Inqilab Logo

ঢাকা, শনিবার, ০৬ জুন ২০২০, ২৩ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৭, ১৩ শাওয়াল ১৪৪১ হিজরী
শিরোনাম

পতেঙ্গা চট্টগ্রাম : বাঁশ দিয়ে ‘লকডাউন’

ভেতরে আড্ডা অভিযানে ধরা ও জরিমানা!

শফিউল আলম | প্রকাশের সময় : ১০ এপ্রিল, ২০২০, ৭:৫৯ এএম

লকডাউন’! এমন ঘোষণা সম্বলিত সাইনবোর্ড টাঙিয়ে এমনকি বাইরে বাঁশ দিয়ে পুরো এলাকার রাস্তাঘাট গলিপথ আটকে রাখা হয়। না, প্রশাসন তা করেনি। তথাকথিত ‘লকডাউন’ এভাবে করে স্থানীয় কিছু বখাটে মাস্তানের সঙ্গে এলাকার বেপরোয়া আড্ডাবাজরা। ঘটনাস্থল চট্টগ্রাম নগরীর ঘনবসতি এলাকা পতেঙ্গা থানার কাটগড়।
আর সেখানে ‘লকডাউন’ ও বাঁশের ঘেরার আড়ালে ভেতরে অবাধে চলছিল একশ্রেণির যুবক-তরুণ ও কিশোর গ্যাংয়ের লাগামহীন আড্ডা, ঘোরাঘুরি, গালগল্প। আর সেখানকার দোকানপাট ও খুপড়িতে জমজমাট বেচাকেনা!
এদের জটলা, আড্ডা, ঘোরাঘুরির কারণে সামাজিক বিচ্ছিন্নতা বা কমিউনিটি ট্রান্সমিশন রোধের উল্টোটাই হচ্ছিল। জনবহুল এলাকাটিতে করোনাভাইরাস সংক্রমণের ঝুঁকিতে জনমনে আতঙ্ক বৃদ্ধি পায়। বখাটেদের উৎপাতের কারণে সাধারণ মানুষজন এদের তাণ্ডবে বিরক্ত হলেও ভয়ে মুখ খুলতে পারেননি।
অবশেষে খবর পেয়ে চট্টগ্রাম জেলা প্রশাসনের ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালা করেন সেখানে। গত ২৪ ঘণ্টায় নগরীর বিভিন্ন স্থানে ধারাবাহিক পরিচালিত এ অভিযানে পতেঙ্গার থানার কাটগড়ে আড্ডাখোরদের এ ধরনের তিনটি ‘লকডাউন’ গলির সন্ধান মিলেছে। এই অভিযানে সেনাবাহিনী ও র‌্যাব-৭ সদস্যগণ সহায়তা করেন। এ সময় ৫ জন ও স্থানীয় ব্যবসা প্রতিষ্ঠানকে হাতেনাতে ধরা হয়। ১৩ হাজার ৫শ’ টাকা জরিমানা করা হয়।
ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনাকারী জেলা প্রশাসনের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ও সহকারী কমিশনার (ভূমি পতেঙ্গা) এহসান মুরাদ জানান, গলির মুখে বাঁশ দিয়ে ওরা নিজস্ব ‘লকড ডাউন’ করেছিল। বাঁশের ঘেরার বাইরে কিছু লোক বসে থাকে। ভেতরে গলির মধ্যে চায়ের দোকান, পান-বিড়ি, সিগারেটের দোকান এমনকি কসমেটিক্স পণ্যের দোকানও খোলা পাওয়া গেছে।
জিজ্ঞাসাবাদে দোকানিরা বলেছেন, তারা চাঁদা তুলে বাঁশের প্রতিবন্ধকতা পাহারাদার লোকজনকে দেন। তারা দিনভর পালা করে পাহারা দেয়। কিন্তু বাইরে পুলিশ দেখা গেলে তা ভেতরে জানিয়ে দেয়। নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট বলেন, এভাবে পাড়া-মহল্লা বন্ধ করা এমনকি নিজস্ব ‘লকড ডাউন’র এখতিয়ার কারো নেই। পাহারা দেয়ার কথা পুলিশের। অথচ তারা এভাবে আইন ভঙ্গ করে। অভিযানে তিনটি গলির প্রতিবন্ধকতা অপসারণ করা হয়।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: করোনাভাইরাস


আরও
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ