Inqilab Logo

ঢাকা রোববার, ০১ নভেম্বর ২০২০, ১৬ কার্তিক ১৪২৭, ১৪ রবিউল আউয়াল ১৪৪২ হিজরী
শিরোনাম

অভিযানে ২০ মিনিটে আদার দাম কমলো কেজিতে ২৩০ টাকা

স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ২২ এপ্রিল, ২০২০, ৬:৪১ পিএম

আসন্ন রমজান মাস এবং করোনাভাইরাসের প্রকোপ দুইয়ে মিলে চাহিদা বেড়েছে আদার। এই সুযোগে পণ্যটির অস্বাভাবিক দাম বাড়িয়েছেন ব্যবসায়ীরা। আমদানিকৃত এসব আদার এলসিতে সর্বোচ্চ মূল্য পড়ে কেজিতে ৯৭ টাকা। অথচ পাইকারী বাজারে তা বিক্রি হচ্ছে ২৪৫ টাকা দরে। আবার খুচরা বাজারে সেই আদাই বিক্রি হচ্ছে ৩৫০ টাকা দরে। বুধবার রাজধানীর শ্যামবাজারে অভিযান চালিয়ে জাতীয় ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদফতর এসব তথ্য পেয়েছে।

অভিযান পরিচালনা করেন অধিদফতরের ঢাকা বিভাগীয় কার্যালয়ের উপপরিচালক (উপসচিব) মনজুর মোহাম্মদ শাহরিয়ার। তিনি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে পুরো অভিযানটি লাইভও করেন। সেখানে দেখা যায়, শ্যামবাজারে পাইকারী আড়ত ফয়সাল এন্টারপ্রাইজে মূল্য তালিকায় চায়না আদার দাম ২৪৫ টাকা লেখা। এরপর তিনি ক্রয়মূল্য দেখতে চান। কাগজপত্রে দেখা যায়, চট্টগ্রামের ব্রাদার্স ট্রেডার্স ইন্টারন্যাশনাল থেকে ৪৫০ ব্যাগ আদা কিনেছেন ওই আড়তদার। আমদানিককারকের দেয়া ওই রশিদে ব্যাগের সংখ্যা, পণ্যের ওজন, পরিবহন ভাড়া সব লেখা থাকলেও ক্রয় মূল্য লেখা নেই।

এটাকেই ‘শুভঙ্করের ফাঁকি’ বলে উল্লেখ করেন মনজুর মোহাম্মদ শাহরিয়ার। এসময় তিনি সেই আমদানিকারকের সঙ্গে মোবাইল ফোনে কথা বলেন। তিনি নিজের পরিচয় দিয়ে ক্রয় মূল্য জানতে চাইলে খরচসহ ১১০ টাকা পড়েছে বলে জানান। তাহলে পাইকারী বাজারে কত বিক্রি করবে জিজ্ঞাসা করলে আমদানিকারক বলেন, আমরা বাজার অনুযায়ী বিক্রি করতে বলেছি। এতে ক্ষুব্ধ হন মনজুর মোহাম্মদ শাহরিয়ার। তিনি বলেন, বাজারতো আপনারাই ঠিক করছেন। এটা ‘দুষ্টামি’। আপনারা এরকম করতে পারেন না। আমি আপনার তথ্য আমাদের চট্টগ্রাম অফিসে দিয়ে দিচ্ছি তারা আপনার সঙ্গে কথা বলবে। আপনাদের এই পণ্য কেজিতে সর্বোচ্চ এলসি মূল্য পড়েছে ৯৭ টাকা। এরচেয়ে বেশি কারো পড়েনি। খরচ হিসাব করে আপনারা মূল্য দিবেন।

এরপর আমদানিকারক ফোনে ফয়সাল এন্টারপ্রাইজকে আদার কেজি সবোর্চ্চ ১২০ টাকা নির্ধারণ করে দেন। বেশি দামে পণ্য বিক্রির অপরাধে ফয়সাল এন্টারপ্রাইজকে ২০ হাজার টাকা এবং মেসার্স আয়নাল অ্যান্ড সন্সকে পাঁচ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: অভিযান


আরও
আরও পড়ুন