Inqilab Logo

ঢাকা বৃহস্পতিবার, ২৪ সেপ্টেম্বর ২০২০, ০৯ আশ্বিন ১৪২৭, ০৬ সফর ১৪৪২ হিজরী

ভারত পাকিস্তানের বিরুদ্ধে যুদ্ধপ্রস্তুতি নিচ্ছে : ইমরান খান

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ৯ মে, ২০২০, ৪:১২ পিএম

পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান কাশ্মীর সীমান্তে ভারতীয় সামরিক উপস্থিতির প্রতিক্রিয়ায় হুঁশিয়ারি উচ্চারণ করে বলেছেন, ইসলামাবাদের কাছে সুস্পষ্ট তথ্য প্রমাণ রয়েছে যে পাকিস্তানের বিরুদ্ধে তারা যুদ্ধ প্রস্তুতি নিচ্ছে এবং সাম্প্রতিক গোলযোগ ও সংঘাতময় পরিস্থিতিকে তারা যুদ্ধ শুরুর অজুহাত হিসেবে ব্যবহার করতে পারে। ইমরান খান এ অঞ্চলের দেশগুলোসহ আন্তর্জাতিক সমাজকে হুঁশিয়ার করে দিয়ে বলেছেন, ভারত ও পাকিস্তানের মধ্যে যদি যুদ্ধ বেধে যায় তাহলে এর পরিণত সব দেশকেই ভোগ করতে হবে।
সাম্প্রতিক দিনগুলোতে বিরোধপূর্ণ কাশ্মিরে ভারত ও পাকিস্তানের সীমান্ত এলাকায় উত্তেজনা বেড়েছে এবং দু´পক্ষের সেনাবাহিনীর মধ্যে মাঝে মধ্যেই সংঘর্ষের ঘটনা ঘটছে। এ অবস্থায় সীমান্তে নতুন করে ভারতের সামরিক তৎপরতা শুরু এবং ইসলামাবাদের বিরুদ্ধে তাদের আক্রমণাত্মক অবস্থান থেকে পাকিস্তানের কর্মকর্তারা মনে করছেন, ভারত আসলে যুদ্ধ শুরুর ক্ষেত্র তৈরির চেষ্টা করছে যার পরিণতি এ অঞ্চলের সব দেশের জন্যই হবে ভয়াবহ।
গত বছর ফেব্রুয়ারিতে ভারতের জঙ্গিবিমান পাকিস্তানের ভূখণ্ডে হামলা চালিয়ে প্রকাশ্যেই পাকিস্তানের সার্বভৌমত্ব লঙ্ঘন করেছিল। কিন্তু পাকিস্তান দুটি বিমান ভূপাতিত করে ওই হামলার জবাব দিয়েছিল। এ ছাড়া মাত্র কয়েক মাস আগে ভারতের সেনাবাহিনী অভিন্ন সীমান্তে বড় ধরনের সামরিক মহড়া চালায় এবং সম্প্রতি তারা কাশ্মির সীমান্তে নতুন করে সেনা তৎপরতা বাড়িয়েছে। এসব তৎপরতার মাধ্যমে ভারত আসলে দু´দেশের মধ্যে সম্ভাব্য যুদ্ধে নিজেদের প্রস্তুতি ও শক্তি প্রদর্শনের চেষ্টা করেছে বলে পর্যবেক্ষকরা মনে করছেন।
কাশ্মিরের ব্যাপারে পাকিস্তানের নীতি হচ্ছে, জাতিসংঘের প্রস্তাব অনুযায়ী সেখানে গণভোট দিতে হবে যাতে স্থানীয় জনগণ সিদ্ধান্ত নিতে পারে তারা ভারতের সঙ্গে থাকবে না কি পাকিস্তানের সঙ্গে থাকবে। কিন্তু ভারত প্রথম থেকেই পাকিস্তানের এ দাবি প্রত্যাখ্যান করে আসছে এবং কাশ্মিরিদের প্রতি বাইরের যে কোনো দেশের সমর্থনকে ভারতের অভ্যন্তরীণ বিষয়ে হস্তক্ষেপ বলে মনে করে দিল্লি। ভারত এমন সময় এটাকে তার দেশের অভ্যন্তরীণ বিষয় বলে দাবি করছে যখন তারা শুধু যে কাশ্মিরিদের ভবিষ্যত নির্ধারণের ব্যাপারে জাতিসংঘের প্রস্তাবকে অগ্রাহ্য করে যাচ্ছে তাই নয় এমনকি নয়া দিল্লি সম্প্রতি কাশ্মিরের স্বায়ত্বশাসনের অধিকারও কেড়ে নিয়েছে। এর ফলে সেখানে নতুন করে অস্থিরতা তৈরি হয়েছে এবং জনজীবনে নেমে এসেছে সীমাহীন দুর্ভোগ।
স্বায়ত্বশাসন কেড়ে নেয়ার পর পাকিস্তানের সরকার ও জনগণ ভারত নিয়ন্ত্রিত কাশ্মিরিদের অধিকারের প্রতি আরো সমর্থন দেয়া শুরু করেছে এবং তারা কাশ্মিরসহ সমগ্র ভারতে মুসলমানদের ওপর উগ্র হিন্দুত্ববাদীদের অত্যাচার নির্যাতন বন্ধে পদক্ষেপ নেয়ার জন্য আন্তর্জাতিক সমাজের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন। সূত্র: পার্সটুডে।



 

Show all comments
  • jack ali ৯ মে, ২০২০, ৯:৩১ পিএম says : 0
    O´Allah destroy Muslim killer Modi and his Army by corona virus. Ameen. If war broke out between Pakistan and India, O´Allah give victory to Pakistan. Ameen
    Total Reply(0) Reply

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

আরও পড়ুন