Inqilab Logo

ঢাকা, রবিবার, ১৬ ডিসেম্বর ২০১৮, ০২ পৌষ ১৪২৫, ৮ রবিউস সানী ১৪৪০ হিজরী

না’গঞ্জে বিকেএমইএ সহ-সভাপতির গার্মেন্টে শ্রমিক অসন্তোষ ৪ ঝুট সন্ত্রাসীকে শ্রমিকদের পিটুনি

প্রকাশের সময় : ১৭ জুলাই, ২০১৬, ১২:০০ এএম

নারায়ণগঞ্জ থেকে স্টাফ রিপোর্টার : নারায়ণগঞ্জ সদর উপজেলার ফতুল্লা বিসিক শিল্পনগরী এলাকায় অবস্থিত বিকেএমইএ’র সহসভাপতি আসলাম সানির মালিকানাধীন ক্রোনী টেক্স সোয়েটার লিমিটেড নামে একটি রপ্তানীমুখী গার্মেন্টে ৪ ঝুট সন্ত্রাসীকে আটকে বেধড়ক পিটুনী দিয়েছে বিক্ষুব্ধ শ্রমিকরা। শনিবার দুপুরে গার্মেন্টের ভেতরে এ ঘটনা ঘটে। এর আগে গার্মেন্টের বাহিরে ঝুট সন্ত্রাসীদের সঙ্গে চাকুরীচ্যুত শ্রমিকদের ধাওয়া পাল্টা ধাওয়ার ঘটনা ঘটে।
জানা গেছে, গত ৮ জুন ৬২ জন শ্রমিককে সাময়িক বরখাস্ত করে ক্রোনী টেক্স সোয়েটার কর্তৃপক্ষ। শ্রমিকদের দাবি কারখানায় অ্যাডমিন অফিসার নিয়ামুল ইসলাম মঞ্জু ও পিএম আমিনুর রহমান ও হুমায়ন কবির চক্রান্ত করে শ্রমিকদের সাময়িক বরখাস্ত করেছে। তবে দীর্ঘদিনেও চাকুরীচ্যুত শ্রমিকদের পুর্নবহাল ও তাদের বেতন বোনাস পরিশোধের বিষয়টি নিস্পত্তি করেনি মালিকপক্ষ।
এ অবস্থায় ঈদুল ফিতরের পূর্বে বেতন বোনাসের দাবিতে গত ২ জুলাই তারা সড়ক অবরোধ ও বিক্ষোভ সমাবেশ করে। পরদিন তাদেরকে ঈদ উদযাপনের জন্য আংশিক বেতন ভাতা পরিশোধ করে মালিকপক্ষ। তবে দীর্ঘদিনেও শ্রমিকদের চাকুরীচ্যুতির বিষয়টি চূড়ান্ত করেনি এবং শ্রম আইন অনুযায়ী তাদের বেতন-ভাতাও সম্পূর্ণ পরিশোধ করেনি। শনিবার চাকুরীচ্যত শ্রমিকরা কারখানাটির সামনে জড়ো হলে মালিকপক্ষের পালিত ঝুট সন্ত্রাসীরা তাদের উপর হামলা চালায়। এসময় উভয়পক্ষের মধ্যে ধাওয়া পাল্টা ধাওয়ার ঘটনা ঘটে। হামলার খবর পেয়ে ভেতরে থাকা শ্রমিকরা কর্মবিরতি পালন করতে থাকে। এসময় কিছু ঝুট সন্ত্রাসী গার্মেন্টের ভেতরে প্রবেশ করে শ্রমিকদেরকে কাজে যোগদানের জন্য চাপ দিতে থাকে। বাকবিতন্ডার এক পর্যায়ে শ্রমিকরা ৪ ঝুট সন্ত্রাসীকে আটকে বেধড়ক পিটুনী দেয়। এসময় বাকী ঝুট সন্ত্রাসীরা পালিয়ে যায়। লাঞ্ছিত হওয়া ঝুট সন্ত্রাসীদের সকলেই রহমতউল্লাহর লোক।
ফতুল্লা মডেল থানার পরিদর্শক (তদন্ত) শাহজালাল জানান, ক্রোনি গার্মেন্টে শ্রমিকরা কয়েকজন ঝুট সন্ত্রাসীকে পিটুনী দিয়েছে খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠানো হয়েছে।
নারায়ণগঞ্জ শিল্প পুলিশ-৪ এর সুপার সানা শামীনুর রহমান জানান, ঝুট সন্ত্রাসীদের সঙ্গে শ্রমিকদের মধ্যে সংঘর্ষের খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে শিল্প পুলিশের কর্মকর্তা ও সদস্যদের পাঠানো হয়েছে। বর্তমানে পরিস্থিতি শান্ত রয়েছে। শ্রমিকদের বিষয়টি দ্রæত সমাধানের জন্য আমরা মালিকপক্ষকে বলেছি। তাদের বেতন ভাতা পাওনা থাকলে দ্রæত পরিশোধের জন্য বলা হয়েছে।
এদিকে ‘পোলাও মাংস চাই না ডাল ভাত চাই’ : ‘পোলাও মাংস চাই না, ডাল ভাত চাই। আর সেই ভাতে ছাই দিলে প্রতিবাদ হবেই। গতকাল (শনিবার) বিকাল ৫টার মধ্যে আমাদের দাবি মেনে না নিলে আন্দোলন কি কালকেই সেটা দেখবে নারায়ণগঞ্জবাসী। আগামীকাল সকাল ১০টায় ডিসি অফিস ঘেরাও করা হবে। এভাবে কঠোর থেকে কঠোর আন্দোলন ধারাবাহিক ভাবে চলতে থাকবে। আমাদের দাবি আদায় না হওয়ার পর্যন্ত রাজপথে আছি থাকবো। প্রয়োজনে জীবন দিবো।’ শনিবার (১৬ জুলাই) সকাল ১১টা থেকে দুপুর ১টা পর্যন্ত নারায়ণগঞ্জ শহরে র চাষাঢ়া নারায়ণগঞ্জ প্রেসক্লাবের সামনে অবস্থান করে ক্যাডটেক্স গার্মেন্টস শ্রমিকেরা ওইসব বক্তব্য দেয়।
এর আগে সকাল ১০টায় শ্রমিকেরা নারায়ণগঞ্জ শহরের চাষাঢ়া কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে এসে ক্যাডটেক্স গার্মেন্টেস শ্রমিকেরা জড়ো হয়। পরে তারা শহরের বঙ্গবন্ধু সড়কে অবিলম্বে কারখানা খুলে দেয়ার দাবিতে ও শ্রমিকদের পাওনা পরিশোধের দাবিতে বিক্ষোভ মিছিল বের করে।

 



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।