Inqilab Logo

ঢাকা, সোমবার, ১৯ আগস্ট ২০১৯, ০৪ ভাদ্র ১৪২৬, ১৭ যিলহজ ১৪৪০ হিজরী।

কাঁধে ব্যথা ফ্রোজেন শোল্ডার

প্রকাশের সময় : ২০ জুলাই, ২০১৬, ১২:০০ এএম

বয়স বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে শরীরে বয়োবৃদ্ধিজনিত অনেক রকম সমস্যাই দেখা দেয়। তার মধ্যে অন্যতম হচ্ছে ফ্রোজেন শোল্ডার। ডাক্তারি ভাষায় আরেক নাম পেরি আথ্রাইটিস বা ক্যাপসুলাইটিস। তাছাড়া যারা দীর্ঘদিন ডায়াবেটিসে ভোগেন, কাঁধে আঘাত পেলে বা কাঁধের মাংসপেশী মচকালে বা ছিঁড়ে গেলেও কাঁধে ব্যথা বা ফ্রোজেন সোল্ডার হতে পারে। অনেক সময় ঘাড়ের সমস্যা যেমনÑ স্পন্ডাইলাইটিস, সোল্ডার ডিসলোকেশন থেকেও কাঁধে ব্যথা হতে পারে।
কীভাবে বুঝবেন ফ্রোজেন শোল্ডার হয়েছে
যদি দীর্ঘদিন ধরে কাঁধের বড় জোড়ায় এক পাশ অথবা দুই পাশেই একটু একটু করে ব্যথা হয়।
ব্যথা জোড়ার চারপাশে হতে পারে অথবা বাহুর পাশ দিয়ে নিচেও নামতে পারে।
যে পাশে সমস্যা হয়, সেদিকে কাত হয়ে শুলে যদি ওইহাত নাড়াতে কষ্ট হয়।
দৈনন্দিন কাজে হাত নড়াচড়া করতে যদি ব্যথা তীব্র থেকে তীব্রতর হয়।
পিঠ চুলকাতে, ভাত খেতে, টয়লেট ব্যবহার করতে গেলে যদি কাঁধের জোড়ায় প্রচ- ব্যথা হয়।
এভাবে চলতে চলতে আস্তে আস্তে যদি জোড়ার নড়াচড়া ও কর্মক্ষমতা বন্ধ হয়ে আসে।
এসব উপসর্গ থাকলে বুঝে নিতে হবে, আপনার ফ্রোজেন শোল্ডার হয়েছে।
চিকিৎসা :
সাধারণত চিকিৎসকরা বিভিন্ন ব্যথানাশক ওষুধ দিয়ে থাকেন এবং পাশাপাশি স্টেরয়েড জাতীয় ইনজেকশন জোড়ার ভেতর প্রয়োগ করে থাকেন। যেহেতু ওষুধের পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া রয়েছে, সেজন্য আপনাকে অবশ্যই একজন বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকের পরামর্শ নিতে হবে।
থেরাপি হচ্ছে এ রোগের পার্শ্বপ্রতিক্রিয়াবিহীন অত্যাধুনিক চিকিৎসা। ফ্রোজেন শোল্ডার সমস্যায় সাধারণত যেসব চিকিৎসা দেয়া হয় তা হচ্ছেÑ এলুথেরাপি, টিআরফি বা ইন্ট্রাআরটিকুলার, ম্যানুপুলেশন। তবে এসকল চিকিৎসা অবশ্যই দেখেশুনে দক্ষ ও অভিজ্ঞ চিকিৎসকের পরামর্শে নিতে হবে। প্রয়োজনে বিশেষায়িত হাসপাতালে ভর্তি থেকে নিতে হবে।
পরামর্শ :
ব্যথার স্থানে গরম সেঁক দিতে পারেন। তবে কোনো রকম মালিশ করা যাবে না। চিকিৎসকের নির্দেশ মতো নিয়মিত ব্যায়াম করবেন। যে পাশে জোড়ার সমস্যা, সেদিকে কাত হয়ে শোবেন না। ভারি জিনিস টানবেন না। ডায়াবেটিস থাকলে পুরোপুরি নিয়ন্ত্রণে রাখুন।
ষ প্রফেসর ডা. মো. সফিউল্যাহ্ প্রধান
পেইন ও ফিজিওথেরাপি বিশেষজ্ঞ
ডিপিআরসি হাসপাতাল
২৯ প্রবাল হাউজিং, রিং রোড,
শ্যামলী, ঢাকা-১২০৭।
মোবাইল নং :- ০১৭৩-২২০০৬৯৭



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

আরও পড়ুন