Inqilab Logo

ঢাকা সোমবার, ৩০ নভেম্বর ২০২০, ১৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৭, ১৪ রবিউস সানি ১৪৪২ হিজরী
শিরোনাম

নিকলীতে ইনকিলাব সংবাদদাতাকে প্রাণনাশের হুমকি

নিকলী (কিশোরগঞ্জ) উপজেলা সংবাদদাতা | প্রকাশের সময় : ২৯ এপ্রিল, ২০২০, ৩:২৮ পিএম

দৈনিক ইনকিলাবের কিশোরগঞ্জের নিকলী উপজেলা সংবাদদাতা মো. হেলাল উদ্দিনকে প্রাণনাশের হুমকি দিয়েছে কারপাশা ইউনিয়নের ২ নম্বর ওয়ার্ডের মেম্বার নানশ্রী বাঘুয়াখালি গ্রামের মুক্তার উদ্দিনের ছেলে ইমান আলী। মো. হেলাল উদ্দিন নিকলী প্রেসক্লাবেরও সহ-সভাপতি। এছাড়া তিনি দাখিল মাদরাসার সহকারী শিক্ষক হিসেবে কর্মরত।

অসহায় এক বিধবা মহিলাকে সরকারি সাহায্য দেয়ার জন্য ফেসবুকে একটি স্ট্যাটাস পোস্ট করায় সাংবাদিক হেলালের বাড়ির সামনে এসে তাকে হত্যার হুমকি দিয়ে যায় মেম্বার। এ সময় বিষয়টির প্রতিবাদ করলে সাংবাদিকের ভাগ্নেকে মারপিট করেন ওই মেম্বার। এ ঘটনায় সাংবাদিক হেলাল গত সোমবার নিকলী থানায় সাধারণ ডায়েরি করেন। বিষয়টি লিখিত অভিযোগে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তাকেও জানানো হয়েছে।

সাংবাদিক হেলাল জানান, তার গ্রামের অসহায় এক বিধবা মহিলাকে সরকারি সাহায্য দেয়ার জন্য কর্তৃপক্ষের দৃষ্টি আকর্ষণ করে তিনি ফেসবুকে একটি স্ট্যাটাস দেন। এই স্ট্যাটাসে তিনি বিধবা মহিলার সাহায্য না পাওয়া বিষয়ে কাউকে দোষারোপ করেননি বা কারো নাম উল্লেখ করেননি। কিন্তু ইমান আলী মেম্বার গত রোববার সন্ধ্যায় তার বাড়ির সামনে এসে তাকে অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ করতে থাকেন। এ সময় হুমকি দিয়ে বলেন, হেলাল কি কইরা সাংবাদিকতা করে দেইখ্যা দিব, বেশি বাড়াবাড়ি করলে হাত পা কেটে বস্তায় ভরে লাশ টুকরা টুকরা করে নদীতে ফেলে দিব। মেম্বার চিৎকার করে শত শত মানুষের সামনে আরো বলতে থাকে ‘সাংবাদিকের স্ত্রী, ছেলে, মেয়ে যাকেই পাওয়া যাবে খুন করা হবে’। এ সময় সাংবাদিক হেলালের ভাগ্নে মো. হান্নান (২৫) প্রতিবাদ করলে তার ওপর চড়াও হন ইমান আলী মেম্বার। এক পর্যায়ে হান্নানকে নাকে মুখে কিল ঘুষি দিয়ে রক্তাক্ত করা হয়।

হেলাল বলেন, মেম্বারের এ হুমকি দেয়ার সময় আমি বাড়িতে ছিলাম না। তার চিৎকার চেঁচামেচিতে এলাকার লোকজন জড়ো হন। আমার স্ত্রী সন্তানরা ভয়ে ঘরের দরজায় খিল এঁটে কাঁদতে থাকে।

সাংবাদিক ও তার পরিবারের লোকজনকে হত্যার হুমকি দেয়ার ঘটনার তীব্র প্রতিবাদ ও নিন্দা জানিয়েছেন নিকলী প্রেসক্লাবের সভাপতি এম হাবিবুর রহমান ও নিকলী উপজেলা প্রেসক্লাবের সভাপতি শেখ উবাইদুল হক সম্রাট। তারা দ্রুত হুমকিদাতাকে আইনের আওতায় আনার জন্য আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর প্রতি আহŸান জানান। অন্যথায় বিষয়টি নিয়ে আন্দোলনে নামা হবে বলে জানিয়েছেন তারা।

এ বিষয়ে নিকলী থানার ওসি শামছুল আলম সিদ্দিকী বলেন, সাংবাদিক হেলাল নিরাপত্তা চেয়ে একটি সাধারণ ডায়েরি (জিডি) করেছেন। বিষয়টিকে গুরুত্বসহকারে নিয়েছি। অভিযোগ পাওয়ার পর সঙ্গে সঙ্গে হেলালের বাড়িতে পুলিশ পাঠিয়েছি। ঘটনার তদন্ত চলছে, সত্যতা পেলে হুমকিদাতাকে দ্রæতই আইনের আওতায় আনা হবে।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: প্রাণনাশের হুমকি
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ