Inqilab Logo

ঢাকা রোববার, ০১ নভেম্বর ২০২০, ১৬ কার্তিক ১৪২৭, ১৪ রবিউল আউয়াল ১৪৪২ হিজরী
শিরোনাম

মেয়েকে অপহরণের অভিযোগে সন্ত্রাসীদের ভয়ে পালিয়ে বেড়াচ্ছে বাবা

কলাপাড়া (পটুয়াখালী) জেলা সংবাদদাতা | প্রকাশের সময় : ১৩ মে, ২০২০, ৫:৪৯ পিএম

পটুয়াখালীর মহিপুরে অপহরণের ৪দিনেও উদ্ধার হয়নি শারমিন। দফায় দফায় অপহরণকারীদের সন্ত্রাসী হামলার ভয়ে পালিয়ে বেড়াচ্ছেন শারমিন এর বাবা রফিকুল ইসলাম। থানায় মামলা নিতে পুলিশের গড়িমসি। তবে পুলিশ বলছে এটি প্রেমঘটিত বিষয়। প্রযুক্তি ব্যবহারের মাধ্যমে শারমিনকে উদ্ধারের চেষ্টা করে যাচ্ছে পুলিশ।
পুলিশ ও পারিবারিক সুত্রে জানা গেছে,মহিপুর থানার ডালবুগঞ্জ ইউনিয়নের জামালপুর গ্রামের বাসিন্দা রফিকুল ইসলামের মেয়ে শারমিনকে গত ৯মে রাতে সাগর হাওলাদার অপহরন করে নিয়ে যাওয়ার অভিযোগ ওঠে। শারমিন ও সাগর দুজনে আপন চাচাতো ভাই বোন। শারমিন এবছর এসএসসি পরিক্ষা দিয়েছে। সাগর বর্তমানে অষ্টম শ্রেনীতে পরে। ১০ই মে ভোরে শারমিনের বাবা রফিকুল ইসলাম মহিপুর থানায় তার মেয়েকে অপহরণ করা হয়েছে মর্মে মৌখিক ভাবে অভিযোগ করেন। অপহরনের পর স্থানীয় জনপ্রতিনিধিরা মেয়েকে উদ্ধারের কথা বললেও এখন পর্যন্ত উদ্ধার হয়নি শারমিন।
শারমিনের বাবা রফিকুল ইসলাম বলেন, সাগর তার ভাইয়ের ছেলে হলেও তার মেয়ের সাথে কোন প্রেমের সম্পর্ক নেই। শারমিনের চেয়ে সাগর প্রায় ৩বছরের ছোট। তাকে অপহরন করা হয়েছে। এ অপহরনে সহযোগিতা করেছে ইফরান (২৩) ও ফারুক হাং সহ আরো কয়েকজনে। তিনি বলেন,সাগর ও তার পরিবার মাদক ব্যবসায়ী পরিবার। তাদের সাথে পুলিশের সখ্যতা রয়েছে। মেয়েকে অপহরনের পরও দুই দফায় তার বাড়িতে হামলা চালিয়েছে সন্ত্রাসীরা। হামলাকারীদের পুলিশ ধরছে না। তিনি এখন জীবনের ভয়ে বাড়ি ছেড়ে পালিয়ে বেড়াচ্ছেন।
তিনি আরো বলেন, ঘটনার পর পরই থানায় গিয়ে মামলা করতে চেয়েছেন। তার মামলা নেয়নি পুলিশ। ১২ই মে অপহরণকারী সাগরের মা রাবেয়া বেগম বাদী হয়ে তার ছেলেকে শারমিন ফুঁসলিয়ে নিয়ে গেছে বলে উল্টো তাদের বিরুদ্ধে একটি মামলা করেন। একই দিন বিকেলে পুলিশ তার মেয়েকে অপহরনের মামলা নেয়। মেয়ে উদ্ধার না করে পুলিশের সহযোগিতায় তাদের উপর হামলা মামলা করা হচ্ছে বলে শারমিনের বাবার এমন অভিযোগ করেছেন।
ডালবুগঞ্জ ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আব্দুস সালাম সিকদার বলেন, মেয়ে এবং ছেলে দু’জন আপন চাচাতো ভাই বোন। মেয়ের চেয়ে ছেলের বয়স কম। দুই পরিবারের পরস্পর বিরোধী বক্তব্যে থেকে তিনি জানতে পেরেছেন এদের মধ্যে প্রেমের সম্পর্ক আছে। ছেলের পরিবার শারমিনকে তার কাছে হাজির করার কথা ছিল। কিন্তু তারা এখনও মেয়েকে তার কাছে হাজির করেনি। মেয়ে উদ্ধার হলে জানা যাবে অপহরন না সেচ্ছায় পালিয়েছে দুজনে। চেয়ারম্যান সালাম সিকদার আরো বলেন, এটা সত্য যে মেয়ের বাবা ছেলে পক্ষের হামলার ভয়ে পালিয়ে বেড়াচ্ছে। তার কাছে এমন অভিযোগ করেছে মেয়ের বাবা।
মহিপুর থানার অফিসার্স ইনচার্জ (ওসি) মোঃ মনিরুজ্জামান জানান, শারমিনকে অপহরণ করা হয়েছে এমন অভিযোগ করেছে শারমিনের বাবা। অপরদিকে সাগরের মা রাবেয়া বেগম তার ছেলেকে শারমিন ফুঁসলিয়ে নিয়ে যাবার অভিযোগ এনে থানায় একটি মামলা করেছে। শারমিন ও সাগর দু’জনে আপন চাচাতো ভাইবোন। তাদের মধ্যে প্রেমের সম্পর্ক রয়েছে বলে পুলিশ প্রাথমিক ভাবে ধারনা করছেন। তবে প্রযুক্তি ব্যবহারের মাধ্যমে শারমিনকে উদ্ধারে চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে পুলিশ বলে জানান তিনি।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

আরও পড়ুন