Inqilab Logo

ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ২৮ মে ২০২০, ১৪ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৭, ০৪ শাওয়াল ১৪৪১ হিজরী

হোম কোয়ারেন্টাইনে ১৩ হাজার ৯৫৪

ছাড়পত্র পেয়েছেন ৫০, ১৯৯ জন

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ৫ এপ্রিল, ২০২০, ১২:০১ এএম

ঢাকাসহ সারাদেশে গত ২৪ ঘণ্টায় সারাদেশে হোম কোয়ারেন্টাইনসহ যুক্ত হয়েছেন ৪৬৯ জন। এ পর্যন্ত মোট কোয়ারেন্টাইনে ছিলেন ৬৪ হাজার ৬৯৩ জন। কোয়ারেন্টাইন সম্পন্ন করেছেন ৫০ হাজার ১৯৯ জন। বর্তমানে কোয়ারেন্টাইনে আছেন ১৩ হাজার ৯৫৪ জন। এছাড়া গত ২৪ ঘণ্টায় আইসোলেশনে এসেছেন ১৮ জন। ছাড়পত্র নিয়েছেন ২৮ জন। অদ্যাবধি সারাদেশে আইসোলেশনে ছিলেন ৪১০ জন। আর ছাড়পত্র নিয়েছেন ৩৩৩ জন। বর্তমানে আইসোলেশনে আছেন ৭৭ জন। গতকাল সন্ধ্যায় স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের অতিরিক্ত মহাপরিচালক (প্রশাসন) অধ্যাপক ডা. নাসিমা সুলতানা স্বাক্ষরিত এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়।

বরিশাল : দক্ষিণাঞ্চলের কোথাও ‘কেভিড-১৯’ রোগী শনাক্ত না হবার মধ্যে হোম কোয়ারেন্টাইনের সংখ্যা ৩ হাজার অতিক্রম করেছে। পাশাপাশি সুস্থবস্থায় হোম কোয়ারেন্টাইন সম্পন্ন করেছেন আরো আড়াই হাজারেরও বেশি মানুষ। যাদের সবাই বিদেশফেরত। তবে বরিশাল ও ভোলার দুটি হাসপাতালে কেভিড-১৯ লক্ষণ নিয়ে এখন ১০জন রোগী চিকিৎসাধীন রয়েছে। তাদের রক্তের নমুনা ইতোমধ্যে ঢাকায় আইইডিসিআর-এ পাঠান হয়েছে। এদিকে বরিশাল শের এ বাংলা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে করোনাভাইরাস পরীক্ষার ‘পলিমার চেইন রি-অ্যাকশন (পিসিআর) মেশিন’টি গতকাল পর্যন্ত চালু করা যায়নি।

নোয়াখালী : নোয়াখালীতে হোমকোয়ারেন্টাইনে ১৯৮৪ জনের মধ্যে এখন ১৬২ জন রয়েছে। এছাড়া সোনাইমুড়ি উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ২৩ জনের মধ্যে ১৪ জন সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরে গেছে। নোয়াখালী জেলা সিভিল সার্জন অফিসের কন্ট্রোল রুম থেকে জানানো হয়, প্রবাসী অধ্যূষিত নোয়াখালীতে এ পর্যন্ত করোনাভাইরাস সংক্রমিত কাউকে পাওয়া যায়নি। সন্দেহভাজন হিসেবে যাদেরকে কোয়ারেন্টাইনে রাখা হয়েছে তাদের অধিকাংশকে ছাড়পত্র দেয়ায় তারা বাড়ি ফিরে গেছে।

রাজশাহী : করোনাভাইরাস প্রতিরোধে রাজশাহীতে গত ২৪ ঘণ্টায় আরও ২০ জনকে হোম কোয়ারেন্টাইনে নেয়া হয়েছে। রাজশাহী সিটি কর্পোরেশন ও জেলার নয়টি উপজেলা মিলিয়ে এদের হোম কোয়ারেন্টাইনে নেয়া হয়।
এ নিয়ে এখন রাজশাহীর বিভিন্ন এলাকায় হোম কোয়ারেন্টাইনে আছেন ৩৭৪ জন। তবে এখন পর্যন্ত রাজশাহীতে করোনা ভাইরাস আক্রান্ত কোনো রোগী শনাক্ত হওয়ার খবর পাওয়া যায়নি। এ পর্যন্ত ৭০২ জন হোম কোয়ারেন্টাইন থেকে ছাড়া পেয়েছে। আর ১ হাজার ৭৬ জন এ পর্যন্ত হোম কোয়ারেন্টাইনে ছিল। শুক্রবার রাজশাহীর সিভিল সার্জন ডা. এনামুল হক এ তথ্য জানিয়েছেন।

সিলেট : করোনাভাইরাস সন্দেহে হোম কোয়ারেন্টাইনে থাকা আরো ৯৫ জনকে ছাড়পত্র দেয়া হয়েছে। গত ১০ মার্চ থেকে এ পর্যন্ত ছাড়পত্র পেয়েছেন ২ হাজার ৬৩৮ জন। গতকাল নতুন করে ১৩ জনকে হোম কোয়ারেন্টাইনে আনা হয়েছে। স্বাস্থ্য অধিদপ্তর সিলেটের সহকারী পরিচালক ডা. আনিসুর রহমান এ তথ্য নিশ্চিত করে বলেন, করোনাভাইরাসের উপসর্গ না পাওয়ায় ৯৫ জনকে ছাড়পত্র দেয়া হয়েছে।

কুড়িগ্রাম : কুড়িগ্রামে এই প্রথম করোনা সন্দেহে ৪ জনের রক্তের নমুনা সংগ্রহ করে রংপুর মেডিকেল কলেজে প্রেরণ করেছে জেলা স্বাস্থ’্যবিভাগ। তন্মধ্যে কুড়িগ্রাম সদরে একজন, রাজারহাটে একজন, নাগেশ্বরী একজন ও ভূরুঙ্গমারীতে একজনসহ মোট ৪ জন। সিভিল সার্জন ডা: হাবিবুর রহমান এ তথ্য জানান।
টাঙ্গাইল : টাঙ্গাইলের ১২টি উপজেলায় ২৪৭ জন হোমকোয়ারেন্টাইনে রয়েছে। আইসোলেশনে রয়েছে ৩ জন। ছারপত্র দেওয়া হয়েছে ৮৮ জনকে। তবে নতুন করে গত ২৪ ঘণ্টায় কাউকে হোমকোয়ারেন্টাইনের আওতায় আনা হয়নি। মোট হোমকোয়ারেন্টাইনের আওতায় আনা হয় ১৭৮১ জনকে। মোট ছাড়পত্র প্রদান করা হয়েছে ১৫৩৪ জনকে। টাঙ্গাইলের সিভিল সার্জন ডা. মোহাম্মদ ওয়াহীদুজ্জামান এসব তথ্য নিশ্চিত করেন।

কিশোরগঞ্জ : গত ২৪ ঘণ্টায় কিশোরগঞ্জে নতুন করে ১২ জনকে হোম কোয়ারেন্টাইনে রাখা হয়েছে। এনিয়ে জেলায় কোয়ারেন্টাইনে রয়েছেন ১ হাজার ২৭৮ জন। তবে ১৪ দিনের কোয়ারেন্টাইন শেষ হওয়ায় এদের মধ্যে ইতোমধ্যেই ছাড়পত্র পেয়েছেন ১ হাজার ১৯৫ জন। বর্তমানে জেলাটিতে হোম কোয়ারেন্টাইনে রয়েছেন ৮৩ জন। এর মধ্যে প্রাতিষ্ঠানিক কোয়ারেন্টাইনে রয়েছেন দু’জন।

গতকাল দুপুরে এ তথ্য নিশ্চিত করেন কিশোরগঞ্জের সিভিল সার্জন ডা. মো. মুজিবুর রহমান।
সিরাজগঞ্জ : গত ২৪ ঘণ্টায় সিরাজগঞ্জে নতুন করে কেউ হোম কোয়ারেন্টাইনের আওতায় না এলেও ছাড়পত্র পেয়েছেন ১৫ জন প্রবাসী। এ নিয়ে ১৪ দিনের হোম কোয়ারেন্টাইন শেষে করোনাভাইরাসের কোনো লক্ষণ না থাকায় জেলায় মোট ৫৮৯ জনের মধ্যে পর্যায়ক্রমে ছাড়পত্র পেয়েছেন ৫০২ জন। গতকাল বিকেলে এ তথ্য জানান সিরাজগঞ্জের সিভিল সার্জন কার্যালয়ের পরিসংখ্যান কর্মকর্তা হুমায়ুন কবির।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: করোনাভাইরাস


আরও
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ
গত​ ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ