Inqilab Logo

ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ০৪ জুন ২০২০, ২১ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৭, ১১ শাওয়াল ১৪৪১ হিজরী

গৌরনদীতে ছাত্রলীগের সংঘর্ষের ঘটনায়পৃথক ৩ মামলা

১৩৩ নেতাকর্মী আসামি, গ্রেফতার ৪

গৌরনদী (বরিশাল) উপজেলা সংবাদদাতা | প্রকাশের সময় : ৫ এপ্রিল, ২০২০, ৮:৩৮ পিএম

বরিশালের গৌরনদীতে বালু ভরাটের ঘটনাকে কেন্দ্র করে ছাত্রলীগের দু’গ্রুপের মধ্যে সংঘর্ষ ও ভাংচুরের ঘটনায় আ’লীগ ও ছাত্রলীগের ১৩৩ নেতাকর্মীকে আসামি করে থানায় পৃথক তিনটি মামলা দায়ের করা হয়েছে। গতকাল রোববার সকালে উপজেলার উত্তর বিজয়পুর এলাকার আহত রাশেদুজ্জামান ঝিলামের বাদি হয়ে ১৮ জনের নামোল্লেখসহ ছাত্রলীগের ২০ নেতাকর্মীকে আসামি করে চাঁদাবাজির ও সরকারি গৌরনদী কলেজের সাবেক ভিপি সুমন মাহামুদের মা মিনারা বেগম বাদি হয়ে ১১ জনের নামোল্লেখসহ আ’লীগ ও ছাত্রলীগের ৬১ নেতাকর্মীকে আসামি করে চাঁদাবাজি-ভাংচুরের এবং দক্ষিণ পালরদী এলাকার যুবলীগ নেতা সাদ্দাম সরদার বাদি হয়ে ৩২ জনের নামোল্লেখসহ ছাত্রলীগের ৫২ জনকে আসামি করে মোটর সাইকেল ভাংচুর ও বিস্ফোরক আইনে মামলা দায়ের করেন।
ওই তিনটি মামলায় উল্লেখযোগ্য আসামিরা হলেন- পৌর আ’লীগের সাধারন সম্পাদক ও পৌর কাউন্সিলর আতিকুর রহমান শামীম, উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি জুবায়ের ইসলাম সান্টু ভ্ইূয়া, সাধারন সম্পাদক লুৎফর রহমান দ্বীপ, সরকারি গৌরনদী কলেজের সাবেক ভিপি সুমন মাহামুদ ওরফে সুমন মোল্লা, পৌর ছাত্রলীগের সভাপতি মিলন খলিফা, কলেজ ছাত্র সংদদের সাবেক এজিএস রিয়াদ হাওলাদার, ছাত্র সংসদের সাবেক ক্রীড়া সম্পাদক আরিফ মিয়া, সাবেক সাহিত্য সম্পাদক বেল্লাল মিয়া, ছাত্রলীগ নেতা জাবির আল মামুন, সাকিব হোসেন চোকিদার, কালা আলামিন, বাশার সরদার, সুমনের সহোদর ভাই সাগর মোল্লা, আতিক মিয়া, সাকির হোসেন, অশোক ওরফে ধলু ধোপা, শহিদুল খান, আলামিন মোল্লা, শাওন সরদার, মিলন তালুকদার, মেরাজ মোল্লা, উজ্জল সরদার।
গৌরনদী থানার ইন্সপেক্টর (তদন্ত) মোঃ মাহাবুবুর রহমান জানান, সংঘর্ষের পর অভিযান চালিয়ে কলেজ ছাত্রলীগের সভাপতি শাখাওয়াত হোসেন সুজনের সহোদর ভাই শাওন হাওলাদার ও মুহিন হাওলাদার, ছাত্রলীগ কর্মী রায়হান মুজিবকে ঝিলামের মামলায় ও ছাত্রলীগ কর্মী মশিউর রহমান চয়ন সাদ্দাম সরদারের মামলায় গ্রেফতার দেখানো হয়েছে। গ্রেফতারকৃতদের গতকাল রোববার দুপুরে বরিশাল আদালতে সোপর্দ করা হলে আদালতের বিচারক তাদেরকে কারাগারে প্রেরণ করেন। ওই তিনটি মামলার বাকি আসামিদের গ্রেফতারের জোরপ্রচেষ্টা অব্যাহত রয়েছে।
উল্লেখ্য, বালু ভরাটের ঘটনাকে কেন্দ্র করে শনিবার বিকালে বরিশালের গৌরনদীতে ছাত্রলীগের দু’গ্রুপের মধ্যে হামলা-পাল্টাহামলা, ধাওয়া-পাল্টাধাওয়া ও সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে। এতে ওসিসহ ৭ পুলিশ সদস্য ও ছাত্রলীগের ১০ নেতাকর্মী আহত হয়েছে। এ সময় ২টি বাড়ি, ব্যক্তিগত ১টি অফিস ও ১৭টি মোটর সাইকেল ভাংচুর হয়েছে।

 

 



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

আরও পড়ুন