Inqilab Logo

শনিবার, ২৭ নভেম্বর ২০২১, ১২ অগ্রহায়ণ ১৪২৮, ২১ রবিউস সানী ১৪৪৩ হিজরী

তুরস্কে ৮ হাজার পুলিশ সদস্য বরখাস্ত

অভ্যুত্থান চেষ্টার নিন্দা প্রস্তাবে জাতিসংঘে মিসরের বাধা

প্রকাশের সময় : ১৯ জুলাই, ২০১৬, ১২:০০ এএম

ইনকিলাব ডেস্ক

তুরস্কের ব্যর্থ সেনা অভ্যুত্থানের সঙ্গে জড়িত থাকার সন্দেহে এ পর্যন্ত দেশটির ৮ হাজার পুলিশ সদস্যকে সাময়িক বরখাস্ত করা হয়েছে বলে জানিয়েছে তুর্কি কর্তৃপক্ষ। এছাড়া বেশ কয়েকজন জেনারেলসহ সেনাবাহিনী এবং বিচার বিভাগের ৬ হাজার জনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।
যারা বিদ্রোহ ঘটিয়েছে সেসব ‘ভাইরাস’ থেকে রাষ্ট্রকে মুক্ত করা হবে বলে প্রত্যয় ব্যক্ত করেছেন তুরস্কের প্রেসিডেন্ট রজব তাইয়েব এরদোগান। এদিকে, যুক্তরাষ্ট্র সব সময়ই নির্বাচিত সরকারের পক্ষে থাকবে বলে ইউরোপীয় পররাষ্ট্রমন্ত্রীদের এক বৈঠকে জানিয়েছেন মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী জন কেরি। গতকাল তুরস্কের রাষ্ট্রীয় কয়েকটি গণমাধ্যম জানিয়েছে, এ পর্যন্ত তুরস্কে জেনারেল এবং অ্যাডমিরাল মর্যাদার শতাধিক কর্মকর্তাকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। এছাড়া বিদ্রোহ শেষে পালিয়ে যাওয়া আট তুর্কি সেনাকে অবৈধ অনুপ্রবেশের দায়ে বিচারের মুখোমুখি করেছে গ্রিস।
পালিয়ে যাওয়া সেনারা গ্রিসে রাজনৈতিক আশ্রয় প্রার্থনা করেছে। অপরদিকে তাদের ফেরত চেয়ে গ্রিসের কাছে আবেদন করেছে তুরস্ক। রোববার জনতার উদ্দেশে দেয়া এক ভাষণে এরদোগান জানিয়েছেন, তুরস্কে আবারো মৃত্যুদ-ের বিধান প্রবর্তন করা হতে পারে। ২০০৪ সাল থেকে তুরস্কে মৃত্যুদ- বন্ধ করে দেয়া হয়।
তুরস্কে অভ্যুত্থান চেষ্টার নিন্দা প্রস্তাবে জাতিসংঘে মিসরের বাধা
তুরস্কে সামরিক বাহিনীর সদস্যদের একাংশের বিদ্রোহ, সহিংসতা ও গণতান্ত্রিকভাবে নির্বাচিত সরকারকে ক্ষমতাচ্যুত করার চেষ্টার নিন্দা জানিয়ে একটি প্রস্তাব এনেছিল জাতিসংঘ নিরাপত্তা পরিষদ। কিন্তু মিসরের বিরোধিতার কারণে তা পাস হয়নি। এদিকে তুরস্কে সামরিক অভ্যুত্থানের চেষ্টার নিন্দা জানিয়েছে আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়।
শুক্রবার অভ্যুত্থান চেষ্টা শুরুর পর যুক্তরাষ্ট্র জাতিসংঘ নিরাপত্তা পরিষদে একটি প্রস্তাব উত্থাপন করেছিল। প্রস্তাবে তুরস্কে চলমান পরিস্থিতিতে গভীর উদ্বেগ এবং সংশ্লিষ্ট সব পক্ষকে সংযম প্রদর্শন, সহিংসতা ও রক্তপাত পরিহার, সঙ্কটের ত্বরিত সমাধান এবং আইনের শাসন পুনঃপ্রতিষ্ঠার আহ্বান জানানো হয়।
তুরস্কের প্রতিবেশী দেশ মিসর ওই প্রস্তাবের বিরোধিতা করে। নিরাপত্তা পরিষদে যেকোনো প্রস্তাবে সর্বসম্মত অনুমোদনের বাধ্যবাধকতা থাকায় প্রস্তাবটি পাস হয়নি। জাতিসংঘে মিসরের রাষ্ট্রদূত আমর আবুলাত্তা বলেন, আমরা প্রস্তাবের ভাষা পাল্টাতে বলেছি। গণতান্ত্রিক ও সাংবিধানিক নীতির প্রতি শ্রদ্ধা প্রদর্শনের কথা উল্লেখের আহ্বান জানিয়েছি। মার্কিনিরা তা প্রত্যাখ্যান করেছে।
বৈঠকে উপস্থিত কূটনীতিকরা জানায়, যুক্তরাষ্ট্রের প্রস্তাবে সব পক্ষের প্রতি ‘তুরস্কে গণতান্ত্রিকভাবে নির্বাচিত সরকারের প্রতি শ্রদ্ধা প্রদর্শনের’ আহ্বান থাকায় মিসর তা বাদ দিতে বলে। মিসরের পক্ষ থেকে বলা হয়, ‘নিরাপত্তা পরিষদ ওই সরকারকে অথবা অন্য কোনো সরকারকে গণতান্ত্রিকভাবে নির্বাচিত কি না, সে সনদ অথবা খেতাব দেয়ার মতো অবস্থায় নেই।
যুক্তরাষ্ট্র ও যুক্তরাজ্য মিসরের এ প্রস্তাবের বিরোধিতা করে। এরপর মিসর তুরস্কের বিভিন্ন পক্ষকে গণতান্ত্রিক ও সাংবিধানিক নীতি এবং আইনের শাসনের প্রতি শ্রদ্ধা প্রদর্শনের আহ্বান জানানোর প্রস্তাব দেয়। উপস্থিত কূটনীতিকরা জানান, মিসরের এ প্রস্তাবের পর যুক্তরাষ্ট্রের প্রস্তাবটি নিয়ে আলোচনা শেষ হয়ে যায়।
উল্লেখ্য, মিসরের বর্তমান প্রেসিডেন্ট আবদুল ফাত্তাহ আল সিসি অবসরপ্রাপ্ত একজন সেনা জেনারেল। সামরিক অভ্যুত্থানের মাধ্যমে মিসরের ইতিহাসে প্রথম গণতান্ত্রিকভাবে নির্বাচিত প্রেসিডেন্ট মোহাম্মদ মুরসিকে ক্ষমতাচ্যুত করে তিনি ক্ষমতা দখল করেন। মুরসির দল মুসলিমস ব্রাদারহুড তুরস্কের ক্ষমতাসীন এ কে পার্টির রাজনৈতিক মিত্র ছিল। সূত্র : ওয়েবসাইট



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: তুরস্কে ৮ হাজার পুলিশ সদস্য বরখাস্ত
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ