Inqilab Logo

ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ২৮ মে ২০২০, ১৪ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৭, ০৪ শাওয়াল ১৪৪১ হিজরী

ইউরোপে করোনায় মৃত লক্ষাধিক, আমেরিকাতেও মৃত্যুমিছিল

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ১৯ এপ্রিল, ২০২০, ৭:০৯ পিএম

করোনার ত্রাসে ইউরোপ ও আমেরিকা জুড়ে আতঙ্ক বাড়ছেই। দুই মহাদেশেই কার্যত তাণ্ডবলীলা শুরু করেছে সংক্রমণ। এর মধ্যে শুধুমাত্র ইউরোপেই লক্ষাধিক মানুষ মারা গিয়েছেন যা সমগ্র পৃথিবীতে করোনায় মোট মৃতের সংখ্যার তিন ভাগের প্রায় দু’ভাগ।

রোববার পর্যন্ত বিশ্বজুড়ে করোনায় আক্রান্তের সংখ্যা ২৩ লাখ ৩১ হাজার ৯৯ জন। মৃত্যু হয়েছে ১ লাখ ৬০ হাজার ৯৫২ জনের। চিকিৎসা নিয়ে সুস্থ হয়েছেন ৫ লাখ ৯৮ হাজার ৫৮৪ জন। এর মধ্যে আমেরিকায় এখনও পর্যন্ত মারা গিয়েছেন ৩৯ হাজার মানুষ। দেশটিতে গত ২৪ ঘণ্টায় মারা গিয়েছেন এক হাজার ৮৯১ জন। আমেরিকায় সংক্রমণ ধরা পড়েছে সাত লাখ ২৫ হাজার মানুষের।

সময় যত এগোচ্ছে ততই ভয়াবহ আকার নিচ্ছে করোনা সংক্রমণ। দীর্ঘ থেকে দীর্ঘতর হচ্ছে মৃত্যুমিছিল। প্রতিদিনই তৈরি হচ্ছে একের পর এক সংখ্যার রেকর্ড। মৃতের সংখ্যার নিরিখে শীর্ষে পৌঁছে গিয়েছে আমেরিকা। এর পর রয়েছে ইটালি। দেশটিতে মৃতের সংখ্যা ২৩ হাজার ২২৭, স্পেনে ২০ হাজার ৬৩৯, এরপরে ফ্রান্স, সেখানে ১৯ হাজার ৩২৩, ব্রিটেনে ১৫হাজার ৪৬৪। পরিস্থিতি সবচেয়ে খারাপ আমেরিকায়। শুধু মাত্র নিউইয়র্কেই ১৩ হাজার ১৫৭ জনের মৃত্যু হয়েছে। তবে গত দু’সপ্তাহে এই প্রথম বার নিউইয়র্কে দৈনিক মৃত্যুর সংখ্যা ৫৫০-র কম, এ কথা জানিয়েছেন সেখানকার গভর্নর অ্যান্ড্রু কুমো।

ইউরোপের মধ্যে জার্মানিতেই আক্রান্তের সংখ্যার তুলনায় মৃত্যুহার সবচেয়ে কম। মহামারি পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আছে জানিয়ে ধীরে ধীরে লকডাউন তুলে নেয়ারও চিন্তা করছে দেশটির সরকার। জার্মানিতে গত ২৪ ঘণ্টায় করোনার নতুন রোগী শনাক্তের সংখ্যা কিছুটা কমেছে। এদিন সেখানে নতুন করে ২ হাজার ৪৫৮ জনের শরীরে প্রাণঘাতী করোনাভাইরাস পাওয়া গেছে। এর আগে শনিবার ৩ হাজার ৬০৯ জন রোগী শনাক্তের কথা জানিয়েছিল জার্মান কর্তৃপক্ষ। দেশটিতে এ পর্যন্ত করোনা আক্রান্তের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে মোট ১ লাখ ৩৯ হাজার ৮৯৭ জন। গত কয়েকদিনে মৃত্যুহার কিছুটা কমেছে জার্মানিতে। গত শুক্রবার দেশটিতে করোনায় প্রাণহানির সংখ্যা বলা হয়েছিল ২৯৯ জন। শনিবার এ সংখ্যা কমে দাঁড়ায় ২৪২ জনে। সোমবার থেকেই কিছু দোকানপাট খুলে দেয়া হচ্ছে, সপ্তাহখানেকের মধ্যেই চালু হবে স্কুলগুলোও।

চীনে নতুন করে আরও ১৮ জনের সংক্রমণ ধরা পড়েছে। গত গত ১৭ মার্চের পর নতুন সংক্রমণের এই পরিসংখ্যানটা সবচেয়ে কম। পাকিস্তানে ইতিমধ্যেই আট হাজার মানুষের করোনা ধরা পড়েছে। দক্ষিণ কোরিয়ায় গত ২৪ ঘণ্টায় নতুন করে আট জনের শরীরে সংক্রমণ ধরা পড়েছে, যা গত দু’মাসে সবচেয়ে কম। ভারতে ১৫ হাজার ৭১২ জন শনাক্ত হয়েছে, মৃত্যু হয়েছে ৫০৭ জনের।

করোনা থাবা বসিয়েছে ব্রাজিল, আর্জেন্টিনা, মেক্সিকোর মতো লাতিন আমেরিকার দেশগুলিতেও। মিশর, নাইজেরিয়া-সহ আফ্রিকার একাধিক দেশেও করোনা সংক্রমণ ছড়িয়েছে। তবে সেখানে সংক্রমণের হার অনেকটাই কম। দক্ষিণ আফ্রিকায় এখন পর্যন্ত ২০ হাজার শনাক্ত এবং ১ হাজারের বেশি মানুষের মৃত্যু হয়েছে।

এদিকে, করোনাভাইরাসে আক্রান্তের সংখ্যা নিয়ে অবাক হওয়ার মতো তথ্য দিয়েছে যুক্তরাষ্ট্রের ক্যালিফোর্নিয়ার স্টানফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয়ের একদল গবেষক। তাদের দাবি, বিশ্বে এখন পর্যন্ত করোনাভাইরাসে আক্রান্তের সংখ্যা ২৩ লাখ বলা হলেও এ সংখ্যাটি কম করে হলেও ১১ কোটি ৫০ লাখ। সূত্র: রয়টার্স, এএফপি।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: করোনাভাইরাস


আরও
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ
গত​ ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ