Inqilab Logo

ঢাকা, শুক্রবার, ১০ জুলাই ২০২০, ২৬ আষাঢ় ১৪২৭, ১৮ যিলক্বদ ১৪৪১ হিজরী

কাবুলে প্রসূতি হাসপাতালে বন্দুক হামলা, শিশুসহ নিহত ১৭

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ১৩ মে, ২০২০, ১২:৫৭ পিএম

আফগানিস্তানের রাজধানী কাবুলের একটি প্রসূতি হাসপাতালে অজ্ঞাত বন্দুকধারীরা ভয়াবহ হামলা চালিয়েছে। এতে বন্দুকধারীসহ কমপক্ষে ১৭ জনের মৃত্যু হয়েছে বলে জানা গেছে।

গতকাল মঙ্গলবার দেশটির স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র এক বিবৃতিতে জানান, কাবুলের বারচি হাসপাতালে মারাত্মক এ হামলায় দুই শিশু এবং ১২ জন মা ও নার্স মারা গেছেন। এছাড়া বেশ কয়েকটি শিশুসহ আরো ১৫ জন আহত হয়েছে বলেও জানিয়েছে ওই মুখপাত্র।
বিবৃতিতে আরো বলা হয়, এ হামলার পেছনে থাকা তিন বন্দুকধারীকেও গুলি করে হত্যা করা হয়েছে। সরকার পরিচালিত এ প্রসুতি হাসপাতালে থাকা বাকিদের অন্যত্র সরিয়ে নেয়া হয়েছে বলেও জানিয়েছে মন্ত্রণালয়।

জানা গেছে, মঙ্গলবার সকালে কাবুলের পশ্চিমাঞ্চলীয় বারচি এলাকায় অবস্থিত ওই হাসপাতালে অজ্ঞাত বন্দুকধারীরা মেশিনগান ও গ্রেনেড নিয়ে হামলা চালায়। সেখানে গোলাগুলি ও গ্রেনেডের বিস্ফোরণের কথা জানিয়েছেন প্রত্যক্ষদর্শীরা।

হাসপাতাল সূত্রের বরাত দিয়ে স্থানীয় একটি টেলিভিশন চ্যানেল জানিয়েছে, সেখানে থাকা ডাক্তার ও নার্সরা অনেকেই ভবন থেকে পালিয়ে যেতে সক্ষম হয়েছেন।
আফগান স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় জানিয়েছে, দাস্ত ই বার্চি হাসপাতালটিতে তিনি বন্দুকধারী পুলিশের পোশাক পরে প্রবেশ করেছিল। প্রবেশের পর তারা গ্রেনেড ছুঁড়ে মারে ও গুলিবর্ষণ শুরু করে। হামলায় বেশ কয়েকজন আহতও হয়েছে। অর্ধশতাধিক লোককে হাসপাতাল থেকে সরিয়ে নেওয়া হয়েছে। তাৎক্ষনিকভাবে কেউ এই হামলার দায় স্বীকার করেনি। তালেবান অবশ্য দাবি করেছে, এ হামলার সঙ্গে তাদের কোনো সংশ্লিষ্টতা নেই।

জনস্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের ১০০ শয্যার হাসপাতালটি ডক্টর উইদাউট বর্ডারের সহযোগিতায় পরিচালিত হতো।
স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র তারিক আরিয়ান জানান, নিরাপত্তা বাহিনী বন্দুকধারীদের বিরুদ্ধে অভিযান শুরু করেছে। নারী ও শিশুসহ ৮০ জনকে হাসপাতাল থেকে সরিয়ে আনা হয়েছে। নিরাপত্তা বাহিনীর গুলিতে এক বন্দুকধারী নিহত হয়েছে।



 

Show all comments
  • jack ali ১৩ মে, ২০২০, ১:০১ পিএম says : 0
    This is inhuman- those who carried out this attack, may Allah punish them severely, Ameen..
    Total Reply(0) Reply

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: আফগানিস্তান


আরও
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ