Inqilab Logo

মঙ্গলবার, ৩০ নভেম্বর ২০২১, ১৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৮, ২৪ রবিউস সানী ১৪৪৩ হিজরী

টঙ্গীবাড়ীতে জাটকা আটক করায় ৫ গ্রাম পুলিশসহ ৬ জনকে পিটিয়ে জখম

টঙ্গীবাড়ী (মুন্সীগঞ্জ) সংবাদদাতা | প্রকাশের সময় : ১৫ এপ্রিল, ২০২০, ১:২১ পিএম

টঙ্গীবাড়ী উপজেলার কাঠাদিয়া গ্রামের ঈদগায়ের সামনের রাস্তা দিয়ে অটো ও পিক্যাপ ভ্যানে করে পাচার হওয়ার সময় বিপুল পরিমাণ জাটকা ইলিশ মাছ আটক করায় ৫ গ্রাম্য পুলিশ সহ ৬ জনকে পিটিয়ে গুরুতর জখম করছে দিঘিরপাড় তদন্ত কেন্দ্রর পুলিশ।

আহত গ্রাম্য পুলিশ নবু শেখ, সুজন শেখ,শহিদ মাল,রশিদ শেখ, রহমান শেখ ও ওই এলাকার ওয়াসিম বেপারী টঙ্গীবাড়ী স্বাস্থ্য কমপ্লেক্র হাসপাতালে চিকিৎসা নিচ্ছেন।

এ ব্যাপারে কাঠাদিয়া শিমুলিয়া ইউনিয়ন ৯ নং ওয়ার্ড গ্রাম্য পুলিশ নবু সেখ জানান, করোনা আক্রান্ত নারয়নগঞ্জের মানুষ যাতে এ রাস্তা দিয়ে প্রবেশ করতে না পারে সে জন্য আমরা টঙ্গীবাড়ী ইউএনওর নির্দেশে ভোড়ে রাস্তায় ডিউটি করছিলাম। এ সময় আমরা জাটকাসহ ২টি পল্লি বাইক আটক করি। তার একটু পরে ৩টি পিক্যাপভ্যান বোঝাই জাটকা ইলিশ ওই রাস্তা দিয়ে পাচার হওয়ার সময় আমরা পিক্যাপ গুলোকে থামানোর চেষ্টা করলে পিক্যাপ থেকে নেমে দিঘিরপাড় তদন্ত কেন্দ্রর এএস আই তাইজুদ্দিন ও এক কনেস্টবল আমাদের পিটিয়ে জখম করে।

এ সময় আমাদের চিৎকারে এই এলাকার ওয়াসিম বেপারী এগিয়ে আসলে তাকেও পিটায় পুলিশ। পরে পুলিশ জাটকা বোঝাই পিক্যাপগুলো নিয়ে গিয়ে আলদী বাজার পর্যন্ত এগিয়ে দিয়ে এসে পূর্ণরায় আমাদের পিটায় আর বলে তোদের জাটকা আটক করতে বলেছে কে? পরে আমরা আটো থেকে আটক জাটকাগুলো থানায় পৌছে দিয়ে হাসপাতালে চিকিৎসা নিচ্ছি।

এ ব্যাপারে কাঠদিয়া শিমুলিয়া ইউনিয়ন চেয়ারম্যান নুর হোসেন বেপারী জনান,বিগত কয়েকদিন যাবত ইউএনও স্যারের নির্দেশে রাস্তায় আমার ইউনিয়নের গ্রাম্য পুলিশরা পাহাড়া দিচ্ছিলো। বুধবার ভোরে ওই রাস্তা দিয়ে জাটকা নিয়ে যাওয়ার সময় গ্রাম্য পুলিশ পিক্যাপসহ জাটকা আটক করায় পুলিশ আমার গ্রাম্য পুলিশ ও আমার চাচাতো ভাইকে পিটিয়ে রক্তাক্ত জখম করেছে। পরে গ্রাম্য পুলিশরা আমায় খবর দিলে আমি আসলে পুলিশ পূর্নরায় আমার সামনে গ্রাম্য পুলশদের মারতে আসে আর বলে ওরা কার নির্দেশে জাটকা ধরেছে।

এ ব্যাপারে টঙ্গীবাড়ী দিঘিরপাড় তদন্ত কেন্দ্রের ইনচার্জ জিল্লুর রহমান বলেন, এলাকাবাসী গাড়ি আটক করছে শুনে ওই এলাকায় পুলিশ ধাওয়া দেয়। পুলিশ পিক্যাপ ভানে করে জাটকা ইলিশ নিয়ে যাচ্ছিলো কিনা জানতে চাইলে সে বলে বিষয়টি আমার জানানেই।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: পিটিয়ে জখম


আরও
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ