Inqilab Logo

ঢাকা, মঙ্গলবার, ১১ আগস্ট ২০২০, ২৭ শ্রাবণ ১৪২৭, ২০ যিলহজ ১৪৪১ হিজরী

ফেসবুকে পুলিশের নামে গুজব, গ্রেফতার ২

বিশেষ সংবাদদাতা | প্রকাশের সময় : ৩ মে, ২০২০, ১২:০৩ এএম

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে এক নারীর নামে পরিচালিত অ্যাকাউন্ট থেকে পুলিশের নামে গুজব ছড়ানোয় দুইজনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। তারা হলেন- মামুন হোসাইন রুবেল ও শাহপরান আলম খান রাব্বী। শুক্রবার পুলিশ সদর দপ্তরের এআইজি (মিডিয়া) সোহেল রানা এ তথ্য জানান।

তিনি বলেন, গত ২৯ এপ্রিল ভোর ৪ টার দিকে ফেসবুকে ‘ঔধৎরহব অভৎরহব জঁসধ’ নামের একটি অ্যাকাউন্ট থেকে একটি পোস্ট দিয়ে বলা হয়, ফরিদগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা ত্রাণ দেওয়ার কথা বলে এক তরুণীকে ধর্ষণ করেছেন’। পোস্টটি নজরে আসার সঙ্গে সঙ্গে বিষয়টি নিয়ে তদন্তে নামে চাঁদপুর জেলা পুলিশ ও বাংলাদেশ পুলিশের সাইবার টিম। তদন্তের বিষয়টি আঁচ করতে পেরে ‘ঔধৎরহব অভৎরহব জঁসধ’ নামের ওই অ্যাকাউন্ট থেকে তড়িঘড়ি করে নিজের দোষ স্বীকার করে এবং ক্ষমা প্রার্থনা করে আরেকটি পোস্ট দেওয়া হয়।

দ্বিতীয় পোস্টে উল্লেখ করা হয়, করোনাভাইরাস মহামারীর সময়ে বাংলাদেশ পুলিশের চমলান মানবিক কার্যক্রমকে প্রশ্নবিদ্ধ করতে এবং গুজব রটানোর উদ্দেশ্যে স্থানীয় এক ব্যক্তির প্ররোচনায় তিনি প্রথম পোস্টটি করেছিলেন। ওসির বিরুদ্ধে তিনি পূর্বে যে পোস্ট দিয়েছেন, আসলে তেমন কোনো ঘটনা-ই ঘটেনি। উদ্দেশ্যপ্রণোদিতভাবে গুজব ছড়ানোয় অভিযান চালিয়ে ‘ঔধৎরহব অভৎরহব জঁসধ’ নামের অ্যাকাউন্টটির প্রকৃত ব্যবহারকারীসহ ওই দুইজনকে আটক করা হয়। পরবর্তীতে তাদের নামে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে মামলা দায়ের করা হয়েছে।

এআইজি সোহেল রানা বলেন, সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ব্যবহার করে মিথ্যা তথ্য কিংবা গুজব ছড়ানো আইনত দন্ডনীয় অপরাধ। এছাড়া, গুজবের মাধ্যমে একজন পুলিশ কর্মকর্তাকে সামাজিকভাবে বিতর্কিত করে তার ব্যক্তিগত ও পারিবারিক সুনাম নষ্ট করা হয়েছে।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: ফেসবুক


আরও
আরও পড়ুন
গত​ ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ