসওডি) যথাযথভাবে প্রতিপালনের জন্য সব সরকারি কর্মচারী ও স্বেচ্ছাসেবী সংগঠনের প্রতি আহ্বান জানাচ্ছি।

২৫) নিত্যপ্রয়োজনীয় দ্রব্যের উৎপাদন, সরবরাহ ও নিয়মিত বাজারজাতকরণ প্রক্রিয়া মনিটরিংয়ের জন্য প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিতে হবে।

২৬) আতঙ্কিত হয়ে অতিরিক্ত পণ্য ক্রয় করবেন না। খাদ্যশস্যসহ প্রয়োজনীয় সব পণ্যের পর্যাপ্ত মজুদ রয়েছে।

২৭) কৃষকরা নিয়মিত চাষাবাদ চালিয়ে যাবেন। এক্ষেত্রে সরকারি প্রণোদনা অব্যাহত থাকবে।

২৮) সব শিল্প মালিক, ব্যবসায়ী ও ব্যক্তি পর্যায়ে নিজ নিজ শিল্প ও ব্যবসা প্রতিষ্ঠান এবং বাড়ি-ঘর পরিষ্কার রাখবেন।

২৯) শিল্প মালিকরা শ্রমিকদের সঙ্গে আলাপ-আলোচনার মাধ্যমে নিজেদের স্বাস্থ্য সুরক্ষা নিশ্চিত করে উৎপাদন অব্যাহত রাখবেন।

৩০) গণমাধ্যমকর্মীরা জনসচেতনতা সৃষ্টিতে যথাযথ ভূমিকা পালন করে চলেছেন। এক্ষেত্রে বিভিন্ন ধরনের গুজব ও অসত্য তথ্য যাতে বিভ্রান্তি ছড়াতে না পারে, সেদিকে সজাগ দৃষ্টি রাখতে হবে।

৩১) গুজব রটানো বন্ধ করতে হবে । ডিজিটাল প্লাটফর্মে নানা গুজব রটানো হচ্ছে। গুজবে কান দেবেন না এবং গুজবে বিচলিত হবেন না।



 

Show all comments
  • **হতদরিদ্র দিনমজূর কহে** ৩ এপ্রিল, ২০২০, ২:১৩ পিএম says : 0
    মাননীয় প্রধানমন্ত্রী,ভক্তিপুর্ন সালাম নিন।আপনার প্রসংসনীয় ভুমিকার কথা বলে শেষ করা যাবে না।আপনী দয়াকরে কিশোর ক্লাবের নিয়োগ দেওয়া সংগিত শিখ্খকদের যাদের ব্যাংকে একাউন্ট পর্যন্ত খোলা হয়েছে তাদের বেতন/ভাতা প্রদান করার নির্দশ দিন।
    Total Reply(0) Reply
  • ম নাছিরউদ্দীন শাহ ৩ এপ্রিল, ২০২০, ৪:১৬ পিএম says : 0
    মাননীয় প্রধান মন্ত্রী কোটি কোটি সাধারণ মানুষের দোয়াই আল্লাহ্ আপনাকে হেফাজতের মাধ্যমে রাষ্ট্রের মানুষের সেবার তৌফিক দেওয়ার জন্যে আল্লাহর পবিত্র দরবারে প্রার্থনা করছি। আপনার সময় উপযোগী রাষ্ট্রের স্বার্থে গুরুত্বপূর্ণ নির্দেশ বাংলাদেশের মানুষ পালন করবে ইনশাআল্লাহ। এই কয়েক দিনে দেশের গুরুত্বপূর্ণ কিছু ব‍্যাক্তি কিছু জাতীয় পত্রিকায় করোনা ভাইরাস নিয়ে রাজনৈতিক বক্তব্য দিয়ে আসছে। সরকার রোগীর সঠিকভাবে প্রকাশ করছেন না। আজ জাতির সামনে মহামুল‍্যবান উপদেশ সাথে সাথে গুরুত্বপূর্ণ উপদেশ লুকোচুরির দরকার নেই উপসর্গ দেখা দিলে শরাণাপন্ন হউন। এই সংকটম সময়ে আমাদের আশা ভরসাস্থল আপনি। আমাদের গুরুত্বপূর্ণ নিরাপত্তাব্যবস্থা জরুরী ভাইরাসের বিরুদ্ধে যুদ্ধের প্রথম ডাক্তারদের সুরক্ষায় নিরাপত্তায় আন্তর্জাতিক মানের সরজ্জাম এখান থেকেই অদৃশ্য ভাইরাসের বিরুদ্ধে যুদ্ধের শুরু। তাদের নিরাপত্তাই আমাদের নিরাপত্তা। রাষ্ট্রের লক্ষ লক্ষ সামরিক বাহিনী আইন শৃংখলা সমগ্র জাতির জানমালের নিরাপত্তায় রাতদিন কঠোর যুদ্ধের ময়দানে শহর বন্দর গ্রামে অলিগলিতে এই সকল রাষ্ট্রের সূর্য সন্তান বীর সৈনিকদের অদ্ভুত অদৃশ্য করোনা ভাইরাসের আক্রান্তের হাত হতে রক্ষার মান সম্পন‍্য নিরাপত্তা ব‍্যবস্থা জরুরী। ১৮কোটি মানুষের গন বসতি বাংলাদেশ আমাদের নিরাপত্তাই বাড়িতে বিশালসংখ্যক সংখ্যক দরিদ্র জনগোষ্ঠীর সামাজিক নিরা পত্তা অদৃশ্য ভাইরাস হতে দেশের মানুষ রক্ষা করার পবিত্র দায়িত্ব বঙ্গবন্ধুর কন‍্যার হাতে। একমাত্র ঔষধ শৃংখলা। আর শৃংখলার স্বার্থে শাসন জরুরী। পৃথিবীর উন্নত দেশ দিশেহারা লন্ডবন্ড কি করবেন কি করা সঠিকভাবে চিহ্নিত করতে পাচ্ছেন না। আমাদের দেশের মানুষের জীবন আক্রান্ত হওয়া থেকে বাচানোর প্রয়োজন এর জন্যে কঠোরভাবে শৃংখলা শাসন। এই ভয়ংকর যুদ্ধে আপনি প্রধান নির্বাহী। কঠোরভাবে ভাবে আমাদের শাসন না করলে পরিণাম কি হবে জানিনা। জাতীয় সংঘের প্রতিবেদন পরারাষ্ট্রমন্ত্রীর প্রত‍্যাখান বিদেশীদের চলে য়াওয়া আন্তর্জাতিক গন মাধ্যমে বাংলাদেশ নিয়ে রিপোর্ট গভীরে চিন্তা করা জরুরী। মহান আল্লাহর দরবারে বাংলাদেশের মানুষের নিরাপত্তা জন‍্য দোয়া করছি। সাবধানতা ঈমানের অঙ্গ বিশ্ব পরিস্থিতি রাশিয়াই কোয়ান্টাম না মানলে সাত বসরের সাজা। সৌদিয়াই থুথু পেললে ফাসি উত্তর কোয়িয়াই গুলি ফিলিপাইনে সরকারি নির্দেশ অমান‍্য করলে গুলি। এই সব আদেশ নির্দেশ মানুষের জীবন বাচানোর জন‍্যে। বাংলাদেশের এক বিচারক জনস্বার্থে মানুষের জীবন বাচাতে কানধরা নিয়ে চাকরি নাই অপমানিত হতে হয়। বাংলাদেশের মানুষ কে আক্রান্ত হতে মৃত্যুর মিছিল হতে রক্ষা করার বিশ্বব‍্যাপী ঘোষণা মহামারীর ভাইরাস থেকে রক্ষা করার এই মুহুর্তে কঠিন কঠোর শৃংখলা মাধ্যমে শাসনের আওতায় আনতে হবে। এর বিকল্প নেই। মহান আল্লাহর দরবারে আপনার সুসাস্থ দীর্ঘায়ু কামনা করছি আল্লাহ্ আমাদের সহায়। আল্লাহ্ একমাত্র পকৃত হেফাজত কারী
    Total Reply(0) Reply

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: প্রধানমন্ত্রী


আরও
আরও পড়ুন