Inqilab Logo

ঢাকা, রবিবার, ০৯ আগস্ট ২০২০, ২৫ শ্রাবণ ১৪২৭, ১৮ যিলহজ ১৪৪১ হিজরী
শিরোনাম

মামলা দিয়ে ফাঁসানোর হুমকি ধর্ষিতার পরিবারকে

সংবাদ প্রকাশের পর ঘটনাস্থলে এএসপি

রূপগঞ্জ (নারায়ণগঞ্জ) উপজেলা সংবাদদাতা : | প্রকাশের সময় : ২৬ এপ্রিল, ২০২০, ১২:০৪ এএম

নারায়ণগঞ্জের রূপগঞ্জে ভোলাব তদন্ত কেন্দ্রের ইনচার্জ ইন্সপেক্টর সাইফুল ধর্ষণের আলামত নষ্ট করার জন্য ধর্ষিতার পরিবারকে বিয়ে পড়ানোর কথা বলে নানান রকম টালবাহানা করে। ধর্ষক ইব্রাহিম ও তার পরিবারের কাছ থেকে মোটা অঙ্কের উৎকোচ নিয়ে শিক্ষার্থী ধর্ষণের ঘটনায় ৫ দিনেও মামলা নেয়নি। পরে কাফনের কাপড় পরে রূপগঞ্জ প্রেসক্লাবের আশ্রয় চায় ধর্ষিতা ও তার পরিবার। বহু নাটকীয়তার পর গত শুক্রবার দুপুরে মামলা রুজু হওয়ার বিষয়টি জানান রূপগঞ্জ থানার ওসি।
এ ঘটনা নিয়ে গতকাল দেশের বিভিন্ন জাতীয় দৈনিক ও অনলাইন পোর্টালে সংবাদ প্রকাশিত হয়। সংবাদ প্রকাশের পর ধর্ষণের ঘটনা তদন্ত করতে ঘটনাস্থলে যান ’গ’ সার্কেলের সহকারী পুলিশ সুপার মাহিন ফরাজী। ঘটনাস্থলে গিয়ে ধর্ষিতা ও তার পরিবারকে খুঁজে পাওয়া যায়নি। ধর্ষিতা ও তার পরিবারকে ফিরিয়ে আনা ও নিরাপত্তা দেয়ার ব্যাপারে আশ্বাস দেন তিনি।
জানা যায়, এ ঘটনায় মামলা হলেও ধর্ষক কবির হোসেনের ছেলে ইব্রাহিম মিয়াকে এখনো গ্রেফতার করতে পারেনি পুলিশ। ধর্ষক ও তার পরিবারের সদস্যদের নিয়োজিত সন্ত্রাসীদের ভয়ে ধর্ষিতা ও তার পরিবার নিরাপত্তাহীনতায় পালিয়ে বেড়াচ্ছে।
স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, ধর্ষক ইব্রাহিমের পিতা কবির হোসেন ধর্ষিতার পরিবারকে মেরে ফেলার জন্য সন্ত্রাসী ভাড়া করেন। ওই সন্ত্রাসীরা ও ধর্ষক ইব্রাহিম কিছুক্ষণ পর পর ধর্ষিতার বাড়িতে মোটরসাইকেল মহড়া দেয় ও প্রকাশ্যে তাদের মেরে ফেলার হুমকি দেয়। এমনকি মামলার আসামি ধর্ষক ইব্রাহিম প্রকাশ্যে ঘুরে বেড়ায় এবং তার পিতা কবির হোসেন ভোলাব তদন্ত কেন্দ্রে সামনে ঘোরাঘুরি করলেও রহস্যজনক কারণে তাদের গ্রেফতার করছে না পুলিশ।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: ধর্ষণ

৯ জুলাই, ২০২০

আরও
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ