Inqilab Logo

ঢাকা, রোববার, ০৫ জুলাই ২০২০, ২১ আষাঢ় ১৪২৭, ১৩ যিলক্বদ ১৪৪১ হিজরী

বিএসএমএমইউ’র প্রো-ভিসি হয়েছেন প্রফেসর ডা. মো. জাহিদ হোসেন

স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ১৫ এপ্রিল, ২০২০, ৪:২৫ পিএম

বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয়ের (বিএসএমএমইউ) শিশু কার্ডিওলজি বিভাগের চেয়ারম্যান প্রফেসর ডা. মো. জাহিদ হোসেন প্রেসিডেন্ট ও এই বিশ্ববিদ্যালয়ের চ্যান্সেলরের আদেশক্রমে পরবর্তী তিন বছরের জন্য বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রো-ভিসি নিযুক্ত হয়েছেন। সোমবার (১৩ এপ্রিল) প্রেসিডেন্ট ও চ্যান্সেলরের আদেশক্রমে স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের স্বাস্থ্য শিক্ষা ও পরিবার কল্যাণ বিভাগের উপ-সচিব মোহাম্মদ মনিরুজ্জামান বকাউল স্বাক্ষরিত এক অফিস আদেশে এ তথ্য জানানো হয়। এদিকে নতুন প্রো-ভিসি ডা. মো. জাহিদ হোসেন আজ বুধবার (১৫ এপ্রিল) অফিসে যোগ দিয়েছেন। এ সময় বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিসি প্রফেসর ডা. কনক কান্তি বড়–য়া, কোষাধ্যক্ষ প্রফেসর ডা. মোহাম্মদ আতিকুর রহমান, নাক কান গলা বিভাগের প্রফেসর ডা. এ এইচ এম জহুরুল হক সাচ্চু উপস্থিত ছিলেন। যোগদানের পূর্বে বুধবার প্রো-ভিসি ডা. মো. জাহিদ হোসেন, বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিসি ডা. কনক কান্তি বড়–য়ার নেতৃত্বে বিশ্ববিদ্যালয়ের বি বøকে স্থাপিত জাতির পিতা বঙ্গবন্ধুর ম্যুরালে পুষ্পস্তবক অর্পণ করে শ্রদ্ধা জানান। নতুন প্রো-ভিসি ডা. মো. জাহিদ হোসেনকে বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক সমিতির সভাপতি প্রফেসর ডা. মো. জুলফিকার রহমান খান, সাধারণ সম্পাদক সহযোগী অধ্যাপক ডা. জিল্লুর রহমান ভূঁইয়া অভিনন্দন জানিয়েছেন। এছাড়াও স্বাধীনতা চিকিৎসক পরিষদ, বিএসএমএমইউ’র পক্ষ থেকেও তাঁকে অভিনন্দন জানানো হয়েছে।

ডা. মোঃ জাহিদ হোসেন মাদারীপুর জেলাধীন কালকিনী উপজেলার সাহেব রামপুর ইউনিয়নের নিবাসী মরহুম গোলাম মাওলা ও মোসাম্মাৎ বদরুন্নেছার দ্বিতীয় পুত্র। তিনি ১৯৫৮ সালের ১ জানুয়ারি এক সম্ভ্রান্ত মুসলিম পরিবারে জন্মগ্রহণ করেন। তিনি ১৯৭২ সালের নভেম্বর মাসে অনুষ্ঠিত পরীক্ষায় কৃতিত্বের সাথে স্টারমার্কসহ এসএসসি এবং ১৯৭৫ সালে ঢাকা কলেজ থেকে এইচ এস সি পাশ করেন। তিনি ১৯৮২ সালে চট্টগ্রাম মেডিক্যাল কলেজ থেকে এমবিবিএস পাশ করেন। তিনি পরবর্তী পর্যায়ে শিশু স্বাস্থ্য বিষয়ে এফসিপিএস, এমডি এবং কার্ডিওলজি বিষয়ে এমডি ডিগ্রী লাভ করেন। পরবর্তী পর্যায়ে আমেরিকার শিকাগোতে অবস্থিত রাশ ইউনিভার্সিটি, ভারতের ফ্রন্টিয়ার লাইফ লাইন হাসপাতাল, মাদ্রাজ মেডিক্যাল মিশন এবং কেরালায় অবস্থিত অমৃতা আনন্দময়ী ইনস্টিটিউট অব মেডিক্যাল সায়েন্স থেকে শিশু হৃদরোগ বিষয়ে প্রশিক্ষণ লাভ করেন। তিনি বিএসএমএমইউ’র শিশু কার্ডিওলজি বিভাগ প্রতিষ্ঠা করেন এবং বর্তমানে উক্ত বিভাগের চেয়ারম্যান হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন। দেশ-বিদেশের বিভিন্ন জার্নালে তাঁর উল্লেখযোগ্যসংখ্যক গুরুত্বপূর্ণ প্রকাশনা রয়েছে। তিনি শিশু হৃদরোগ বিষয়ে প্রশিক্ষত জনবল গড়ে তোলার লক্ষে বিশ্ববিদ্যালয়ে শিশু হৃদরোগ বিষয়ে বাংলাদেশে প্রথম এমডি ডিগ্রী চালু করেন। তিনি বিশ্ববিদ্যালয়ে শিশু হৃদরোগ সার্জারি চালুর বিষয়ে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করেন। একই সঙ্গে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নির্দেশনায় বিশ্ববিদ্যালয়ে শিশু হৃদরোগীদের বিনা অপারেশনে ও অপারেশনের মাধ্যমে বিনামূল্যে চিকিৎসা কার্যক্রম বাবদ অতি দরিদ্র ও দরিদ্র অহসায় জন্মগত হৃদরোগীদের গত ৩ বছর ধরে চিকিৎসাসেবা চালু রেখেছেন এবং বর্তমানেও তা অব্যাহত রয়েছে।

প্রফেসর ডা. মো. জাহিদ হোসেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নির্দেশনা মোতাবেক ৮টি বিভাগীয় শহরে শিশু কার্ডিয়াক সেন্টার ও বিএসএমএমইউতে পূর্ণাঙ্গ শিশু কার্ডিওলজি ও কার্ডিয়াক সার্জারি ইনস্টিটিউট প্রতিষ্ঠার প্রকল্প বাস্তায়নে মূল ভূমিকা পালন করছেন। তিনি ১৯৯৭ সালে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিষ্ঠা বিরোধী আন্দোলন নস্যাৎ করতে তৎকালীন স্বাস্থ্যমন্ত্রী সালাউদ্দিন ইউসুফ এবং বাংলাদেশ মেডিক্যাল এ্যাসোসিয়েশনের তৎকালীন মহাসচিব ডা. মোস্তফা জালাল মহিউদ্দিনের নেতৃত্বে বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিষ্ঠার ক্ষেত্রে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করেন। প্রফেসর ডা. মো. জাহিদ হোসেন স্বাধীনতা চিকিৎসক পরিষদের প্রতিষ্ঠাতা যুগ্ম-মহাসচিব। তিনি ১৯৮৩ সাল থেকে বাংলাদেশ মেডিক্যাল এ্যাসোসিয়েশনের বিভিন্ন পদে থেকে গণবিরোধী স্বাস্থ্যনীতিসহ বিভিন্ন আন্দোলনে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করেন এবং বর্তমানে বাংলাদেশ মেডিক্যাল এ্যাসোসিয়েশনের ট্রেজারার অর্থাৎ কোষাধ্যক্ষ পদে অধিষ্ঠিত আছেন। তিনি সকলের দোয়া কামনা করেছেন।

 



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: বিএসএমএমইউ


আরও
আরও পড়ুন