Inqilab Logo

ঢাকা, রবিবার, ০৯ আগস্ট ২০২০, ২৫ শ্রাবণ ১৪২৭, ১৮ যিলহজ ১৪৪১ হিজরী
শিরোনাম

কক্সবাজার লবণ শিল্প এলাকায় বাড়ছে ঝুঁকি

ঢাকা-নারায়ণগঞ্জ ফেরতদের নিয়ে আতঙ্ক

বিশেষ সংবাদদাতা, কক্সবাজার থেকে : | প্রকাশের সময় : ২১ এপ্রিল, ২০২০, ১১:৫১ পিএম

কক্সবাজারে করোনা ছড়িয়ে পড়ছে ঢাকা ও নারায়ণগঞ্জ যাতায়াতকারীদের মাধ্যমে। এ পর্যন্ত কক্সবাজারে শনাক্ত ৫ রোগীর সকলেই ঢাকা এবং নারায়ণগঞ্জ ফেরত। নাইক্ষ্যংছড়িতে শনাক্ত ব্যক্তি ঢাকা থেকে তাবলীগ ফেরত। আর মহেশখালীর তিনজন ও টেকনাফের একজন সবাই নারায়ণগঞ্জ ফেরত। শনাক্ত ব্যক্তিদের কক্সবাজারে যাতায়াত স্থানগুলো স্থানীয় প্রশাসন ইতোমধ্যে লকডাউন করেছে। তাই ঢাকা ও নারায়ণগঞ্জ ফেরত ব্যক্তিদের নিয়ে আতঙ্ক রয়েছে কক্সবাজারে।

কিন্তু এই লকডাউনেও নিয়ম লঙ্ঘন করে কক্সবাজার-ঢাকা-নারায়ণগঞ্জ যাতায়াত করছে শতশত লবণের ট্রাক। জানা গেছে, গত তিনদিনে ঢাকা-নারায়ণগঞ্জের ৩ শতাধিক ট্রাক লবণ নিতে ঢুকেছে শিল্প নগরী ইসলামপুরে। বিসিকের খাতায়ও নিবন্ধিত আছে ২৬৭টি ট্রাক। কিন্তু নির্দেশনা মতে এসব ট্রাকে সঠিক মাত্রায় জীবাণুনাশক স্প্রে করা হয়েছে কিনা তা নিশ্চিত নয়। এতে করে সন্দেহ দেখা দিয়েছে স্থানীয়দের মাঝে।
স্থানীয়দের যে বিষয়টি ভাবিয়ে তুলেছে তা হলো- স্বাভাবিক পরিস্থিতিতে দৈনিক এত ট্রাক আসতো না। করোনা আতঙ্কের মাঝেও এতগুলো লবণবাহী ট্রাক কেন আসছে? এত লবণ কোথায় যাচ্ছে, তা খতিয়ে দেখারও দাবি তোলেন তারা। তাছাড়া এসব ট্রাকে যাতায়াতকারী শ্রমিকরা করোনা ছড়াচ্ছে কি না এ নিয়ে আতঙ্কে রয়েছেন তারা।
স্থানীয় বাসিন্দারা জানান, প্রতি ট্রাকে চালক-হেলপারসহ অন্তত ৩ লোক আসে। তারা বটতলী স্টেশনে আসার পরেই জীবাণুনাশক স্প্রে ও গোসল করার কথা থাকলেও কেউ তা মানে না। দোকানপাটে বসে দেদারসে আড্ডা জমিয়ে যাচ্ছে।
বিসিক কক্সবাজারের উপ-মহাব্যবস্থাপক (ডিজিএম) মুহাম্মদ হাফিজুর রহমান জানান, গত শনিবার ৯৬টি, রোববার ৭৮টি এবং সোমবার ৯২টি লবণবাহী ট্রাক ঢুকেছে। যেগুলো তাদের নির্ধারিত খাতায় লেখা হয়েছে। ইসলামপুরে বর্তমানে ৩২টির মতো লবণ মিল চালু রয়েছে। প্রতি মিল মালিকদের সরকারি নির্দেশনা মতে হাইজেনিক ব্যবহারের কথা বলা হয়েছে।
তিনি আরও জানান, অধিকাংশ মিলে শ্রমিকদের মুখে মাস্ক, হাতে গ্লাভস নেই। সেখানে মানা হয় না সরকারি আদেশ। বিষয়টি জেলা প্রশাসনকে জানানো হয়েছে।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: লবণ-শিল্প
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ