Inqilab Logo

ঢাকা শুক্রবার, ৩০ অক্টোবর ২০২০, ১৪ কার্তিক ১৪২৭, ১২ রবিউল আউয়াল ১৪৪২ হিজরী
শিরোনাম

মসজিদের জামাতের বিষয়ে ধর্ম মন্ত্রণালয়ে সিদ্ধান্ত অবিলম্বে বাস্তবায়নের আহ্বান জানিয়েছে জমিয়াতুল মোদার্রেছীন

স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ৬ এপ্রিল, ২০২০, ৩:৫০ পিএম

দেশে কভিট-১৯ তথা নভেল করোনা ভাইরাস এর প্রাদুর্ভাব দিন দিন বৃদ্ধি পাওয়ায় সাধারণ জনগণের আরো সতর্কতা অবলম্বন করতে হবে এবং সকল জনসমাগম এড়িয়ে চলতে হবে বলে জানিয়েছে দেশের মাদরাসা শিক্ষক কর্মচারীদের একমাত্র পেশাজীবী অরাজনৈতিক সংগঠন বাংলাদেশ জমিয়াতুল মোদার্রেছীন। সংগঠনের সভাপতি আলহাজ্ব এ এম এম বাহাউদ্দীন ও মহাসচিব অধ্যক্ষ মাওলানা শাব্বীর আহমদ মোমতাজী এক বিবৃতিতে বলেন, করোনা ভাইসারে প্রাদুর্ভাবে বাংলাদেশে ইতিমধ্যে শতাধিক মানুষ আক্রান্ত এবং মৃতের সংখ্যাও দশকে পৌঁছেছে। এমতাবস্থায় আমাদের আরো সতর্কতা অবলম্বনের পাশাপাশি সচেতন হতে হবে। সংক্রমক এ ভাইরাস সাধারণত আক্রান্ত ব্যাক্তির সংস্পর্শে থাকলে ছড়ানোর সম্ভবনা বেশী। সেইসাথে মাস্ক, হ্যান্ড সেনিটাইজার, গ্লাভস ব্যবহার না করে বাইরে অবাধে চলা ফেরার মাধ্যমে ছড়াতে পারে বলে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা ও বাংলাদেশ স্বাস্থ্য অধিদপ্তর জানিয়েছে। বিশ্বের উন্নত দেশসমূহ করোনা ভাইরাসের প্রাদুর্ভাব প্রতিহত করতে যখন হিমশিম খাচ্ছে ঠিক সেই সময়ে বাংলাদেশকে এ ভাইরাসের কবল থেকে রক্ষার্থে সাধারণ জনগণকে আরো শতর্কতা অবলম্বন করে সরকারকে সহযোগিতা করতে হবে।
নেতৃবৃন্দ আরো বলেন, ইতিমধ্যে দেশ ও জনগণের স্বার্থে ধর্ম মন্ত্রণালয় কতৃক জানানো হয়েছে মসজিদের জুম্মার নামাজে সর্বোচ্চ ১০ জন ও পাঁচ ওয়াক্ত নামাজে সর্বোচ্চ ৫ জন মুসল্লি মিলে জামাত আদায় করতে হবে, করোনা বিস্তারের হাত থেকে জনগণকে বাঁচানোর জন্য ধর্ম মন্ত্রণালয়ের এ বুদ্ধিদীপ্ত সিদ্ধান্তকে মোবাকবাদ জানাচ্ছি। একই সাথে এ সিদ্ধান্ত অতিদ্রুত বাস্তবায়নের ব্যবস্থা করা হবে বলে আশা করছি। নেতদ্বয় দেশের সকল মসজিদ কমিটির কর্মকর্তা বৃন্দের দৃষ্টি আকর্ষণ করে বলেন, এমন সংকটপূর্ণ সময়ে মসজিদের ইমাম, খতিব, মুয়াজ্জিন, খাদেমসহ সংশ্লিষ্ট সকলের বেতন-ভাতাদী অব্যাহতে রেখে তাঁদের পাশে দাড়াতে হবে। পাশাপশি আল্লাহর কাছে ক্ষমা ও সাহায্য প্রার্থনা এবং বেশিবেশি ইবাদাত-বন্দেগী ও ইস্তেগফার পাঠের জন্য সর্বসাধারণকে পরামর্শ প্রদান করেন।
দেশের সকল পীর-মাশায়েখ, দরবার ও বিত্তবানদের এমন সংকটময় সময়ে হোম কোয়ারেন্টাইনে থাকা গরীব-অসহায়, সুবিধা বঞ্চিত ও দুস্থদের খাবারসহ নিত্য প্রয়োজনীয় জিনিসপত্র প্রদানের মাধ্যমে স্বাভাবিক জীবনধারণে সহযোগিতা করার জন্য জমিয়াত নেতৃবৃন্দ উদার্ত আহ্বান জানান। উল্লেখ বাংলাদেশ জমিয়াতুল মোদার্রেছীনের পক্ষ থেকে দেশের বিভিন্ন জেলায় জেলায় হোম কোয়ারেন্টাইনে থাকা গরীব-অসহায়, সুবিধা বঞ্চিতদের মাঝে ত্রাণ বিতরণ করা হয়েছে এবং এখনও তা অব্যাহত রয়েছে।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: জমিয়াতুল মোদার্রেছীন


আরও
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ