Inqilab Logo

ঢাকা, শুক্রবার, ২৯ মে ২০২০, ১৫ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৭, ০৫ শাওয়াল ১৪৪১ হিজরী

এবার ছবি তুলে ত্রাণ কেড়ে নিলেন চট্টগ্রামের সেই চেয়ারম্যান

চট্টগ্রাম ব্যুরো | প্রকাশের সময় : ৭ এপ্রিল, ২০২০, ৮:৫৫ পিএম

চট্টগ্রামে ত্রাণ নিয়ে দুর্নীতির অভিযোগে অভিযুক্ত আওয়ামী লীগ সমর্থিত সেই ইউপি চেয়ারম্যান এবার ঘটালেন আরেক কা-। দরিদ্রদের ডেকে এনে ত্রাণ হাতে ধরিয়ে ছবি তোলার পর ত্রাণ না দিয়ে তাড়িয়ে দিলেন তিনি। এ সময় তাদের মারধর করা হয় বলেও অভিযোগ পাওয়া গেছে। বঞ্চিত এবং প্রতারিত এসব অসহায় লোকজন উপজেলা নির্বাহী অফিসারের কাছে গিয়ে অভিযোগ জানিয়েছেন।
স্থানীয়রা জানায়, সোমবার উপজেলার মির্জাপুর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান নুরুল আবছার ২৬ পরিবারকে ডেকে এনে এক ব্যাগ করে ত্রাণ দিয়ে ছবি তোলে। ছবি তোলা শেষে তাদের কাছ থেকে ত্রাণ রেখে দিয়ে তাড়িয়ে দেয়।
উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. রুহুল আমীন ইনকিলাবকে বলেন, ত্রাণ বঞ্চিত লোকজন আমার বাসায় এসে কান্নাকাটি করেছেন। তাদের অভিযোগ, ত্রাণ না দিয়ে উল্টো তাদের মারধর করে তাড়িয়ে দিয়েছে। আমি চেয়ারম্যানকে এ ব্যাপারে লিখিত ব্যাখ্যা দিতে বলেছি। তাদের সরকারি ত্রাণ সহায়তা দেয়া হয়েছে।
উল্লেখ্য, এর আগে গত শনিবার ত্রাণ নিয়ে দুর্নীতির অভিযোগে ওই চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে অনাস্থা দিয়ে তাকে বরখাস্তের দাবি জানিয়েছে ইউনিয়নের আটজন সদস্য। সেটি জেলা প্রশাসকের সিদ্ধান্তের অপেক্ষায় রয়েছে।



 

Show all comments
  • এই ধরনের জনপ্রতিনিধিদের চেয়ারম্যানের পদ থেকে বহিষ্কার করে আইনের আওতায় এনে কঠোর শাস্তি প্রদান করা উচিত।
    Total Reply(0) Reply
  • KAMRUL ISLAM ৭ এপ্রিল, ২০২০, ৯:১৪ পিএম says : 0
    এই চেয়ারম্যান কে এক সপ্তাহ খাবার দিয়ে রাস্তায় রাস্তায় ঘুরিয়ে, ক্ষুধার যন্ত্রণা কি এটা উপলব্ধি করানো উচিত এবং তাকে অবিলম্বে পদ থেকে অব্যাহতি দিয়ে তার স্থাবর- অস্থাবর সম্পত্তি গরিবের মাঝে বন্টণ করা উচি।
    Total Reply(0) Reply
  • YAHYA AHMED ৮ এপ্রিল, ২০২০, ৪:৫০ এএম says : 0
    ওই চেয়ারম্যানকে আমার কাছে পাঠিয়ে দাও। মাত্র ১ ঘন্টা পিঠামু। তারপর ছেড়ে দিব।
    Total Reply(0) Reply
  • Rafiq ৮ এপ্রিল, ২০২০, ৭:০৩ পিএম says : 0
    Asol rohosso khotya dekhar besoy ase.
    Total Reply(0) Reply
  • Rafiq ৮ এপ্রিল, ২০২০, ৭:০৩ পিএম says : 0
    Asol rohosso khotya dekhar besoy ase.
    Total Reply(0) Reply

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

আরও পড়ুন
গত​ ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ