Inqilab Logo

শুক্রবার, ২১ জানুয়ারী ২০২২, ০৭ মাঘ ১৪২৮, ১৭ জামাদিউস সানি ১৪৪৩ হিজরী

সিরাজদিখানে ৩’শ কুরআনে হাফেজ ইমামতি থেকে বিরত

মসজিদে মসজিদে খতম তারাবিহ হচ্ছে না

সিরাজদিখান(মুন্সীগঞ্জ) উপজেলা সংবাদদাতা | প্রকাশের সময় : ২৪ এপ্রিল, ২০২০, ৮:৩৬ পিএম

রমজানে এ বছর সিরাজদিখান উপজেলার প্রায় ১৫০ মসজিদে খতম তারাবিহ নামাজ আদায় করা হচ্ছে না। এতে করে ওই মসজিদে খতম তারাবিতে ঈমামতি থেকে বিরত থাকতে হচ্ছে অন্তত ৩০০ জন কুরআনের হাফেজকে। আবার খতম তারাবিহ নামাজ বন্ধ থাকায় ওই সব কুরআনে হাফেজদের এক মাসের আয় রোজাগার থাকছে না। কাজেই হাফেজদের পরিবারে নেমে আসছে অমানিশার অন্ধকার। করোনার কারনে প্রায় মসজিদে মসজিদে এ বছর খতম তারাবিহ পড়ানো হচ্ছে না। বিশেষ করে প্রতিটি মসজিদে ১২ জনের বেশী মুসল্লি অংশ নিতে পারবেন-সরকারি ভাবে এমন সংখ্যা বেধে দেওয়ার পর সিরাজদিখানের অধিকাংশ মসজিদেই খতম তারাবিহ নামাজ আদায় করা হবে না। উপজেলায় ২৬০ টি কওমি মাদরাসা ও ৬১০ টি মসজিদ রয়েছে। এরমধ্যে পাঞ্জেগানা নামাজ আদায় করেন ৯০ টি মসজিদে। রমজানে একেকটি মসজিদে খতম তারাবিহ পড়াতে দুই জন করে কুরআনে হাফেজ নিয়োগ দেওয়া হয়ে থাকে।

রাজদিয়া গ্রামের হাফেজ আওলাদ বলেন, এ বছর মসজিদে মুসল্লি সংখ্যা কম থাকবে বিধায় খতম তারাবিহ পড়ানো হবে না। উপজেলা পরিষদ জামে মসজিদের খতিব সোয়াইব হোসাইন বলেন, উপজেলার অধিকাংশ মসজিদেই খতম তারাবিহ নামাজ আদায় করা হচ্ছে না। সুরা তারাবিহ নামাজ আদায় করা হবে মসজিদ গুলোতে।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: ইমামতি
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ