Inqilab Logo

ঢাকা রোববার, ০৬ ডিসেম্বর ২০২০, ২১ অগ্রহায়ণ ১৪২৭, ২০ রবিউস সানি ১৪৪২ হিজরী

তিন দফা দাবিতে সাভারে পরিবহন শ্রমিকদের সড়কে বিক্ষোভ

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ২৮ এপ্রিল, ২০২০, ১২:১৩ পিএম

ত্রাণ সহায়তা, শ্রমিকদের কল্যাণের নামে বিভিন্ন শ্রমিক-মালিক সমিতির ব্যানারে চাঁদা আদায় বন্ধ ও অবিলম্বে গণপরিবহন চালুসহ তিন দফা দাবিতে সাভারে ঢাকা-আরিচা মহাসড়কে অবস্থান নিয়ে বিক্ষোভ করেছে কয়েক শতাধিক কর্মহীন গণপরিবহন শ্রমিক।

মঙ্গলবার সকাল সাড়ে ৯টার দিকে ঢাকা-আরিচা মহাসড়কের থানা রোড এলাকায় সড়কে অবস্থান নিয়ে বিক্ষোভ করতে থাকেন প্রায় চার শতাধিক গণপরিহন শ্রমিক।

এসময় শ্রমিকরা সড়কে বসে দিন দফা দাবি আদায়ে স্লোগান দিতে থাকেন। পরে পুলিশ ও পরিবহন মালিকপক্ষের আশ্বাসে প্রায় এক ঘণ্টা সড়কে অবস্থানের পর সরে যায় পরিবহন শ্রমিকরা।
পরিবহন শ্রমিকদের অভিযোগ, করোনা সংক্রমণ ঝুঁকির মধ্যে সবচেয়ে অসহায় ও মানবেতর জীবনযাপন করছেন পরিবহন শ্রমিকরা। গত প্রায় এক মাস কর্মহীন অবস্থায় থাকলেও তাদের কোন প্রকার ত্রাণ কিংবা সহায়তা প্রদান করেনি কেউই। এতে পরিবার নিয়ে চরম উৎকণ্ঠা ও হতাশার নিয়ে অসহায় দিন পার করছেন তারা। তাই ত্রাণ সহায়তা, শ্রমিকদের কল্যাণের নামে বিভিন্ন শ্রমিক-মালিক সমিতির ব্যানারে চাঁদা আদায় বন্ধ ও অবিলম্বে গণপরিবহন চালুসহ তিন দফা দাবিতে ঢাকা-আরিচা মহাসড়কে অবস্থান নিয়ে বিক্ষোভ করেন তারা।

এসময় পরিবহন মালিকরা যতক্ষণ উপস্থিত না হয়ে তাদের দাবি পূরণের আশ্বাস দেবে তৎক্ষণ সড়ক থেকে সরে না যাওয়ারও হুঁশিয়ারী দেয় শ্রমিকরা।

সাভার পরিবহনের চেয়ারম্যান সোহরাব হোসেন বলেন, গণপরিবহন চালুসহ তিন দফা দাবিতে সড়কে অবস্থানরত শ্রমিকদের সাথে আলোচনার পর তারা সড়ক ছেড়ে দেয়।

সাভার মডেল থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) পাভেল মোল্লা জানান, মূলত করোনা সংকটের মাঝে কর্মহীন হয়ে পড়া শ্রমিকরা কোন প্রকার সাহায্য না পেয়ে আজ সকালে ঢাকা-আরিচা মহাসড়কের থানা স্ট্যান্ড এলাকায় সড়কে অবস্থান নিয়ে বিক্ষোভ শুরু করেন।

তিনি আরো বলেন, সত্যিকার মানবিক অর্থে অসহায় এসব শ্রমিকদের এমন সংকটময় পরিস্থিতিতে পরিবহন মালিকদের তাদের পাশে থাকার প্রয়োজন ছিলো। তাই কষ্টে থাকা এসব শ্রমিকদের সহযোগিতার জন্য পরিবহন মালিকদের সাথে আলোচনা শেষে সমস্যা সমাধানের আশ্বাসে শ্রমিকরা সড়ক থেকে চলে গেলে পরিস্থিতি স্বাভাবিক হয়।



 

Show all comments
  • Mahfojor Rahman ২৮ এপ্রিল, ২০২০, ১২:২৬ পিএম says : 0
    যেসব এলাকায় সংক্রমণ কম সেখানে সীমিত আকারে লোকাল বাস চালু করা যেতে পারে এতে অন্য জেলার সঙ্গে যোগাযোগ হবে না ।কারণ ইতিমধ্যে অনেক গার্মেন্টস খোলায় লোকাল বাস দরকার পড়বে।
    Total Reply(0) Reply

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: শ্রমিক বিক্ষোভ


আরও
আরও পড়ুন