Inqilab Logo

শুক্রবার, ২১ জানুয়ারী ২০২২, ০৭ মাঘ ১৪২৮, ১৭ জামাদিউস সানি ১৪৪৩ হিজরী

যুক্তরাষ্ট্রে মৃত্যু-সংক্রমণের সঠিক তথ্য নেই

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ৪ এপ্রিল, ২০২০, ১:০৪ পিএম

যুক্তরাষ্ট্রে প্রতিদিন কত মানুষ সংক্রমিত হচ্ছেন এবং কতজন মারা যাচ্ছেন তার সঠিক পরিসংখ্যান এখনো জানা যাচ্ছে না। সরকারি হিসাবে দেয়া তথ্যই কেবল প্রচার করা হচ্ছে। প্রতিদিনই সংক্রমিতের সংখ্যা বাড়ছে।
যুক্তরাষ্ট্র এখন মৃত্যুপুরী। বাংলাদেশি অধ্যুষিত নিউইয়র্কের অবস্থা সবচেয়ে ভয়াবহ। আক্রান্তের সংখ্যা এক লাখ ছাড়িয়েছে। গত ২৪ ঘণ্টায় দেশটিতে মৃত্যু হয়েছে ১ হাজার ৩২১ জনের। যা একদিনে সর্বোচ্চ মৃত্যুর রেকর্ড। এ নিয়ে দেশটিতে মৃতের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ৭ হাজার ৪০২ জনে। শুধু নিউইয়র্কে মারা গেছেন ৩ হাজার ২১৮ জন।
নিউইয়র্কের প্যারা লিগ্যাল সুমাইয়া নূর রিয়া বলেন, আমরা ভয়ে বাসায় আছি। যুক্তরাষ্ট্রে এমন ভাইরাস আসবে আমরা ভাবতে পারিনি।
বাংলাদেশি শিক্ষার্থী সাদিয়া আফরিন বলেন, প্রতিদিন নিউইয়র্কে অনেক মানুষ মরছে। আমার বাবা-মা দেশে আছেন। তারা আমাকে নিয়ে চিন্তা করছেন। আমিও তাদের নিয়ে চিন্তা করছি।
কোভিড নাইনটিন যখন মহামারী আকারে ছড়িয়ে পড়েছে তখন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প বলেছেন, তিনি মুখে মাস্ক পরছেন না, কারণ সবার জন্য মাস্ক পরা জরুরি নয়।
আক্রান্তের সংখ্যায় দেশটি এখন ইতালি, চীন ও স্পেনকেও ছাড়িয়ে গেছে। এ ভাইরাসে সেখানে আক্রান্তের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ২ লাখ ৭৭ হাজার ৪৭৫ জন। তাদের মধ্যে ২ লাখ ৫১ হাজার ৬৯৯ জন চিকিৎসাধীন, যাদের অবস্থা স্থিতিশীল। বাকি ৫ হাজার ৭৮৭ জনের অবস্থা গুরুতর, যাদের অধিকাংশই আইসিউতে রয়েছেন। বাকিরা সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরে গেছেন।
আমেরিকার শীর্ষ সংক্রামক রোগ বিশেষজ্ঞ ডা. অ্যান্টনি ফসি আশঙ্কা প্রকাশ করে বলেছেন, দেশে করোনা ভাইরাসে মৃতের সংখ্যা এক লাখ বা তারও বেশি হতে পারে। এরপর প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পও একই কথা বলেছেন।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: করোনাভাইরাস

৭ ডিসেম্বর, ২০২১
২৯ আগস্ট, ২০২১

আরও
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ