Inqilab Logo

ঢাকা বুধবার, ২৫ নভেম্বর ২০২০, ১০ অগ্রহায়ণ ১৪২৭, ০৯ রবিউস সানি ১৪৪২ হিজরী

দিবালার করোনামুক্তির আনন্দ

স্পোর্টস ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ৮ মে, ২০২০, ১২:০৫ এএম

গত ২১ মার্চ করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হওয়ার খবর নিশ্চিত করেছিলেন জুভেন্টাসের আর্জেন্টাইন তারকা পাওলো দিবালা। এরপর কেটে গেছে দেড় মাসেরও বেশি সময়। করোনাভাইরাসের সঙ্গে লম্বা যুদ্ধের পর অবশেষে তাকে জয় করতে পেরেছেন ২৬ বছর বয়সী এ তরুণ।

জুভেন্টাসে সবার আগে ডিফেন্ডার দানিয়েল রুগানির ও মিডফিল্ডার ব্লেইস মাতুইদি কোভিড-১৯ পজিটিভ হন। এরপর ২১ মার্চ দিবালা এবং তার বান্ধবী ওরিয়ানা সাবাতিনিও আক্রান্ত হন। মাঝে প্রায় সুস্থ হয়ে উঠেছিলেন। কিন্তু শরীরে ভাইরাসের উপস্থিতি থেকেই গেছে। এমনকি এক সপ্তাহে চার বার পরীক্ষা করে প্রত্যেকবারই পজিটিভ ফলাফল আসে। তাতে বেশ হতাশ হয়ে পড়েছিলেন এ তরুণ। দুদিন আগে ইনস্টাগ্রাম লাইভে সে হতাশাও প্রকাশ করেন। তবে অবশেষে মুক্তি পেলেন তিনি।
গতপরশুই এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বিষয়টি নিশ্চিত করেছে জুভেন্টাস কর্তৃপক্ষ। যাতে বলা হয়েছে, ‘প্রোটোকল অনুযায়ী করোনাভাইরাস-কোভিড ১৯-এর জন্য ডায়াগনস্টিক টেস্ট দুইবার পরীক্ষা করা হয়েছে এবং সেখানে নেগেটিভ ফলাফল এসেছে। অতএব এ খেলোয়াড় সুস্থ হয়ে উঠেছেন এবং তার আর হোম আইসোলেসনে থাকতে হবে না।’ একই দিনে করোনাভাইরাস জয়ের কথা নিশ্চিত করেছেন দিবালাও। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ইনস্টাগ্রামে নিজের হাস্যোজ্জ্বল এক ছবি পোস্ট করে লিখেছেন, ‘আমার মুখই সবকিছু বলে দিচ্ছে। অবশেষে কোভিড-১৯ থেকে আরোগ্য লাভ করলাম। গত কয়েক সপ্তাহ ধরে লোকজন অনেক কথা বলেছে... তবে অবশেষে আমি নিশ্চিত করছি, আমি সুস্থ। আরও একবার সবাইকে ধন্যবাদ আমার পাশে থাকার জন্য, একই সঙ্গে প্রার্থনা করছি তাদের জন্য যারা এই মুহূর্তে রোগটাতে ভুগছে। ভালো থাকবেন!’
জুভেন্টাসের তৃতীয় খেলোয়াড় হিসেবে করোনা থেকে সেরে উঠলেন দিবালা। এর আগে গত মার্চে করোনা ধরা পড়া দুই খেলোয়াড় দানিয়েলে রুগানি ও ব্লেইস মাতুইদি মুক্তি পেয়েছেন প্রাণঘাতী ভাইরাস থেকে। যদিও এই দুই খেলোয়াড়ের কোনও উপসর্গ ছিল না। দুদিন আগে ইনস্টাগ্রাম লাইভে ‘ফুটবল ছাড়া অসহায় লাগছে’ বলেছিলেন ওল্ড লেডি এই ফরোয়ার্ড দিবালা। খুব শিগগিরই মিলল সুসংবাদ। অবশেষে অনুশীলনে যাওয়ার অনুমতি মিলেছে তার। গত সোমবার থেকেই ব্যক্তিগত অনুশীলন শুরু হয়ে গেছে ইতালিতে। তবে ১৮ মে থেকে শুরু হবে দলগত অনুশীলন। যদিও মাঠের লড়াই কবে ফিরবে, সে ব্যাপারে এখনও কোনও সিদ্ধান্ত নিতে পারেনি সিরি ‘আ’ কর্তৃপক্ষ।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: করোনামুক্তির-আনন্দ
আরও পড়ুন