Inqilab Logo

ঢাকা, বুধবার, ০৩ জুন ২০২০, ২০ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৭, ১০ শাওয়াল ১৪৪১ হিজরী

করোনা চীনের তৈরি বলে এবার দাবি ব্রিটেনের, তদন্তে ইরান

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ৫ এপ্রিল, ২০২০, ৪:৪৩ পিএম

আমেরিকার প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প প্রথম করোনাকে ‘চাইনিজ ভাইরাস’ বলে উল্লেখ করেন। যা নিয়ে ক্ষুব্ধ হয়ে আন্তর্জাতিক মহলে অনুযোগ করে চীন বলে, এত মানুষের মৃত্যু হয়েছে যে দেশে সেই চীনকে দোষী করা নিরর্থক। গোটা বিশ্বের একটা বড় অংশের কাছেই আশঙ্কা দেখা দেয়, করোনাভাইরাস কি আদৌ পশুর দেহ থেকে ছড়িয়ে পড়া কোনও ভাইরাস নাকি এর নেপথ্যে রয়েছে চীনের সেই উহানের কোন ল্যাবরোটরিতে তৈরি? গোটা ইউরোপে যখন মৃত্যুমিছিল চলছে, তখন হঠাতই এবার ব্রিটেনে সেই চীনা ল্যাবে করোনা তৈরির তত্ত্ব সমর্থন করল।

ব্রিটেনের প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসন নিজে করোনা আক্রান্ত হয়ে হয়েছেন। তার নেতৃত্বাধীন জরুরিকালীন কমিটি ‘কোবরা’ চীনের গবেষণাগার থেকে জীবাণু ছড়ানোর তত্ত্ব ফের সামনে নিয়ে এল। যদি সমস্ত অভিযোগ অস্বীকার করে ব্রিটেনের চীনা রাষ্ট্রদূত জেং রংয়ের দাবি, ‘চীন এমন যদি করে থাকত, তাহলে সেখানে এত মানুষের মৃত্যু হত না।’

করোনায় গোটা বিশ্বজুড়ে মৃত্যুমিছিল চলছে। এখনও প্রতিষেধক আবিষ্কার হয়নি। অনেক বিশেষজ্ঞই অবশ্য এই ভাইরাসের পিছনে চীনের উহানের পশু মার্কেটের দিকেই আঙুল তুলেছেন। তবে বিজ্ঞানীরা যাই বলুন, ইউহান প্রদেশের গবেষণাগারে জীবাণু তৈরির তথ্য উড়িয়ে দিচ্ছে না ব্রিটেনের বিশেষ কমিটি। তারা বছর দুয়েক আগের চীনের সংবাদপত্র পিপলস ডেলি চায়নার একটি প্রতিবেদন তুলে ধরে বলেন, ‘চীনের ভাইরোলজি ইন্সটিটিউট ইবোলার চেয়ে ভয়ংকর এক জীবাণু নিয়ে গবেষণা করছে। ৩০ মিলিয়ন ডলার খরচ করা হয়েছিল এর জন্য। বণ্যপ্রাণী বাজার থেকে মাত্র দশ মাইল দূরে তৈরি করা হয়েছিল।’

এর আগে ইরানের মানুষের বিরুদ্ধে জৈব অস্ত্র হিসেবে করোনাভাইরাস প্রয়োগ করা হয়েছে কি না, তা নিয়ে তদন্ত শুরু করেছে তেহরান। সরকারি নির্দেশে সে দেশের গোয়েন্দা বিশেষজ্ঞদের সঙ্গে বিজ্ঞানীদের একটি দল যৌথ ভাবে বিষয়টির তদন্ত করছে। চীন ছেড়ে করোনা বিশ্বমুখী হওয়ার পর থেকেই নানামহলে করোনাভাইরাস নিয়ে সন্দেহ দানা বাঁধে। করোনা আদতে জৈবঅস্ত্র কি না, তা নিয়ে অনেকেই সন্দেহ পোষণ করতে থাকে। সেই সন্দেহ থেকেই করোনাভাইরাসের সংক্রমণ নিয়ে তদন্তে নেমেছে ইরান।

করোনাবিরোধী লড়াইয়ে ইরানের জাতীয় সদর দফতরের অভিযান সমন্বয়ের দায়িত্বে থাকা জেনারেল নাসরুল্লাহ ফাতিয়ান এ কথা জানিয়েছেন। তিনি বলেন, করোনাভাইরাসকে জৈবঅস্ত্র হিসেবে ব্যবহারের আশংকার যে কথা শোনা যাচ্ছে, তা উড়িয়ে দেয়া যায় না।সম্ভাব্য সবদিক থেকে তা খতিয়ে দেখা হচ্ছে। নাসরুল্লাহ ফাতিয়ান বলেন, ইরানি জনগোষ্ঠীর জেনেটিক গঠনকে কেন্দ্র করে, তাদের ওপর হামলার জন্য এ ভাইরাস তৈরি করা হয়েছে বলেও জল্পনা শোনা যাচ্ছে। এর সত্যতাও পরীক্ষা করে দেখা হচ্ছে। সূত্র: ডেইলি মেইল, টিওআই।



 

Show all comments
  • মোঃ আশরাফ-উলআলম ৫ এপ্রিল, ২০২০, ৫:১৪ পিএম says : 0
    সত্য বেরিয়ে আসুক এটাই বিশ্ববাসীর প্রত্যাশা।
    Total Reply(0) Reply
  • Jahangir Miah ৫ এপ্রিল, ২০২০, ৬:২৬ পিএম says : 0
    Dear Sisters and Brothers, There is not yet an ironclad scientific consensus on exactly how coronavirus is spreading, but experts are getting a pretty good sense of it. From conspiracy theories to geopolitical realism, new growing leading economical war power, the possibility to treat COVID-19 as a biological weapon has been finally accepted in the public sphere. The recent statement by the Chinese spokesman Zhao Lijian, is formally accusing the U.S. of bringing coronavirus to China, has highlighted a series of new opinions about the pandemic. The hypothesis of biological warfare behind the global pandemic has already been raised by Russian experts some weeks ago. The supreme leader of the Islamic Republic of Iran, Ayatollah Khomeini says, “The establishment of a headquarters to fight the outbreak [of COVID-19] occurs due to the presence of evidence that indicates the possibility of a biological attack, signaling that it is necessary that all coping services [to the coronavirus] be under the command of a unified headquarters”. Biological weapons are methods that have long been used, and that form a fundamental part of modern warfare, are those whose costs are less than the methods of direct confrontation of the old wars of mobilization – and whose benefits are greater. (Bio-weapon always win, but bio- weapons are un-controllable) With a big question mark, what the mainstream western media has called a “conspiracy” has been manifested in U.S. defense programs for a long time. Let’s briefly recall the official document named “Rebuilding America’s Defenses”, published by the conservative think tank “Project for a new American Century”, where we can clearly read: “(…) advanced forms of biological warfare that can target specific genotypes may transform biological warfare from the realm of terror to a politically useful tool “. Most of the bio-weapon research analyst think that Chinese activities are highly suspicious, but China strongly denies that they make germ weapons. The most important thing to do is to dispel the myth that biological wars are conspiracy theories. We must begin to take our possibility seriously and analyze the evidences in search of real solutions. Open question to all of us: Is COVID-19 a biological weapon? Please work on it. A very special note – In this crisis, some people can’t stay home, and those people are often the ones we need most. Army, policemen, firefighters, utility technicians, delivery folks and medical professionals; we’re all screwed if they stop showing up to work. But I’m not talking to them, I’m talking to you. Tell everyone to stay at home, so in this way, we can surely lessen the spread of the coronavirus. Kindest Regards DR. Jahangir Miah
    Total Reply(0) Reply

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: করোনাভাইরাস


আরও
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ