Inqilab Logo

ঢাকা, শুক্রবার, ০৫ জুন ২০২০, ২২ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৭, ১২ শাওয়াল ১৪৪১ হিজরী

পাক-ভারত সীমান্তে সংঘর্ষ : ২ ভারতীয় সেনার মৃত্যু

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ২ মে, ২০২০, ১২:১৪ পিএম
শনিবার ভারতীয় সেনা কর্মকর্তাদের বরাতে হিন্দুস্তান টাইমসের খবরে বলা হয়, শুক্রবার বারামুল্লার কাছে নিয়ন্ত্রণরেখায় যুদ্ধবিরতি লঙ্ঘন করেছিল পাকিস্তানি সেনারা। সেই ঘটনায় আহত দুই জওয়ানের মৃত্যু হয়েছে।
একজন প্রতিরক্ষা মুখপাত্র সংবাদমাধ্যমটিকে বলেন, ১ মে রামপুর সেক্টরে বিনা প্ররোচনায় পাক সেনারা যুদ্ধবিরতি লঙ্ঘন করে। দুর্ভাগ্যবশত এতে দুই আহত জওয়ান মারা গিয়েছেন।
শুক্রবার প্রতিরক্ষা মুখপাত্র রাজেশ কালিয়া জানান, নিয়ন্ত্রণরেখা বরাবর রামপুর সেক্টরের কাছে দুপুর সাড়ে তিনটার দিকে বিনা প্ররোচনায় যুদ্ধবিরতি চুক্তি লঙ্ঘন করেছে পাকিস্তানি সেনারা। সেই ঘটনায় তিন ভারতীয় জওয়ান আহত হন। ভারতীয় সেনারাও এ হামলার পাল্টা জবাব দেয়। এর আগে বৃহস্পতিবারও পুঞ্চ জেলায় নিয়ন্ত্রণরেখায় দুই দেশের সেনাদের মধ্যে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছিল।
ভারতীয় বাহিনীর অভিযোগ, চলতি বছরে এখনও পর্যন্ত ১,৪০০ বার যুদ্ধবিরতি লঙ্ঘন করেছে পাকিস্তান। গত বছর সেই সংখ্যাটা ছিল ৩,১৬৮। ২০১৮ সালে যা ছিল ১,৬২৯।


 

Show all comments
  • A R Sarker ২ মে, ২০২০, ১২:২৪ পিএম says : 0
    Routine works.
    Total Reply(0) Reply
  • Mohammed Kowaj Ali khan ২ মে, ২০২০, ১২:৩৯ পিএম says : 0
    Why India is big begar in Pakistan Borders? When this bsf come Bangladesh Borders then bsf come big killer mad dog of the world. Killing our fealani. Rubish, rubish. Bsf. INSALLAH.
    Total Reply(0) Reply
  • rafiqul islam ২ মে, ২০২০, ১:১১ পিএম says : 0
    nicely done.
    Total Reply(0) Reply
  • Fashbir Subran ২ মে, ২০২০, ১:৫৪ পিএম says : 0
    পাকিস্তানকে যদি বাংলাদেশের মতো পা চাটা গোলাম ভাবে ভারত তবে সেটা হবে ওদের জন্য সব থেকে বড় বিপদ কারন পাকিস্তানের সরকার মারতে বা মরতে ভয় পায় না।। বাংলাদেশের অভ্যন্তরে ভারতীয় বিএসএফ অবৈধ ভাবে ঢুকে অনেক সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ড পরিচালনা করছে অহরহ কিন্তূ দুঃখের বিষয় হচ্ছে আজ পর্যন্ত এসবের কোন আইনগত বিচার হয়নি। ওদের একটাই বাংলাদেশের মানুষ ভারতে গরু চুরি করতে গিয়ে গুলি খেয়েছে কিন্তূ ভারতের অনেক জেলে বাংলাদেশের অভ্যন্তরে অবৈধভাবে প্রবেশ করে ইলিশ শিকার করতে আসে। কিন্তূ বাংলাদেশের বিজিবি সদস্যরা সেসব জেলেদের ধরে এনে পতাকা বৈঠকের মাধ্যমে ভারতীয় বিএসএফের হাতে তুলে দেয়। আচ্ছা আমাদের বিজিবি সদস্যরা কি বন্দুক ছাড়া বঙ্গোপসাগরে টহলরত থাকে? অস্ত্র তো বিজিবির কাছে ও থাকে তাহলে ভারতীয় জেলেদের কুকুরের মতো গুলি করে হত্যা করা হয় না কেন? আসলে আমাদের পিরিতি উছলে পড়ে তাই ঐ ............রা সুযোগ কাজে লাগায়।।।অবশ্য এসব দিক বিবেচনা করে বলা যায় পাকিস্তানের সরকার তথা সেনাবাহিনী বাঘের বাচ্চা।একটা মারলে তিনটা খতম করে পাকিস্তানের সেনাবাহিনী।সেলুড পাকিস্তান।
    Total Reply(0) Reply

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: পাকিস্তান


আরও
আরও পড়ুন