Inqilab Logo

সোমবার, ১৮ অক্টোবর ২০২১, ০২ কার্তিক ১৪২৮, ১০ রবিউল আউয়াল সফর ১৪৪৩ হিজরী

জামাইয়ের বিরুদ্ধে মামলা শ্যালিকাকে ধর্ষণ অতপর শ্রীঘরে

প্রকাশের সময় : ২১ জুলাই, ২০১৬, ১২:০০ এএম

সীতাকুন্ড (চট্টগ্রাম) উপজেলা সংবাদদাতা
সীতাকুন্ডে বেড়ানোর কথা বলে নাবালিকা শ্যালিকাকে ধর্ষণ করেছে তারই দুলাভাই। উপজেলার বাড়বকু- ইউনিয়নের দাড়ালিয়া পাড়া গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। গত মঙ্গলবার সন্ধ্যায় এ ঘটনায় ভুক্তভোগীর মা বাদি হয়ে ধর্ষক জামাইয়ের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করলে পুলিশ তাকে গ্রেফতার করে। মামলা সূত্রে জানা যায়, গত ১৭ জুন সীতাকু-ের বাড়বকু- ইউনিয়নের দাড়ালিয়া পাড়া এলাকার ৫ম শ্রেণীর ছাত্রী (১২) একই গ্রামে তার বড় বোনের বাড়িতে বেড়াতে গেলে কিশোরীর দুলাভাই মো: সফর উদ্দিন (২৭) তাকে পেয়ারা বাগানে বেড়ানোর কথা বলে স্থানীয় পাহাড়ে নিয়ে যায়। সে বিভিন্ন স্থানে ঘোরাঘুরি করে কালক্ষেপণ করতে করতে একপর্যায়ে রাত ৮টার দিকে পাহাড়েই তাকে জোরপূর্বক ধর্ষণ করে। পরদিন ধর্ষক দুলাভাই তাকে নিজ বাড়িতে দিয়ে আসে। এদিকে বাড়িতে আসার পর ধর্ষিতা তার মা-বাবার কাছে ঘটনা প্রকাশ করে দিলেও ধর্ষক বড় বোনের জামাই হওয়ায় প্রথমে তার মা-বাবা ঘটনাটি চেপে যাবার চেষ্টা করে। কিন্তু ভুক্তভোগী মেয়েটি বারবার এ ঘটনার বিচার দাবি করায় বাধ্য হয়ে গত মঙ্গলবার তার মা মাবিয়া খাতুন সীতাকু- থানায় উপস্থিত হয়ে ধর্ষক সফর উদ্দিনের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করেন। ধর্ষক সফর উদ্দিন বাড়বকু- ইউনিয়নের দাড়ালিয়া গ্রামের মৃত ছবির আহমেদের পুত্র। মামলার তদন্তকারী অফিসার সীতাকু- থানার এসআই মো: কামাল উদ্দিন ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে প্রতিবেদককে জানান, ঘটনাটি আরো কয়েকদিন আগে ঘটলেও ধর্ষক আপন দুলাভাই হওয়ায় ধর্ষিতার পরিবার ঘটনাটি চাপা দিতে চেয়েছিল। কিন্তু ধর্ষিতা কিশোরী ধর্ষকের বিচারের দাবিতে অনড় থাকায় তার মা মাবিয়া খাতুন বাদি হয়ে মেয়ে জামাইয়ের বিরুদ্ধেই মামলা দায়ের করেন। মামলা দায়ের শেষে আমি অভিযুক্ত সফর উদ্দিনকে গ্রেফতার করেছি। গতকাল বুধবার মেয়েটিকে ডাক্তারি পরীক্ষার জন্য ও আসামিকে আদালতে সোপর্দ করা হবে।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: জামাইয়ের বিরুদ্ধে মামলা শ্যালিকাকে ধর্ষণ অতপর শ্রীঘরে
আরও পড়ুন
গত​ ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ