Inqilab Logo

ঢাকা বুধবার, ৩০ সেপ্টেম্বর ২০২০, ১৫ আশ্বিন ১৪২৭, ১২ সফর ১৪৪২ হিজরী

আমি কিন্তু দায়ী নই

ডেইলি মেইল | প্রকাশের সময় : ১৫ মে, ২০২০, ১২:০৪ এএম

বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা (ডব্লিউএইচও) আগেই জানিয়েছিল করোনাভাইরাস ঠিক কিভাবে মানুষের দেহে প্রবেশ করেছে। আর তা না জানা পর্যন্ত এর ভ্যাকসিন তৈরি সম্ভব না। কিন্তু এখনও কোনও এক সিদ্ধান্তে উপস্থিত হতে পারলেন না গবেষকরা।

ডবিøউএইচও জানিয়েছে, বাদুড় থেকেই মানুষের দেহে প্রবেশ করেছে করোনা। অনেকে আবার বলছেন প্যাঙ্গোলিনের সঙ্গে এই ভাইরাসের অনেকটা মিল আছে। তবে নতুন সমীক্ষায় আবার দাবি করা হয়েছে বাদুড় থেকে মানুষের শরীরে করোনার ভাইরাস ছড়ানোর পিছনে প্যাঙ্গোলিনের ভ‚মিকা নেই।
চীনা গবেষকরা জানাচ্ছেন, এই প্রাণী প্রাকৃতিক ভাবেই বিভিন্ন করোনা ভাইরাসের হোস্ট। তবে প্যাঙ্গোলিন করোনার সরাসরি উৎস বলে মনে হয় না।

বর্তমানে বিশেষজ্ঞরা জানিয়েছেন, পৃথিবী জুড়ে ছড়িয়ে পড়া এই ভাইরাস মানুষের দেহে এসেছে বাদুড় থেকেই। তবে সম্ভবত এটি অন্য কোনও মধ্যস্থতাকারী প্রাণীর মাধ্যমে মানব দেহে ছড়িয়েছে। এই মধ্যস্থকারী প্রাণীকে খুঁজে বের করাই এখন গবেষকদের মূল টার্গেট।

কোথা থেকে এই ভাইরাস মানুষের দেহে প্রবেশ করল, কীভাবে তা ঘটল এই প্রশ্নের উত্তর খুঁজছেন বিশেষজ্ঞরা। প্রথমে মনে করা হচ্ছিল প্যাঙ্গোলিন থেকে ছড়িয়ে থাকতে পারে এই ভাইরাস। চীনে বিক্রি করা হয় এই প্যাঙ্গোলিন। একে খাবার হিসেবেও খাওয়া হয় আবার ওষুধ তৈরির কাজে লাগে।

তবে চীনা বিজ্ঞানীরা প্যাঙ্গোলিনকে এই ভাইরাসের বাহক না মানলেও এখনই তা সর্বজন গ্রাহ্য হচ্ছে না। চীন ও দক্ষিণ পূর্ব এশিয়ায় প্যাঙ্গোলিরে উপর বিশেষ নজরদারি চালাচ্ছেন বিজ্ঞানীরা। প্যাঙ্গোলিন থেকে কিভাবে এই ভাইরাস ছড়িয়ে পড়তে পারে তা খতিয়ে দেখা হচ্ছে।
উল্লেখ্য, চীন, দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়া, ভারত ও আফ্রিকার কিছু বিশেষ অংশের জঙ্গলে মেলে এই প্যাঙ্গোলিন। তবে এখন এরা প্রায় বিলুপ্ত হওয়ার পথে। বিদেশে এর আঁশ ও মাংসের চাহিদা থাকায় নির্বিচারে হত্যা করা হয়েছে এই প্রাণীকে।

 



 

Show all comments
  • Somnath Das ১৫ মে, ২০২০, ১:০৯ এএম says : 0
    কোন প্রাণী পশু দায়ী নয়। করোনা মানবসৃষ্টি। দায়ী লাল চীন। বিশ্বের প্রথম সারির দেশগুলি সকলেই প্রায় একই অভিযোগের আঙ্গুল তুলেছে চীনের দিকে, এ নিয়ে কোন সন্দেহ নেই।
    Total Reply(0) Reply
  • Krishna Chandra ১৫ মে, ২০২০, ১:০৯ এএম says : 0
    বাদুর সারা বিশ্বে আছে তবুও বলি সর্ব প্রথম চীনে ই আক্রমণ করল করোনা। সারা বিশ্বে হত এক সাথেই । চীন কে বাঁচানোর এক নয়া পন্থা ।
    Total Reply(0) Reply
  • Biswajit Mishra ১৫ মে, ২০২০, ১:০৯ এএম says : 0
    এই পৃথিবী পাগলাগারদ হতে বেশি সময় লাগবে না!!!
    Total Reply(0) Reply
  • Tauhid Zamadar ১৫ মে, ২০২০, ১:১০ এএম says : 0
    Kono prani dayi na. Ata chin harami kichu jene bujhe koreche.
    Total Reply(0) Reply
  • Parimal Khan ১৫ মে, ২০২০, ১:১০ এএম says : 0
    এর আগে কি পাঙ্গলিন ছিলনা ? এখন তো লুপ্তপ্রায়, করোনা তাহলে এলো কথা থেকে ? আমার মনে হচ্ছে এটা কোনও রাসায়নিক বিক্রিয়া ছাড়া বিশ্ব ব্যাপী এই বিষ ছাড়ালো কি করে তাই সব্বায়ের আগে বিশ্বের বিভিন্নপ্রান্তের সমস্ত দেশের সরকার উচিৎ রস্যানিক অস্ত্র পরীক্ষা বন্ধ করা তাহলে মানব সভ্যতা নির্বিঘ্নে বাঁচতে পারে , এর লক্ষণ গুলো শীত প্রধান দেশেও মারণ ক্ষমতা যেমন আবার গ্রীষপ্রধান দেশেও সেই একই দাপট এটা হয় কি করে ? তাই এখনও সময় আছে সাবধান হওয়ার !!!!!!
    Total Reply(0) Reply

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: করোনা


আরও
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ