Inqilab Logo

ঢাকা, রোববার, ৩১ মে ২০২০, ১৭ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৭, ০৭ শাওয়াল ১৪৪১ হিজরী

নাসিরনগরে রাস্তায় লকডাউন দিয়ে গ্রামের ভিতরে বাড়ছে জনসমাগম

নাসিরনগর(ব্রাহ্মণবাড়িয়া) উপজেলা সংবাদদাতা | প্রকাশের সময় : ১০ এপ্রিল, ২০২০, ১১:৩০ এএম

ব্রাহ্মণবাড়িয়ার নাসিরনগর উপজেলায় ইতোমধ্যে পূর্বভাগ ইউনিয়নের মকবুলপুর গ্রামের মালয়েশিয়া প্রবাসী ফেরত শাহআলম গত ৭ এপ্রিল মধ্য রাতে করোনা উপসর্গ নিয়ে মৃত্যুবরণ করলে উপজেলা প্রশাসন ৮ এপ্রিল তার নিজ বাড়ি মকবুলপুর, এবং শশুরবাড়ি একই ইউনিয়নের জেঠাগ্রামকে লকডাউন ঘোষণা করে। এরই মধ্যে পুরো নাসিরনগরে আতংক বিরাজ করছে জনসাধারণের মনে। এমন পরিস্থিতিতে গত ৮ এপ্রিল থেকে নিজ উদ্যোগে উপজেলার বহু গ্রামের প্রবেশপথ গুলোকে লকডাউন করলেও ভিতরে জনসমাগম দিন দিন বৃদ্ধি পাচ্ছে বলে জানান অনেক সচেতন ব্যক্তি বর্গ। ৯ এপ্রিল সরেজমিনে উপজেলার বুড়িশ্বর ইউনিয়নের বুড়িশ্বর গ্রামের প্রবেশপথ গুলোতে এমন চিত্র দেখা গেছে। নিজ উদ্যোগেই এমন লকডাউন সম্পর্কে জানতে চাইলে নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক অনেকেই দৈনিক ইনকিলাবকে জানায় রাস্তায় এমন লকডাউন করে গ্রামের ভিতরে মারাত্মক হারে জনসমাগম বাড়ছে। দোকান পাঠে আড্ডা বজী, জটলা তৈরি করে মহল্লার রাস্তা ঘাটে খেলাধুলা ও গল্প গুজব করছে সাধারণ মানুষ। কিছুতেই তাদেরকে করোনা ভাইরাসের ভয়াবহতার কথা বিশ্বাস করানো যাচ্ছেনা। বরং এই লকডাউন দিয়ে তারা পুলিশ প্রশাসনকে গ্রামের ভিতরে প্রবেশ না করার বাধার প্রাচীর নির্মান করেছে বলে আখ্যা দিয়েছেন। এমন পরিস্থিতিতে যদি গ্রামের সাধারণ মানুষ সতর্ক ও নিরাপদ দূরত্বে রাখা না যায় তবে কোন ভাবেই করোনা পরিস্থিতি থেকে আমরা রেহাই পাবনা বলেও জানান অনেক। তারা বলেন শহরের মতো গ্রামের প্রতিটি বাড়ি বাড়ি যদি পুলিশ, সেনাবাহিনীর সদস্যদের তৎপর ভূমিকা না থাকে তবে গ্রামের সাধারণ মানুষ কঠিন থেকে কঠিন বিপদের সম্মুখীন হবে। আমাদের সাধারণ সচেতন জনগনের দাবী শীঘ্রই নাসিরনগর উপজেলা প্রশাসন প্রতিটি গ্রামে গ্রামে প্রয়োজনে কমিটি গঠন করে হলেও জনসমাগম এড়াতে জরুরি পকক্ষেপ গ্রহণ করেন।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: লকডাউন


আরও
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ