Inqilab Logo

ঢাকা, রোববার, ৩১ মে ২০২০, ১৭ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৭, ০৭ শাওয়াল ১৪৪১ হিজরী

রামগড় সীমান্তে ভারত থেকে পুশইন করা নারী ফেনী নদীর চরে ৩দিন ধরে পড়ে আছে

রামগড়(খাগড়াছড়ি)উপজেলা সংবাদদাতা | প্রকাশের সময় : ৪ এপ্রিল, ২০২০, ৯:০৭ পিএম

খাগড়াছড়ির রামগড়ে ভারত সীমান্তবর্তী ফেনী নদীর বালুর চরে ৩দিন যাবত অবস্থানরত ভারত থেকে পুশইন করা মানসিক ভারসাম্যহীন নারীকে ফেরত পাঠাতে দুদেশের সীমান্তরক্ষী বাহিনী বিজিবি-বিএসএফ এখরও পর্যন্ত কোন সিদ্ধান্তে পৌঁছাতে পারেনি। বিজিবি-বিএসএফ এর মধ্যকার পতাকা বৈঠক কোন সিদ্ধান্ত ছাড়াই শেষ হয়েছে।

নারীটি বারবার ভারতের দিকে যেতে চাইলে বিএসএফ ও স্থানীয় লোকজন তাকে বাঁধা দেয়। এদিকে বিএসএেেফর এমন অমানবিক কর্মকান্ডে বাংলাদেশ সীমান্তের লোকজনের মধ্যে দেখা দিয়েছে করোনা ভাইরাসের আতংক।

এদিকে শুক্রবার সকাল ১০টায় আনন্দপাড়া আবাসিক এলাকা নোমেন্স ল্যান্ডে দুবাহিনীর কোম্পানি কমান্ডার পর্যায়ে এবং বিকাল ৫.৩০ ঘটিকার সময় মহামুনি সংলগ্ন বালাদেশ ভারত মৈত্রী সেতু ১ এর নোমেন্স ল্যান্ডে ব্যাটালিয়ন কমান্ডার পর্যায়ের বৈঠকটি কোন প্রকার সিদ্ধান্ত ছাড়াই শেষ হয়েছে।
এই বিষয়ে মুঠো ফোনে জানতে চাইলে রামগড় ৪৩ বিজিবির জোন কমান্ডার লে: কর্ণেল তারিকুল হাকিম জানান, গত বৃহঃবার থেকে ওই নারীকে বাংলাদেশ-ভারতের সীমান্তবর্তী ফেনী নদীর নোমেন্স ল্যান্ডে দেখাযায়। ওই নারী যখন বাংলাদেশ সীমান্তে প্রবেশ করতে চায় তখন বিজিবি সদস্যরা তাকে বাঁধা দেয়। অন্যদিকে বিএসএফ পক্ষ থেকে দাবী করা হচ্ছে নারীটি বাংলাদেশী। কিন্তু বাংলাদেশের কোন জায়গা থেকে এখনো পর্যন্ত কেউ তাকে দাবী না করায় বাংলাদেশের ভিতরে প্রবেশে বাঁধা দেওয়া হচ্ছে বলে তিনি জানান।

এইদিকে প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, ভারসাম্যহীন নারীটিকে অমানবিক ভাবে ভারতের সীমান্তরক্ষী বাহিনী বিএসএফ বাংলাদেশের দিকে ঠেলে নদীর মাঝখানে ফেলে রেখেছে। প্রথমদিন অধ্যাহারে অনাহারে কাটালেও গত দুইদিন যাবত বাংলাদেশী লোকজন ঐ নারীর কাছে খাদ্য ও পানি পৌঁছে দিচ্ছেন। এদিকে- রামগড় ৪৩ বিজিবি'র পক্ষে অসহায় নারীর ছবি সম্বলিত সন্ধান প্রদানের লক্ষে পোষ্টার লাগিয়ে প্রচার চালাচ্ছেন। এলাকা বাসীর দাবি বর্তমানে সীমান্তে থাকা ঐ নারীকে তার প্রকৃত দেশে পাঠানোর ব্যবস্থা করতে প্রশাসন ও মানবাধিকার সংগঠনগুলির সহায়তা কামনা করেছেন।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ